বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > স্তন্যপানে উৎসাহ অনিতার, বললেন ‘যতদিন সম্ভব আরভকে ব্রেস্টফিডিং করাবো’

স্তন্যপানে উৎসাহ অনিতার, বললেন ‘যতদিন সম্ভব আরভকে ব্রেস্টফিডিং করাবো’

আরবের সঙ্গে লেন্সবন্দি অনিতা

সন্তানকে স্তন্যপান করানোর উপকারিতা নিয়ে সরব অনিতা হাসনন্দানি।

চল্লিশের দোরগোড়ায় পৌঁছে মা হয়েছেন অভিনেত্রী অনিতা হাসনন্দানি। বেশি বয়সে মা হওয়া নিয়ে সমাজে প্রচলিত ছুঁৎমার্গ নিয়ে আরভ (অনিতার ছেলের নাম)-এর জন্মের আগেই সরব হয়েছিলেন অনিতা, এবার মা হিসাবে সন্তানকে স্তন্যপান করানোর গুরুত্ব নিয়ে সোচ্চার হলেন ‘ইয়ে হ্যায় মহব্বতে’ খ্যাত অভিনেত্রী। 

চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতেই পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন অনিতা, রোহিত রেড্ডির সঙ্গে বিয়ের দীর্ঘ সাত বছর পরে দুই থেকে তিন হয়েছেন তাঁরা। অনিতা সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্রেস্ট ফিডিংয়ের গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করলেন। তিনি বলেন, মা হিসাবে আমার সবচেয়ে বড় চিন্তা হল, আমি কি সন্তানের জন্য সেরাটা দিচ্ছি? আরভের জন্মের পর থেকেই, সবাই আমাকে নানান উপদেশ দিচ্ছেন। চিকিত্সক, এবং অন্য মায়েরা যেটা আমাকে বলেছে তা হল সন্তানের জন্য সবচেয়ে জরুরি মায়ের দুধ। ব্রেস্ট মিল্কের মধ্যে যে অ্যান্টিবডিগুলো থাকে তা সন্তানের শরীরে রোগপ্রতিরোধক ক্ষমতা তৈরিতে সাহায্য করে'।

অনিতা যোগ করেন, ‘তাই শিশুদের জন্য মায়ের দুধ সবচেয়ে জরুরি, আমি আরভকে যতদিন সম্ভব ব্রেকমিল্ক খাওয়ানোর চেষ্টা করব। ছয় মাস বয়স পর্যন্ত তো অবশ্যই খাওয়াবো। মায়ের দুধই হল শিশুর জন্য সবচেয়ে পুষ্টিকর খাবার’।

উল্লেখ্য, শিশুর বিকাশের জন্য যেমন মায়ের দুধ জরুরি, তেমনই নতুন মায়েরাও সন্তানকে স্তন্যপান করালে অনেক উপকারিতা পেয়ে থাকেন। এটি প্রেগন্যান্সির সময়কার অতিরিক্ত ওজন ঝরাতে সাহায্য করে, জরায়ুর গঠনকে পূর্বের অবস্থায় নিয়ে যায় কারণ স্তন্যপানের সময় অক্সিটোসিন হরমোন ক্ষরিত হয়, এছাড়াও ব্রেস্ট ক্যানসারের ঝুঁকি কমে। 

মাতৃত্বের স্বাদ চুটিয়ে নিচ্ছেন অনিতা তা স্পষ্ট অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে। ছেলেকে সোশ্যাল মিডিয়ার আড়ালে রাখেননি অনিতা। খুদে আরভের তো নিজস্ব একটি ইনস্টাগ্রাম পেজও রয়েছে। ছেলের দুষ্টুমির নানান মুহূর্ত ইনস্টার দেওয়ালে তুলে ধরেন তারকা দম্পতি। 

বন্ধ করুন