বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘নাগা সাধুদের সঙ্গে মিলিন্দের তুলনা করে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছেন পূজা বেদী’
মিলিন্দের পাশে দাঁড়িয়ে বিতর্কে পূজা বেদি (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
মিলিন্দের পাশে দাঁড়িয়ে বিতর্কে পূজা বেদি (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

‘নাগা সাধুদের সঙ্গে মিলিন্দের তুলনা করে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছেন পূজা বেদী’

  • ন্যুড ছবি বিতর্কে মিলিন্দের পাশে দাঁড়িয়ে এবার সংবাদ শিরোনামে পূজা বেদী। 

গোয়ার বিচে নগ্ন হয়ে দৌড়ানোর জেরে ইতিমধ্যেই এফআইআর দায়ের হয়েছে বলিউড তারকা তথা প্রাক্তন সুপার মডেল মিলিন্দ সোমনের বিরুদ্ধে। এই ইস্যুতে সোমবার পূজা বেদী বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। অভিনেত্রী কথা লেখিকা পূজা বেদী টুইটারে লেখেন- 'যদি মিলিন্দের নগ্নতা অপরাধ হয় তাহলে নাগা বাবাদেরও গ্রেফতার করা উচিত'। পূজার এই মন্তব্য নিয়ে টুইটারে গতকাল থেকেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে। পূজার মন্তব্য ‘হিন্দু বিরোধী’, হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হেনেছে এই টুইট- দাবি নেটিজেনদের একাংশের। ইতিমধ্যেই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তারা। 

মঙ্গলবার পূজা মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করল ভারতীয় সাধু-সন্ন্যাসীদের সর্বোচ্চ সংগঠন ‘অখিল ভারতীয় আখড়া পরিষদ’। ১৪টি আখড়া নিয়ে গঠিত এই সংগঠনের সভাপতি মহান্ত নরেন্দ্র গিরি বলেন, পূজা বেদীর কোনও জ্ঞান নেই নাগা সন্ন্যাসীদের ঐতিহ্য নিয়ে। ৫৫তম তম জন্মদিনে নিজের টুইটারের দেওয়ালে একটি নগ্ন ছবি পোস্ট করেন মিলিন্দ, গোয়ার সমুদ্র সৈকতে তোলা সেই ছবিকে ‘অশ্লীল’ তকমা দিয়ে দায়ের হয় এফআইআর। টুইটারে মিলিন্দের পাশে দাঁড়িয়ে পূজা লেখেন- ‘এর মধ্যে কোনও অশ্লীলতা নেই, খুব সুন্দর ছবি। অশ্লীলতা আসলে মানুষের মনে রয়েছে তাই তাঁরা বেশিকিছু দেখছে! ওর একমাত্র অপরাধ হল যে ও সুন্দর, সফল এবং নতুন বেঞ্চ মার্ক তৈরি করছে! যদি নগ্নতা অপরাধ হয়, তাহলে নাগা বাবাদের গ্রেফতার করা উচিত।ছাইয়ের প্রলেব সেটাকে (নগ্নতা) গ্রহণযোগ্য করে তুলতে পারে না’। 

পূজা বেদীর বিতর্কিত টুইট 
পূজা বেদীর বিতর্কিত টুইট 

‘অখিল ভারতীয় আখড়া পরিষদ’-এর সভাপতি সাফ জানান, ‘একজন ফিল্ম আর্টিস্টের নগ্নতা ও অশ্লীলতার সঙ্গে নাগা সাধুদের ঐতিহ্য-পরম্পরার তুলনা করাটা এক্কেবারে ভুল কাজ’। মন্তব্য করবার আগে নাগা সন্ন্যাসীদের সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান নেওয়ার পরামর্শন দেন পূজা বেদীকে। 

অনেক কঠিন পরীক্ষার মধ্য দিয়ে একজন সন্ন্যাসী ‘নাগা সন্ন্যাসী’ হতে পারেন। কাম-ক্রোধ ঈশ্বরের কাছে সমর্পণ করলে তবেই তিনি হয়ে ওঠেন নাগা। কয়েক শতক করে এই ঐতিহ্য বর্তমান, জানান মহান্ত নরেন্দ্র গিরি। সঙ্গে যোগ করেন- নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য যাঁরা নগ্ন হয় তাঁরা সমাজকে ভুল বার্তা দেয়।আগামী বছর হরিদ্বারে অনুষ্ঠিত হতে চলা মহাকুম্ভে পূজা বেদীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ‘অখিল ভারতীয় আখড়া পরিষদ’-এর সভাপতি। তিনি বলেন, তাহলে হয়ত পূজা বেদীর পক্ষে নাগাদের জীবন নিয়ে জ্ঞান অর্জুন করা সম্ভবপর হবে।

নাগা সন্ন্যাসীদের নিয়ে সরাসরি প্রশ্ন তোলায় পুজার উপর ক্ষুদ্ধ নেট নাগরিকদের একটা বড়ো অংশ। অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত তোলার অভিযোগ এনে স্বারাষ্ট্র মন্ত্রক ও মহারাষ্ট্র সরকারের কাছে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন অনেকেই। 

বন্ধ করুন