বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > দিতিপ্রিয়াকে ঘিরে ঝামেলা! জল্পনার মাঝেই আদৃতের বাগান বাড়িতে হুল্লোড় বিশ্বাবসুর
একফ্রেমে ধরা দিলেন আদৃত-বিশ্বাবসু (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
একফ্রেমে ধরা দিলেন আদৃত-বিশ্বাবসু (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

দিতিপ্রিয়াকে ঘিরে ঝামেলা! জল্পনার মাঝেই আদৃতের বাগান বাড়িতে হুল্লোড় বিশ্বাবসুর

  • ‘মিঠাই’ পরিবারের সঙ্গে আড্ডায় ধরা দিল প্রাক্তন সদস্য বিশ্বাবসু। আদৃতের সঙ্গে ঝামেলার জল্পনায় ইতি! 

সোমবার সকাল সকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় একফ্রেমে দেখা মিলল মিঠাইয়ের উচ্ছেবাবু আর প্রাক্তন স্যান্ডির। হ্যাঁ, অভিনেতা আদৃত রায়ের সঙ্গে নিজের একটি ছবি ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে পোস্ট করলেন অভিনেতা বিশ্বাবসু বিশ্বাস। গত মাসেই যিনি ‘মিঠাই’ ধারাবাহিক ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছেন। সাদা কাউচের উপর রিল্যাক্স মুডে বসে রয়েছেন বিশ্বাবসু, পাশে স্টাইলসহ পোজ দিচ্ছে আদৃত। ছবির ক্যাপশনে লেখা- ‘এই পৃথিবীকে বাঁচানোর মুডে কে রয়েছে?’ সঙ্গের হ্যাশট্যাগ বলে দিচ্ছে দুজনের ব্রোম্যান্সের প্রমাণ দিতেই এই পোস্ট। ‘ব্রাদার্স’, ‘ফ্রেন্ডস’, ‘মুডস’, ‘গুড টাইম’-এর মতো হ্যাশট্যাগ এই ছবির সঙ্গে যোগ করেছেন বিশ্বাবসু। 

কিন্তু এই ছবি ঘিরে এতো চর্চা কীসের? তা জানতে ফিরে যেতে হবে দিন কয়েক পিছনে। গত মাসেই টেলিপাড়ায় গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে আদৃতের সঙ্গে ইগোর লড়াইয়ের জেরেই নাকি ‘মিঠাই’ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন বিশ্বাবসু। আর সেই লড়াইয়ের কেন্দ্রে ছিলেন দিতিপ্রিয়া রায়। হ্যাঁ, ‘রাণী রাসমণি’ খ্যাত অভিনেত্রীর সঙ্গে বিশ্বাবসুর প্রেমের চর্চা গত কয়েক মাস ধরেই উড়ে বেড়াচ্ছে টলিগঞ্জে। অর্কজার (ওগো নিরুপমা খ্যাত) সঙ্গে ব্রেক আপের পর দিতিপ্রিয়ার সঙ্গে পারিবারিক বন্ধু বিশ্বাবসুর ঘনিষ্ঠতা আরও বেড়েছে বলেই দাবি একাংশের। এই বন্ধুত্বের মাঝেই নাকি আচমকা ঢুকে পড়েছিলেন আদৃত। যদিও সেই রটনাকে মিথ্যা বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন অভিনেতা, কিন্তু সিরিয়াল ছাড়ার প্রকৃত কারণ এড়িয়ে গিয়েছিলেন। 

এবার সব জল্পনায় জল ঢেলে দিল বিশ্বাবসুর এই ইনস্টাগ্রাম পোস্ট, যদিও এই ছবি দেখে মিঠাই ভক্তদের আক্ষেপ, ‘দাদা স্যান্ডির চরিত্রটা তুমি না ছাড়তে পারতে, এখন ওই চরিত্রটার প্রতি ইন্টারেস্ট হারিয়েছি’। 

রবিবার আদৃতের বাগান বাড়িতে জমাটি আড্ডা আর হুল্লোড়ে শামিল হল ‘মিঠাই’ পরিবারের সদস্যরা। হাজির ছিলেন আদৃতের হবু স্ত্রী, সুপ্রিয়া মন্ডলও, যদিও দেখা মেলেনি সৌম্যতৃষার। কিন্তু ‘মিঠাই’-এর অভিনেত্রী তন্বী লাহা রায়, ধ্রুব সরকাররা হাজির ছিলেন। তাঁদের ইনস্টাগ্রাম পোস্টে উঠে এসেছে এই অফ-স্ক্রিন আড্ডার ঝলক। 

বারুইপুরে আদৃতের বাগানবাড়ি রয়েছে, সেখানেই আড্ডায় মেতেছিলেন সকলে। পর্দার তোর্ষা মানে তন্বীর কথায়, দীর্ঘদিন ধরেই পরিকল্পনা চলছিল অবশেষে রবিবার ছুটির দিনে জমিয়ে চলল নাচা-গানা। আদৃত যে দারুণ গান গায় সেকথা কারুর অজানা নয়। গিটার হাতে গানও গেয়েছেন উচ্ছেবাবু। ধারাবাহিকের ‘ঠাকুমা’ অর্থাৎ স্বাগতা এবং ধ্রুবর নাচ দেখে মুগ্ধ সকলে, চারিদিকের রটনায় কান দিতে রাজি নন কেউ, তা বেশ স্পষ্ট।

বন্ধ করুন