বাড়ি > বায়োস্কোপ > করোনা জয়ের পর প্রথমবার প্রকাশ্যে অমিতাভ, মায়ের স্মৃতিতে লাগালেন গুলমোহর গাছ
অমিতাভ বচ্চন ব্যস্ত গাছ লাগাতে (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
অমিতাভ বচ্চন ব্যস্ত গাছ লাগাতে (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

করোনা জয়ের পর প্রথমবার প্রকাশ্যে অমিতাভ, মায়ের স্মৃতিতে লাগালেন গুলমোহর গাছ

  • জুলাই মাসে ঝড়ে উল্টে গিয়েছিল অমিতাভ বচ্চনের মায়ের স্মৃতি বিজড়িত গুলমোহর গাছ।
  • ৪৪ বছর আগে পোঁতা কৃষ্ণচূড়া গাছের স্মৃতিতে একই জায়াগায় নতুন চারা পুঁতলেন অমিতাভ। 

সদ্যই মহামারী করোনাকে হারিয়েছে গোটা বচ্চন পরিবার। করোনামুক্তির পর প্রথমবার প্রকাশ্যে এলেন অমিতাভ বচ্চন। নিজের বাড়িতেই লাগালেন একটি গুলমোহর গাছের চারা। গুলমোহর বা কৃষ্ণচূড়া গাছের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে অমিতাভের অনেক স্মৃতি। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই স্মৃতিচারণাই করলেন বিগ বি। 

মুম্বইতে অমিতাভের প্রথম বাড়ি প্রতীক্ষা। বাবা হরিবংশ রাই বচ্চনের এই বাড়িতে আজ থেকে ৪৪ বছর আগে অভিনেতার মা তেজি বচ্চন একটি গুলমোহর গাছ লাগিয়েছিলেন। কিন্তু চলতি বছর জুলাই মাসে প্রবল বৃষ্টিতে ভেঙে পড়ে সেই গাছ। মা, তেজওয়ান্ত কৌর সুরি যিনি তেজি বচ্চন নামেই পরিচিত তাঁর স্মৃতিতে একই জায়গায় একটি গুলমোহর গাছের চারা লাগালেন বিগ বি। 

অভিনেতা লেখেন, এই বিশাল গুলমোহর গাছটা একটা চারা হিসাবে পুঁতে ছিলাম আমি, যখন আমাদের প্রথম বাড়ি প্রতীক্ষায় আসি ১৯৭৬ সালে…সম্প্রতি ঝড়ে এটা উপড়ে যায় কিন্তু গতকাল ১২ অগস্ট আমার মায়ের জন্মদিনে আমি একই জায়গায় ওঁনার নামে একটা গুলমোহর গাছের চারা পুঁতলাম…একদম এক জায়গায়!'

অমিতাভ নিজের বাবা,জনপ্রিয় কবি হরিবংশ রাই বচ্চনের একটি কবিতার লাইনও জুড়ে দেন নিজের  সঙ্গে। যে কবিতায় প্রকৃতির নিয়মের কথা বলেছেন বিগ বি'র বাবা। লিখেছেন- সৃষ্টি হলে ধ্বংস থাকবে তা বলে থেমে গেলে চলবে না…

'জো বসে হ্যায় ওহ উজড়তে হ্যায়,প্রকৃতি কি জড় নিয়ম সে, পর কিসি উজড়ে হুয়ে কো,ফির বসানা কব মনা হ্যায়?'

অমিতাভ বচ্চন নিজের ব্লগে গাছের প্রতি নিজের ভালোবাসার কথা বলেন। লেখেন তাঁর প্রিয় গাছ সম্পর্কেও। তিনি লেখেন তাঁর সবচেয়ে প্রিয় ফুল হল গোলাপ। এছাড়াও বেলফুল, শিউলি এবং হাসনাহেনা বা রাত কি রানি ফুলও তাঁর ভীষণ পছন্দের। 

বন্ধ করুন