বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > পকেটে নেই একটা টাকা, যশ চোপড়ার কাছে কাজ চেয়েছিলেন অমিতাভ! তারপর...?
একটি অনুষ্ঠানের মঞ্চে বন্ধু অমিতাভের হাতে পুরস্কার তুলে দিচ্ছেন যশ চোপড়। (ছবি সৌজন্যে -হিন্দুস্তান টাইমস)
একটি অনুষ্ঠানের মঞ্চে বন্ধু অমিতাভের হাতে পুরস্কার তুলে দিচ্ছেন যশ চোপড়। (ছবি সৌজন্যে -হিন্দুস্তান টাইমস)

পকেটে নেই একটা টাকা, যশ চোপড়ার কাছে কাজ চেয়েছিলেন অমিতাভ! তারপর...?

নব্বইয়ের দশকে নিজের সর্বস্ব খুইয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন।প্রায় নিঃস্ব অবস্থায় বন্ধু যশ চোপড়ার কাছে হাজির হয়েছিলেন তিনি। 

১৯৭৫ সালে মুক্তি পায় যশ চোপড়ার পরিচালনায় 'দিওয়ার'। সেই ছবির সুবাদে বক্স অফিসের রেকর্ড ভেঙে দেওয়া থেকে দর্শকের হৃদয় জেতা প্রায় একা হাতেই সামলেছিলেন ছবির নায়ক অমিতাভ বচ্চন। সেই শুরু এই দুই মহারথীর বন্ধুত্ব। প্রায় একা হাতে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে বদলে দিয়েছিলে এই বিখ্যাত পরিচালক-প্রযোজক। 

বলিউডের সিন্দুকে জমা করার মতো শুধু দারুণ সব ছবিই উপহার দিয়ে থেমে ঠেকাননি যশ, সঙ্গে দারুণ সব প্রতিভাধর নায়ক-নায়িকাও বলিপাড়াকে উপহার দিয়েছেন তিনি। বেঁচে থাকলে এদিন অর্থাৎ সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর তাঁর বয়স হত ৮৯। জানেন কি একবার কর্পদকশূন্য অমিতাভ বচ্চনকে 'বাঁচিয়েছিলেন' যশ?

সালটা নব্বইয়ের দশক। বহু সাধ করে 'এবিসিএল' নামের নিজের একটি সংস্থা খুলেছিলেন অমিতাভ। বেশ কয়েকটি বেচাল ছেলে ভরাডুবি হয় সেই সংস্থার। যার জেরে নিজের সর্বস্ব খুইয়েছিলেন 'বিগ বি'। প্রায় নিঃস্ব অবস্থায় তিনি ঠিক করেন ফের ফিরে যাবেন অভিনয়ের জগতে। কিন্তু ততদিনে বেশ দেরি হয়ে গেছে। বলিপাড়ায় বিভিন্ন পরিচালক-প্রযোজকদের বলেও কোনও কাজ পাননি 'শাহেনশাহ'। 

শেষপর্যন্ত উপায় না দেখে বহু বছরের পুরোনো বন্ধু যশ চোপড়ার কাছে হাজির হয়েছিলেন অমিতাভ। জানিয়েছিলেন তাঁর দুর্দশার কথা। চেয়েছিলেন তাঁর ছবিতে অভিনয় করতে। শোনামাত্রই পুরোনো বন্ধুর পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন 'কালা পাত্থর'-এর পরিচালক। ২০১৬ সালে ‘ইন্ডিয়া টুডে’ আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে নিজের মুখে এ কথা জানিয়েছিলেন স্বয়ং ‘বিগ বি’।

ছেলে আদিত্য চোপড়ার পরবর্তী ছবি 'মোহাব্বঁতে'-তে অন্যতম মুখ্যভূমিকায় করার প্রস্তাব 'বিগ বি'-কে দিয়েছিলেন 'যশজী'। বাকিটা ইতিহাস।বি-টাউনে আরও একবার শুরু হয়েছিল 'অমিতাভ-উপাখ্যান'। একইসঙ্গে ছোটপর্দায় 'কৌন বনেগা ক্রোড়পতি' গেম শো-এর সঞ্চালক হিসেবে হট সিটে অবতীর্ণ হয়েছিলেন অমিতাভ। আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে।

বন্ধ করুন