মুক্তির ৪২ বছর পূর্ণ করল ডন (ছবি-টুইটার)
মুক্তির ৪২ বছর পূর্ণ করল ডন (ছবি-টুইটার)

অভিষেককে নকল করে ডন ছবির বিখ্যাত এই গানে নেচেছিলেন অমিতাভ! নিতে হয়েছিল অ্যানাসথেসিয়ার ইনজেকশন

  • খাইকে পান বনারাসওয়ালা গানের শ্যুটিংয়ের আগেই পায়ে চোট পেয়েছিলেন অমিতাভ। অ্যানাসথেসিয়ার ইনজেকশন নিয়ে খালি পায়ে নেচেছিলেন বিগ বি। 

হিন্দি সিনেমার অন্যতম আইকোনিক ছবি ডন। মঙ্গলবার এই ফিল্ম মুক্তির ৪২ বছর পূর্ণ করল। অভ্যাসানুসারে ডনের ৪২তম বর্ষপূর্তিতে এই ছবির অজানা তথ্য নিয়ে হাজির শাহেনশা অমিতাভ বচ্চন। এদিন ডনের সুপারহিট গান খাইকে পান বনারাসওয়ালা নিয়ে মজাদার তথ্য শেয়ার করলেন বিগ বি। তাঁর কথায়, এই গানের ডান্স মুভস হিসাবে খুদে অভিষেক বচ্চনকে নকল করেছিলেেন অমিতাভ,শুধু তাই নয় অ্যানাসথেসিয়া ইনজেকশন নিয়ে নাকি এই গানের শ্যুটিং চালিয়ে গিয়েছিলেন অমিতাভ।

সেই দিনগুলোতে দিনে ২-৩ শিফট চলত, বিভিন্ন ফিল্মের… আমি সকালের শিফটে (৭টা থেকে ২টো) চায়না ক্রিকে শ্যুটিং করছিলাম..মূল শহর থেকে প্রায় কয়েক মাইল দূরে ওই আউটডোর লোকেশন..অ্যাকশন দৃশ্যের শ্যুটিং ছিল..আমার পায়ে চোট লাগে…পায়ে ফোস্কা পরে যায় চারিদিকে..এরপর মেহবুব স্টুডিওতে এলাম চায়না ক্রিক থেকে এই গানের শ্যুটিং..খালি পায়েই নাচতে হত..পায়ের চোটের জন্য হাঁটতে পারছিলাম না পর্যন্ত..ডাক্তার ডাকা হল সেটে..তিনি অ্যানাসথেসিয়ার ইনজেকশন দিলেন পায়ে..এরপর এইভাবেই ৪-৫ দিন শ্যুটিং চলল'।

এই গানের ফেমাস সাইডওয়েজ স্টেপ সম্পর্কে অমিতাভ লেখেন, ওটা অভিষেকের নকল ছিল.. ছোট বয়স তখন ওর, সেই সময় ও যেই গানই শুনত তাতেই নাচ শুরু হয়ে যেত। আর ঠিক এইভাবেই ও স্টেপ করত…আমি ওকে দেখে নকল করেছিলাম গানের দৃশ্যে..

অমিতাভ এ কথাও নিজের ব্লগে লেখেন যে কোনও ডিস্ট্রিবিউটার নাকি ডন নামটিকে মেনে নিতে চাননি।তাঁদের ধারণা ছিল এই ছবির নাম ডন রাখা হয়েছে সেইসময়ের এক বিখ্যাত অন্তর্বাস সংস্থার নাম (DAWN) অনুসারে'।

টুইটারেও ডনের শ্যুটিংয়ের সময়কার বেশকিছু ছবি শেয়ার করে ৭৭ বছর বয়সী এই বর্ষীয়ান তারকা লেখেন, ‘ডন ছবির ৪২ বছর…হে ভগবান!! উফ কিছু দুর্দান্ত স্মৃতি…ফিল্মফেয়ারের মঞ্চে সেরা অভিনেতার পুরস্কার জয়,নূতনজির সঙ্গে…প্রযোজক নারিমান ইরানি, পরিচালক চন্দ্র বারোট… এই ছবির মুক্তির আগেই আমরা নারিমান ইরানিকে হারিয়েছিলাম এই পুরস্কার আমি তাঁর স্ত্রীকে উত্সর্গ করেছিলাম’।

এই ছবির চিত্রনাট্যকার ছিলেন সেলিম-জাভেদ। অমিতাভ ছাড়াও এই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন জিনাত আমান, প্রাণ এবং হেলেন। 

এই ছবির চিত্রনাট্যকার ছিলেন সেলিম-জাভেদ। অমিতাভ ছাড়াও এই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন জিনাত আমান, প্রাণ এবং হেলেন। 

 

 

বন্ধ করুন