বাড়ি > বায়োস্কোপ > অজয় দেবগণের ‘লালবাজার’ কানেকশন, ক্রাইম থ্রিলার নিয়ে চড়ছে উত্তেজনার পারদ
লালবাজারের হিন্দি টিজার সামনে আনলেন অজয় দেবগণ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
লালবাজারের হিন্দি টিজার সামনে আনলেন অজয় দেবগণ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

অজয় দেবগণের ‘লালবাজার’ কানেকশন, ক্রাইম থ্রিলার নিয়ে চড়ছে উত্তেজনার পারদ

  • কলকাতা শহর,শহরে ঘটে যাওয়া ভয়ানক সব অপরাধ এবং লালাবাজারের হোমিসাইড শাখার পাঁচ অফিসারের গল্প নিয়ে আসছে দ্বিভাষিক ওয়েব সিরিজ 'লালবাজার'।

করোনা সংকটের জেরে বন্ধ সিনেমাহল তাই বিনোদনের খোঁজে এখন ওটিটি প্ল্যাটফর্মের পোয়া বারো। ডিজিটাল স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে এখন ক্রাইম থ্রিলার জঁরের ছড়াছড়ি। সদ্যই ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন আমাজন প্রাইমের পাতালঘর, এবার জিফাইভে আসছে লালবাজার। হিন্দি-বাংলা দুই ভাষাতে মুক্তি পাবে 'সাগরদ্বীপে যকের ধন' পরিচালক সায়ন্তন ঘোষালের এই সিরিজ। লালাবাজার নামের মধ্যেই তো রহস্যের একটা গন্ধ লুকিয়ে রয়েছে। পাশাপাশি বাঙালির মনে একটা আলাদা জয়গা রয়েছে কলকাতা পুলিশ হেড কোয়ার্টার লালবাজারের। 

শুক্রবার লালবাজারের হিন্দি টিজার সামনে আনলেন বলিউডের সিংহম,অভিনেতা অজয় দেবগণ।লালবাজার প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছে সুরিন্দর ফিল্মস। লালবাজারের উপস্থাপক হিসাবে অজয় দেবগণকে পাওয়াটা নিঃসন্দেহে বড়ো পাওনা টিম লালবাজারের কাছে। সিরিজের হিন্দি টিজারের ভয়েস ওভারটিও  দিয়েছেন অজয়। 

টুইটবার্তায় অজয় লেখেন,'‘কারবার অপরাধীদের হলেও, কিন্তু বাজি জিতবে লালবাজার পুলিশ,শুরু হচ্ছে ১৯শে জুন থেকে অপরাধের শেষ না হওয়া পর্যন্ত। তৈরি হয়ে যাও’।

বর্তমান সমাজ ব্যবস্থার প্রেক্ষাপটে শুভ আর অশুভ শক্তির দ্বৈরথই এই ক্রাইম থ্রিলারের মূল উপজীব্য। অজয়ের ভয়েস ওভারেই তা স্পষ্ট। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘জিন্দেগি এয়সি কুত্তি চিজ হ্যয় জিসনে ইনসান কো ভেড়িয়া বানায়া..’।

এই ক্রাইম থ্রিলারে লিড রোলে দেখা মিলবে সৌরসেনী মৈত্র, কৌশিক সেন, সব্যসাচী চক্রবর্তী, গৌরব চক্রবর্তী, বিদীপ্তা চক্রবর্তী, সুব্রত দত্ত, শান্তিলাল মুখোপাধ্যয়, হৃষিতা ভাট সহ একগুচ্ছ তারকার।

দেখুন লাল বাজারের বাংলা টিজার-

আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে লালবাজার সম্পর্কে অজয় দেবগণ জানান, আমি সমসময়ই সেই ধরণের চরিত্রে অভিনয় করে আনন্দ পেয়েছি যেখানে অশুভ শক্তিকে হারিয়ে শুভ শক্তির জয় দেখানো হয়।আমাদের দেশের সাহসী পুলিশ অফিসারদের জীবন পর্দায় তুলে ধরা সহজ নয়, আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করি যে এই কাজটা আমি সাফল্যের সঙ্গে করতে পরেছি'। সিংহম তারকা যোগ করেন, এই ওয়েব সিরিজ একদিকে যেমন অপরাধ এবং সেই অপরাধের কিনারার গল্প উঠে আসবে,তেমনই এই গল্পের একটা মানবিক দিকও রয়েছে। যেখানে পুলিশ অফিসারদের ব্যক্তিগত জীবনের ঝলক ধরা পড়বে। আমি সৌভাগ্যবান যে দুনিয়ার সঙ্গে লালবাজারের পরিচয় করিয়ে দিতে পারলাম'।

কলকাতা শহরে ঘটে চলা পরপর কয়েকটি খুন, অপরাধ এবং লালবাজারের হোমিসাইড বিভাগের পাঁচ তদন্তকারী অফিসারকে নিয়ে এগেবো এই সিরিজের গল্প। ওয়েব সিরিজের চিত্রনাট্য লিখেছেন রঙ্গন চক্রবর্তী। সঙ্গীতের দায়িত্বভার সামলেছেন দেবজ্যোতি মিশ্র।

রবীন্দ্র সরোবরে ভেসে উঠছে নাড়িভুড়ি, উত্তর কলকাতার বাড়িতে মহিলার অন্তর্বাস দিয়ে খুন করা লাশ উদ্ধার হচ্ছে,মুন্সিগঞ্জে এক যৌনকর্মী রহস্যজনক মৃত্যু, একই পরিবারের তিন জন একইভাবে খুন, নারী পাচার চক্র...সিট অফ জয় যেন পাল্টে গিয়েছে সিট অফ ক্রাইমে। এই সব অপরাধ, অপরাধী আর পুলিশের গল্পের মাঝে রয়েছেন এক ক্রাইম জার্নালিস্টও যে ভূমিকায় রয়েছেন বলিউডের হৃষিতা ভাট। 

সব মিলিয়ে অপরাধী,পুলিশ ও সাংবাদমধ্যমের ত্রিকোণ গল্প বলবে লালবাজার। সব রহস্য আর রোমাঞ্চের উদঘাটনের জন্য আর দিন কয়েকের অপেক্ষা। ১৯ জুন থেকেই জিফাইভে স্ট্রিমিং শুরু হচ্ছে ‘লালবাজার’-এর।

বন্ধ করুন