বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘এত লেফট আউট জীবনে ফিল করিনি', কেন এই আক্ষেপ অঙ্কুশের?
অঙ্কুশ (সৌজন্যে-ইন্সটাগ্রাম)
অঙ্কুশ (সৌজন্যে-ইন্সটাগ্রাম)

‘এত লেফট আউট জীবনে ফিল করিনি', কেন এই আক্ষেপ অঙ্কুশের?

  • ‘বড় একা লাগছে’ অঙ্কুশের। কারণ সব বন্ধুই তো এখন রাজনীতির মাঠে।

মন খারাপ অঙ্কুশের। বলা যেতে পারে একাকীত্ব গ্রাস করছে তাঁকে, কারণ? খুবই স্পষ্ট। একে একে তাঁর টলিপাড়ার বন্ধুরা শিবির বেছে নিচ্ছেন। কেউ সবুজ তো কেউ গেরুয়া। বুধবার বনি সেনগুপ্তর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই শোরগোল টলিপাড়ায়। কারণ বনির দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শুধু তৃণমূলের নেত্রী নন, বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের কৃষ্ণনগরের প্রার্থী কৌশানি মুখোপাধ্যায়। 

বনির বিজেপিতে যোগদানের কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই টুইট বার্তায় অঙ্কুশ লেখেন, ‘এতো লেফট আউট কোনওদিন ফিল করিনি, হোলি আসছে…তখনই না হয় গায়ে রঙ লাগাবো’। অর্থাত্ চেনা ভঙ্গিতেই এদিন টলিপাড়ার বন্ধুদের বার্তা দিলেন অঙ্কুশ। এই টুইটের সঙ্গে নিজের মুখ বেজার করা একটি ছবিও পোস্ট করেন অভিনেতা।

অঙ্কুশের এই টুইটে একবাক্যে সম্মতি জানিয়েছেন ভক্তরা। তাঁদের বক্তব্য, ‘হ্যাঁ, অঙ্কুশদা তুমি আর ঐন্দ্রিলাদি পড়ে রইলে, বাকিরা তো সব রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত’। 

এই প্রসঙ্গে আনন্দবাজারকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে অঙ্কুশ বলেন,  আজকাল বন্ধুদের ফোন করলেই তাঁরা জানায় ব্যস্ততার কথা। কেউ আড্ডা দিতে বা পার্টি করতে রাজি হন না, তাই সেই জন্য ‘বড় একা লাগে’ অঙ্কুশের। অভিমানী অঙ্কুশ অবশ্য বারবার জানিয়েছেন কোনও শিবিরেই তিনি নেই, রাজনীতি নয়, অভিনয় নিয়েই আপতত ব্যস্ত থাকতে চান তিনি। 

কিন্তু একুশের বিধানসভার নির্বাচনের আবহে টলিউড তো কার্যত ফাঁকা! তাহলে? অঙ্কুশের কথায়, ‘যাঁরা টলিউডে আসতে চান, চলে আসুন। আমি, জিতদা আর বুম্বাদা আছি। সকলকে প্রশিক্ষণ দিয়ে দেব’।

বন্ধ করুন