বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Amitabh Bachchan: ‘আমার শরীরের একাধিক অঙ্গ কাজ করত না’, আতঙ্কের স্মৃতি ফিরে দেখলেন অমিতাভ
অমিতাভ বচ্চন

Amitabh Bachchan: ‘আমার শরীরের একাধিক অঙ্গ কাজ করত না’, আতঙ্কের স্মৃতি ফিরে দেখলেন অমিতাভ

  • Amitabh Bachchan: কেবিসির মঞ্চে অবনীকে দেখে মুগ্ধ অমিতাভ। দৃষ্টিহীন অবনীকে দেখে অতীতের দিনে ফিরলেন বিগ বি, জানালেন কেমনভাব তাঁর শরীরের একাধিক অঙ্গ কাজ করা বন্ধ করেছিল। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেজায় অ্যাক্টিভ অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন।  ৭৯ বছরের ‘তরুণ’ অমিতাভ আজও নিময়িত ব্লগ লেখেন। অনুরাগীদের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের কোনও সুযোগ তিনি হাতছাড়া করেন না। নিজের সাম্প্রতিক ব্লগে ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র সেটের একটি মনছোঁয়া ঘটনার কথা শেয়ার করলেন বিগ বি। পাশাপাশি নিজের জীবনের এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথাও জানান তিনি, একটা সময় অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের অচল হতে বসেছিল তাঁর। যদিও সঠিক চিকিৎসার মাধ্যমে ফের নিজের পায়ে দাঁড়াতে সক্ষম হন অভিনেতা। 

দু-বার করোনা আক্রান্ত অমিতাভ আপতত কেবিসি-র শ্যুটিং জারি রাখলেও, সবার থেকেই নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখছেন চিকিৎসকের নির্দেশ মেনে। তবে সেই নির্দেশ শাহেনশা অমান্য করলেন অবনীর জন্য। দৃষ্টিহীন এই মেয়েকে দেখে মুগ্ধ অমিতাভ। তাঁকে নিয়ে সঞ্চালক লেখেন, ‘আমি ওকে স্পর্শ করলাম, ওর হাত ধরলাম ওকে আমার উপস্থিতি জানান দিতে। ও আমাকে বলল কীভাবে ও আমাকে দেখে, অনুভব করে আর আমার ছবির ব্যাপারে সব জানে। ২০১৯ সালে আমার জন্মদিনে অবনী একটা চিঠি লিখেছিল, আমি সেটা পেয়েছিলাম কিনা সেটা জানতে চায় ও। অবনী বলল সে আমাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলো করে এবং আমি ওকে আশ্বস্ত করলাম, আমিও তাঁকে ফলো করব’। 

এরপর নিজের জীবনের পাতা উলটে দেখেন বিগ বি। অতীতে বহুবার নানান জটিল শরীরিক পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন অভিনেতা। তিনি লেখেন, ‘এমন অনেক মুহূর্ত এসেছে আমার জীবনে যখন আমি নিজের অঙ্গ হারাতে বসেছিলাম, শরীরের একাধিক অঙ্গ কাজ করত না… এই নিয়ে বিস্তারিত বলতে চাই না… হয়ত মনে হবে আমি সমবেদনা আদায়ের চেষ্টা করছি’। 

এরপর অমিতাভ আরও লেখেন, ‘আমি যেটা বলতে চাইছি, যে আমি (অঙ্গ) ব্যবহার করবার ক্ষমতা হারিয়েছিলাম। তবে ভগবানের কৃপায়, আমার শুভাকাঙ্খীদের প্রার্থনা আর ভালোবাসায়, বড়দের আর্শীবাদে আমি ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছি। হয়ত আগের মতো নয়, কিন্তু আমি পেরেছি’। 

এরপর দৃষ্টিহীন অবনী এবং তাঁরই মতো বিশেষভাবে সক্ষমদের নিয়ে অভিনেতা লেখেন, ‘ওদের মতো যাঁরা নিজেদের কোনও একটা (শারীরিক) ক্ষমতা হারিয়ে আর ফিরে পায়নি, ওঁদের জন্য আফসোস হয়… বিশেষ করে অবনীর মতো ছোটদের সঙ্গে যখন আমার সাক্ষাৎ হয়। আমি ফিরে পেয়েছি কিন্তু ওরা পায়নি। জীবন কতটা সুবিচার করে… জীবন কি সত্যিই ভারসাম্যহীন? সত্যিই কিন্তু একদিক থেকে দেখলে (জীবন) পক্ষপাতদুষ্ট’। 

প্রসঙ্গত মাত্র ন-দিনেই করোনা মুক্ত হয়ে কেবিসির সেটে ফিরেছেন অমিতাভ। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার করোনার কবলে পড়লেন অভিনেতা। 

 

 

বন্ধ করুন