বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aneek-Debaleena: ফুকেটে বউয়ের প্রেমে মজেছে অনীক, ‘এরকম ছবি না দিলেই পারতেন’ পরামর্শ ভক্তের

Aneek-Debaleena: ফুকেটে বউয়ের প্রেমে মজেছে অনীক, ‘এরকম ছবি না দিলেই পারতেন’ পরামর্শ ভক্তের

ফুকেট থেকে ছবি শেয়ার করলেন অনীক আর দেবলীনা। 

অনীক ধর স্ত্রী দেবলীনাকে নিয়ে অংশ নিয়েছেন স্টার জলসার কাপল শো ‘ইস্মার্ট জোড়ি’-তে। এবার তাদের ব্যাঙ্কক ভ্রমণের ছবি ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ জনপ্রিয় গায়ক অনীক ধর। পরিবার-বন্ধুদের সঙ্গে প্রায়ই ছবি শেয়ার করে থাকেন তিনি। তবে সম্প্রতি থাইল্যান্ড ট্রিপ থেকে কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়েছিলেন অনীক। তা নিয়ে বেশ আপত্তি নেট-নাগরিকদের। কর্তা-গিন্নির ঘনিষ্ঠ ছবি দেখে তাঁদের দাবি, ব্যক্তিগত মুহূর্ত তিনি সামনে না আনলেই পারতেন এভাবে।

অনীক ধর স্ত্রী দেবলীনাকে নিয়ে অংশ নিয়েছেন স্টার জলসার কাপল শো ‘ইস্মার্ট জোড়ি’-তে। প্রথম দিন থেকেই দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছেন এই জুটি। তবে ভালোবাসার সঙ্গে সঙ্গে কটাক্ষও হচ্ছে! আর সোশ্যাল মিডিয়ায় দু'জনের মাখোমাখো প্রেমের ছবি শেয়ার হতেই শুরু হল বিতর্ক।

নুডলস টপের ওয়ানপিস পরেছেন দেবলীনা। গালে চুমু বসিয়েছে অনীক। হটনেসে একে-অপরকে দিচ্ছেন কড়া টক্কর। ‘হট কাপল’, ‘কাপল গোল’, রাশি রাশি লাভ সাইনআলা কমেন্ট যেমন পড়ল, তেমনই একজন লিখলেন, ‘ছবিটা সুন্দর। তবে অনীক এরকম ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় না দিয়ে তোমার ফোনে রাখলেই তো পারতে।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘কিছু তো ব্যক্তিগত রাখো’।

অনীকের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট।
অনীকের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট।

২০০৭-এ একটি রিয়ালিটি শো-এ চ্যাম্পিয়ন হয়ে লাইমলাইটে আসেন অনীক। এছাড়া ‘বিগ বস’ বা ‘দাদাগিরি’র মতো শো-এরও চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন। অনীক-দেলীনার মেয়ে হয় ২০১৮ সালের অগস্ট মাসে।

‘ইস্মার্ট জোড়ি’-তে অনীক পত্নীকে বডি শেমিংয়েরও মুখোমুখি হতে হয়েছে। ‘হাতি’, ‘ধুমসি’-র মতো শব্দ ব্যবহার করা হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর এই নিয়ে শো-র সঞ্চালক জিতকে অনিক পত্নী জানান, মেয়ে হওয়ার আগে অবধি তাঁর ওজন ছিল ৫৭ কেজি। কিন্তু প্রেগন্যান্সির ৭ মাসে গিয়ে জানতে পারেন বাচ্চার ওজন ঠিক করে বাড়েনি তাঁর। তারপর বাদবাকি দু'মাস তিনবেলা ভাত, প্রোটিন শেক খেতে শুরু করেন ওজন কমানোর জন্য। কারণ তখন দেবলীনার মনে হয়েছিল বাচ্চার সুস্থ থাকা সবচেয়ে বেশি জরুরি। তবে সবচেয়ে ভালো খবর এত খাওয়া-দাওয়া করার পর ৩ কেজি ২০০-র সুস্থ বাচ্চা জন্ম দেন।

বন্ধ করুন