বাড়ি > বায়োস্কোপ > মনোচিকিত্সকের পরামর্শ নিচ্ছেন বচ্চনের নাতনি, অ্যানসাইটি ডিসওর্ডারের শিকার নভ্যা
নভ্যা নাভেলি 
নভ্যা নাভেলি 

মনোচিকিত্সকের পরামর্শ নিচ্ছেন বচ্চনের নাতনি, অ্যানসাইটি ডিসওর্ডারের শিকার নভ্যা

  • বেশ কয়েকবার চরম সীমায় পৌঁছে গিয়েছিলেন নভ্যা,স্বীকারোক্তি শ্বেতা নন্দার কন্যার। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে দেশজুড়ে মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক হারে আলোচনা চলছে। এবার বোমা ফাটালেন বচ্চনের নাতনি নভ্যা নাভেলি। নভ্যার স্বীকারোক্তি অ্যানসাইটি (দুশ্চিন্তা) ডিসওর্ডারের শিকার সে। মঙ্গলবার এই কথা প্রকাশ্যে আনলেন নভ্যা নাভেলি নন্দা। নিজের অর্গানাইজেশন আরা হেলথের তরফে আয়োজিত এক অনলাইন আলোচনায় এই নিয়ে কথা বললেন নভ্যা। এই আলোচনায় শ্বেতা নন্দার কন্যাকে নিজের অ্যানসাইটির সমস্যার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়ার লড়াই এবং সেই কারণে থেরাপির সাহায্য নেওয়ার কথা বলতে শোনা গেল। 

আরা ফাউন্ডেশনের যৌথ প্রতিষ্ঠাতাদের সঙ্গে চলা এই আলোচনায় নভ্যা জানান শুরুর দিকে তিনি এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে খুব বেশি স্বচ্ছন্দ ছিলেন না। ‘এটা আমার জন্য একদম নতুন একটা বিষয় ছিল। এই বিষয়টা আমি নিজে আগে উপলব্ধি করতে চেয়েছিলাম,কাউকে এটার ব্যাপারে কোনওরকম মন্তব্য করবার আগে। অবশ্যই আমার পরিবার আমার থেরাপির কথা জানত,কিন্তু আমার বন্ধুরা জানত না। আমি এখনও জানি না আমি কোনওদিন তাঁদের সঙ্গে এই নিয়ে কথা বলব কিনা’, বললেন নভ্যা। 

মেয়ের এই স্বীকারোক্তি নিয়ে গর্বিত শ্বেতা। পোস্টের কমেন্ট বক্সে তিনি লেখেন,'ব্রাভো'। নভ্যা বলেন, ‘আমি ভালো আছি আপতত, যেমনটা তুমি বললে যখন তোমার অবস্থা একদম খারাপ হয়ে যায় তখন তুমি বিষয়টা বুঝতে পারো। আমারও মনে হয়েছিল বেশ কয়েকবার যে আমার অবস্থা খুবই খারাপ, কিন্তু কেন এমনটা হচ্ছে সেটা আমি কিছুতেই বুঝতে পারছিলাম না।আমার মনে হয়েছিল কিছু একটা পালটাতে হবে। আমাকে এটা নিয়ে কথা বলতে হবে। এই ভাবনাটা আমার সমাধান খুঁজে দিয়েছে। এখন প্রতি সপ্তাহে একদিন আমি সেই রুটিনটা মেনে চলি এবং যার জেরে এখন আমি আর সেই আগের অবস্থায় ফিরে যাই না। সবকিছু এখন আমার কন্ট্রোলে রয়েছে। আমি এখন একজনের সঙ্গে কথা বলি। আমি এখন বুঝতে পারি ঠিক কোনও বিষয়গুলো আমার সেই খারাপ অবস্থার জন্য দায়ী ছিল। কখনও কখনও মানুষের এটা বুঝতে দেরি হয়ে যায় যে তাঁদের সাহায্যের প্রয়োজন আছে’। 

নভ্যা যোগ করেন তাঁর জীবনটা এমন সব মানুষে পরিপূর্ণ যাঁদের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পজিটিভ এনার্জি রয়েছে এবং যাঁরা সবসময় তাঁকে অনুপ্রাণিত করে যেটা নিঃসন্দেহে খুব উপকারী।নিউ ইয়র্কের ফোরধাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিজিটাল টেকনোলজি নিয়ে গ্র্যাজুয়েশন করেছেন নভ্যা। করোনা সংকটে তাঁর গ্র্যাজুয়েশন সেরেমানিতে যোগ দেওয়া সম্ভবপর না হওয়ায় বাড়িতেই নাতনির জন্য সেলিব্রেশনের আয়োজন করেছিলেন অমিতাভ। সেই ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে নিয়েছিলেন বিগ বি। লকডাউনের সময় বাড়িতেই নভ্যার জন্য তৈরি হয়েছিল গ্র্যাজুয়েশন টুপি এবং সেইদিনের পরার জন্য ঢিলা গাউন। 

বন্ধ করুন