বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘শ্রীকৃষ্ণভক্ত মীরা’ হয়ে টেলিভিশনের পর্দায় ফিরছেন ‘আলো ছায়া’ খ্যাত দেবাদৃতা বসু
দেবাদৃতার কামব্যাক 
দেবাদৃতার কামব্যাক 

‘শ্রীকৃষ্ণভক্ত মীরা’ হয়ে টেলিভিশনের পর্দায় ফিরছেন ‘আলো ছায়া’ খ্যাত দেবাদৃতা বসু

  • ধারাবাহিকে শ্রীকৃষ্ণের ভূমিকায় দেখা যাবে ভাগ্যলক্ষ্মী ধারাবাহিকের শুভ, মানে অভিনেতা প্রারব্ধি সিংহ-কে। 

আলো ছায়া বন্ধ হওয়ার কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই নতুন অবতারে টেলিভিশনের পর্দায় ফিরছেন অভিনেত্রী দেবাদৃতা বসু। জি বাংলার এই নায়িকাকে এবার দেখা যাবে স্টার জলসার পর্দায়। সৌজন্যে, চ্যানেলের নতুন ভক্তিমূলক ধারাবাহিক ‘শ্রীকৃষ্ণভক্ত মীরা’। বেশ কয়েক মাস ধরেই চ্যানেলে চলছিল এই ধারাবাহিকের টিজার, কিন্তু সেখানে সিরিয়ালের স্টার কাস্ট সম্পর্কে কিছুই ফাঁস করা হয়নি। অবশেষে শনিবার সামনে এল ‘শ্রীকৃষ্ণভক্ত মীরা’ প্রথম প্রোমো। সেখানে মীরাবাঈ রূপে ধরা দিলেন দেবাদৃতা। কৃষ-মীরার কাহিনি টেলিভিশনের পর্দায় নতুন নয়। হিন্দি সিরিয়ালে বহুবার উঠে এসেছে এই প্লেটোনিক প্রেমের গল্প। 

অন্যদিকে এই সিরিয়ালের শ্রীকৃষ্ণ হতে চলেছে ভীষণ পরিচিত মুখ। সদ্য শেষ হওয়া ভাগ্যলক্ষ্মী ধারাবাহিকের শুভ, অর্থাত্ প্রারব্ধি সিংহ-কে দেখা যাবে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের চরিত্রে। পাশাপাশি এই ধারাবাহিকের হাত ধরেই দীর্ঘদিন পর টেলিভিশনের পর্দায় ফিরছে ‘ভুতু’ মানে আরশিয়া মুখোপাধ্যায়। খুদে মীরার ভূমিকায় দেখা যাবে আরশিয়াকে। 

যোধপুর শহরের প্রতিষ্ঠাতা মান্দোরের রাও যোধার নাতনি ছিলেন রাজকুমারী মীরা। পঞ্চদশ শতকের এই রাজকন্যের বিয়ে হয়েছিল চিতোর-রাজ রানা সঙ্গার জ্যেষ্ঠ পুত্র ভোজ রাজের সঙ্গে। ছোট থেকেই কৃষ্ণপ্রেমে লীন ছিলেন মীরা। মাত্র ২০ বছর বয়সে বিধবা হওয়ার পর কৃষ্ণনাম জপ করেই দিন কাটত মীরা। কথিত আছে পরবর্তীতে রবিদাসের শিষ্যত্ব গ্রহণ করে বৃন্দাবনে চলে যান মীরাবাঈ। কৃষ্ণকে নিয়ে প্রায় তেরোশো ভজনগীত লিখেছেন মীরা।ভক্তিবাদী ধারায় রচিত এই গানগুলির মাধ্যমে তিনি কৃষ্ণের প্রতি তাঁর প্রেম ব্যক্ত করেছিলেন। ইতিহাসের পাতা থেকে সেই গল্পই এবার উঠে আসবে টেলিভিশনের পর্দায়। তবে কবে থেকে বা কোন সময়ে দেখা যাবে এই ধারাবাহিক তা এখনও স্পষ্ট নয়। 

বন্ধ করুন