বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'অতিথি' অঙ্কুশকে ধন্যবাদ জানালেন দেব, ব্যাপারটা কী?
অঙ্কুশের সঙ্গে এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দেব। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
অঙ্কুশের সঙ্গে এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দেব। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)

'অতিথি' অঙ্কুশকে ধন্যবাদ জানালেন দেব, ব্যাপারটা কী?

  • টলিপাড়ার এই দুই তারকা দেব এবং অঙ্কুশ খাতায় কলমে সহকর্মী এবং প্রতিদ্বন্দ্বী। তবে একে ওপরের প্রয়োজনে সাড়া দিতে ভোলেন না কেউই। তাই তো অঙ্কুশের সঙ্গে ছবি তুলে তা নেটমাধ্যমে শেয়ার করে তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দেব।

দেব এবং অঙ্কুশ। টলিপাড়ার এই দুই তারকা খাতায় কলমে সহকর্মী এবং প্রতিদ্বন্দ্বী। তবে একে ওপরের প্রয়োজনে সাড়া দিতে ভোলেন না কেউই। তাই তো দেবের অনুরোধে সাড়া দিয়ে ‘কিশমিশ’-ছবিতে অতিথি শিল্পীর ভূমিকায় অভিনয় করলেন অঙ্কুশ।জানা গেছে, ছবিতে একটি বিশেষ ধরণের চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি।

অঙ্কুশের এই সমর্থনকে প্রকাশ্যে প্রশংসা করেছেন দেব। তাঁর সঙ্গে নিজের একটি ছবি তুলে নেটমাধ্যমে শেয়ারও করেছেন দেব। ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, 'তোর সমর্থনের জন্য অনেক ধন্যবাদ ভাই। আমার কাছে এর বিরাট মূল্য'। প্রসঙ্গত, এই প্রথম নয়। এর আগেও পর্দায় একসঙ্গে হাজির হয়েছেন এই দুই তারকা। সৌজন্যে, সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ছবি 'জুলফিকার' ।তালিকায় র‍য়েছে 'কেলোর কীর্তি'-ও।

এর আগে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত এবং যিশু সেনগুপ্ত অতিথি শিল্পী হিসেবে শুটিং সেরেছেন এই ছবিতে। ছবিতে ছোট্ট হলেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় দেখা যাবে তাঁদের। ওই দুই তারকার সঙ্গে ছবি তুলে সেকথা ঘোষণা করে তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভার্চুয়ালি ধন্যবাদ জানিয়েছেন দেব। প্রসঙ্গত, প্রথমে ২০২০-র পুজো, তারপর ২০২১-এর পুজোতে ‘কিশমিশ’ রিলিজ করার পরিকল্পনা প্রথমে দেব করেছিলেন। কিন্তু পরে সেই পরিকল্পনা বাতিল করেন। অবশ্যই করোনা পরিস্থিতিটির কারণে। আপাতত ঠিক হয়েছে শীতেই 'কিশমিশ' দিয়ে মিষ্টিমুখ সারবেন দেব-রুক্মিণী। তবে করোনা পরিস্থিতিতে স্বাভাবিক হলে সবাই যেন এই ছবি সিনেমা হলে গিয়ে দেখেন সেকথাও অনুরোধ করেছেন দেব।

রুক্মিনীর সঙ্গে অঙ্কুশ 
রুক্মিনীর সঙ্গে অঙ্কুশ 

উল্লেখ্য, নব্য পরিচালক রাহুল মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় এই ছবিতে দেবের বিপরীতে দেখা যাবে রুক্মিণী মৈত্রকে। নায়িকার মা ও বাবার ভূমিকায় দেখা যাবে যথাক্রমে জুন মালিয়া এবং কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়কে। পেশায় তিনি চা বাগানের মালিক। আর জুন মালিয়ার চরিত্রটা কনভেন্টে পড়া এক মহিলার।উল্লেখ্য, প্রযোজক হিসেবে তাঁর প্রতিটি ছবিতে গল্প থেকে কাস্টিংয়ে একটু কিছু অন্যরকম করার চেষ্টা করে এসেছেন দেব। প্রথম দিন থেকেই। 'কিশমিশ'-ও সেই নিয়মের বাইরে নেই। ছবির পোস্টার থেকে অভিনেতা, অভিনেত্রীদের লুকেও রয়েছে নতুনত্ব। তাই এই ছবি ঘিরেও যে দর্শকদের মনে ইতিমধ্যেই বেশ আগ্রহ তৈরি হয়েছে সেকথা লেখায় বাহুল্য।

বন্ধ করুন