বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘বাবা আমার কোনও সিনেমার প্রযোজক নন, বাবার ছবিতে টাকা ঢেলেছি আমি’, বললেন অভিষেক
অভিষেক বচ্চন (ছবি-ইন্টারনেট)
অভিষেক বচ্চন (ছবি-ইন্টারনেট)

‘বাবা আমার কোনও সিনেমার প্রযোজক নন, বাবার ছবিতে টাকা ঢেলেছি আমি’, বললেন অভিষেক

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো কাজ খুঁজে পেতে, তাঁকে কঠোর লড়াই করতে হয়েছে, জানালেন অভিষেক বচ্চন।  

নেপোটিজম প্রসঙ্গে মুখ খুললেন অভিনেতা অভিষেক বচ্চন। জানালেন, কীভাবে সাধারণ মানুষের মনে বিভ্রান্তমূলক ধারণা তৈরি হয়েছে যে বাবা অমিতাভের বদান্যতায় তিনি ছবি পেয়েছেন। অভিষেক স্পষ্টভাবেই জানান, কখনও তাঁর ছবিতে বিনিয়োগ করেননি বিগ বি। 

নিজের কেরিয়ার নিয়ে প্রায়ই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিক্রিয়া জানান অভিষেক। সেই সংক্রান্ত যাবতীয় ট্রোলের জন্য ধন্যবাদও জানিয়েছেন। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো কাজ খুঁজে পেতে, তাঁকে কঠোর লড়াই লড়তে হয়েছে বলে জানিয়েছেন অভিষেক।  

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অভিষেক জানান, তাঁর কোনও সিনেমা প্রযোজনা করেননি শাহেনশা। বরং আর বাল্কির ‘পা’-র প্রযোজনা করেছেন অভিষেক। তাঁর কথায়, ‘উনি আমার জন্যও কোনও সিনেমা তৈরি করেননি। উলটে তাঁর জন্য আমি একটা সিনেমার প্রযোজনা করি। নাম পা।’ সেই সিনেমায় অমিতাভ প্রগেরিয়া নামে দুর্লভ এক রোগে আক্রান্ত। অমিতাভের বাবার ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অভিষকে। বিদ্যা বালান ছিলেন মায়ের চরিত্রে।

ছবি সৌজন্যে- পা সিনেমা
ছবি সৌজন্যে- পা সিনেমা

সম্প্রতি অমিতাভ এবং অভিষেক যখন করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন, তখন এক নেটিজেন টুইটারে লেখেন, ‘আপনার বাবা হাসপাতালে ভরতি.. এবার কার ভরসায় বসে খাবেন?’ অভিনেতা পালটা জবাব দেন, ‘আপাতত দু'জনে একসঙ্গে হাসপাতালে শুয়ে খাচ্ছি।' অভিষেকের সেই সপাজ জবাবে অবশ্য থামেননি ওই নেটিজেন। তিনি লেখেন, ‘তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন স্যার। সবার কপালে শুয়ে খাওয়া কোথায়।' তবে অভিষেকও ছাড়বার পাত্র যে নন, তা বুঝিয়ে দেন। বলেন, ‘আমি প্রার্থনা করি যে তুমি কখনও যেন আমাদের মতো পরিস্থিতির সম্মুখীন না হও। ভালো এবং সুস্থ থাক। ধন্যবাদ আপনার প্রার্থনার জন্য, ম্যাম।'

অপর এক নেটিজেন আবার অভিষেককে কটাক্ষ করে জানান, প্রাচী দেশাইয়ের থেকেও টুইটারে ছোটে বচ্চনের ফলোয়ার সংখ্যা কম। পালটা অভিষেক বলেন, ‘আমি আপনাকে নিশ্চিত করে বলছি মি. সিংঘাল, সোশ্যাল মিডিয়ায় কত সংখ্যক ফলোয়ার আছে, তা কখনওই জনপ্রিয়তা বা প্রতিভা, গ্রহণযোগ্যতার মাপকাঠি নয়। আমার বন্ধু প্রাচী দেশাই একজন প্রতিভাবান অভিনেত্রী। সেজন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুমোদন পাওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। তাঁর কাজ কথা বলে।'

লকডাউনের পর সিনেমা হল খোলা নিয়ে সরকারি ঘোষণার সোশ্যাল মিডিয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিলেন অভিষেক। তা নিয়েও তাঁকে ট্রোলের মুখে পড়তে হয়েছিল। এক নেটিজেন লেখেন, ‘এরপরেও কি তুমি বেকার থাকবে না?’ অভিষেক পালটা লেখেন, ‘দুঃখিত এটা পুরোটাই তোমাদের (দর্শকদের) হাতে। যদি তোমরা আমাদের কাজ পছন্দ না কর, তবে আমরা পরের কাজ পাব না। তাই আমরা নিজেদের সামর্থ্য মতো কাজ করি এবং সবচেয়ে ভালো কিছুর হওয়ার আশা রেখে চলি।'  

উল্লেখ্য, অভিষেককে দেখা যাবে অনুরাগ বসুর ছবি ‘লুডো’-তে। তার আগে তাঁকে দেখা গিয়েছিল ‘Breathe: Into the Shadows’-এ। 

বন্ধ করুন