বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > স্ত্রী টুইঙ্কেলের জন্মদিনে 'জীবনের জটিলতম সিদ্ধান্ত'-এর কথা বললেন অক্ষয় কুমার
অক্ষয়-টুইঙ্কেল 
অক্ষয়-টুইঙ্কেল 

স্ত্রী টুইঙ্কেলের জন্মদিনে 'জীবনের জটিলতম সিদ্ধান্ত'-এর কথা বললেন অক্ষয় কুমার

  • আজ ৪৮-এ পা দিলেন টুইঙ্কেল খান্না। স্ত্রীর জন্মদিনে আদুরে শুভেচ্ছা অক্ষয়ের। 

আজ প্রাক্তন বলিউড অভিনেত্রী তথা লেখিকা টুইঙ্কেল খান্নার জন্মদিন। আর স্ত্রীর জন্মদিনে আদুরে শুভেচ্ছা বার্তা এল খিলাড়ি কুমারের তরফ থেকে। এদিন 'জীবনের জটিলতম সিদ্ধান্ত' সম্পর্কে স্ত্রীকে খোঁচা দিতে দেখা গেল অক্ষয়কে। 

টুইঙ্কেলের রসিকতা করার দক্ষতা কারুই অজানা নয়। মিসেস ফানি বোনসের প্রশংসায় পঞ্চমুখ থাকেন নেটিজেনদের একাংশ। তবে স্পষ্টবক্তা হওয়ার সুবাদে সকলে যে তাঁকে পছন্দ করেন তেমনটাও নয়।  ১৯৭৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর জন্ম অভিনেত্রী ডিম্পল কাপাডিয়া  ও রাজেশ খান্নার বড় মেয়ে টুইঙ্কেলের। আজ অক্ষয় ঘরনির ৪৭তম জন্মদিন। এদিন স্ত্রীর সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে অভিনেতা লেখেন, ‘আরও একটি বছর.. ফের জীবনের জটিলতম সিদ্ধান্তগুলি নিতে হবে। কিন্তু আমি এটা ভেবেই খুশি যে সিদ্ধান্তগুলো আমি একা নয় আমরা দু’জনে মিলে নিতে পারব। শুভ জন্মদিন টিনা’।

এদিন স্ত্রীর সঙ্গে সাইকেলিংয়ের ফাঁকে তোলা একটি ছবি পোস্ট করেন অক্ষয়। যেখানে কালো ট্র্যাক প্যান্ট ও হুডি জ্যাকেটে দেখা মিলল আক্কির, অন্যদিকে ঘিয়ে রঙা সোয়েট টপ এবং সাদা প্যা্ন্টে ধরা দিলেন টুইঙ্কেল, চোখে জ্বলজ্বল করল রোদচশমা। 

দেখতে দেখতে দাম্পত্য জীবনের ১৯ বছর পার করে ফেলেছেন অক্ষয়-টুইঙ্কেল। অনেকেই তাঁদের ‘বেমানান' জুটি বলে কটাক্ষ করে থাকেন, তবে সেই নিয়ে কোনও দিনই মাথা ঘামাননি তাঁরা। আরভ ও নিতারা- দুই সন্তানকে নিয়ে সুখী গৃহকোণ অক্ষয়-টুইঙ্কেলের। 

টুইঙ্কেল নিজের সেন্স অফ হিউমার-এর জন্য হামেশাই প্রশংসিত হন। একবার তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল কেন বিয়ের পর নিজের পদবি পালটে ফেলেননি নায়িকা? তাঁর সপাট বক্তব্য ছিল, ‘আমি বিবাহিত, ব্র্যান্ডেড জিনিস নই। আমি কোনও ছোট কোম্পানি নই, যে গোডরেজের মতো একটা বড়ো ফার্ম আমাকে কিনে ফেলেছে এবং আমি নিজের ব্র্যান্ডের নামটাও তাই বদলে ফেলেছি’।

বন্ধ করুন