বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কাঁদতে কাঁদতে মহেশ ভাটকে 'সবথেকে বড় মিথ্যাবাদী' বলেছিলেন অনুপম খের! জানেন কেন?
অনুপম খের ও মহেশ ভাট। (ছবি সৌজন্যে -ফেসবুক)
অনুপম খের ও মহেশ ভাট। (ছবি সৌজন্যে -ফেসবুক)

কাঁদতে কাঁদতে মহেশ ভাটকে 'সবথেকে বড় মিথ্যাবাদী' বলেছিলেন অনুপম খের! জানেন কেন?

  • মহেশ ভাটের পরিচালনায় 'সারাংশ' ছবির মাধ্যমে বলিউডে ডেবিউ করেছিলেন অনুপম খের। কিন্তু এই মহেশকেই একবার কাঁদতে কাঁদতে অভিশাপ দিয়েছিলেন অনুপম। বলেছিলেন 'পৃথিবীর সবথেকে বড় মিথ্যাবাদী'-র নাম মহেশ ভাট।

১৯৮৪ সালে মহেশ ভাট পরিচালিত 'সারাংশ' ছবির মাধ্যমে বলিপাড়ায় ডেবিউ করেছিলেন অনুপম খের। প্রথম ছবিতেই এক ৬৫ বছরের বয়সী বৃদ্ধের চরিত্রে দেখা গেছিল অনুপমকে। অথচ অভিনেতার আসল বয়স তখনও পেরোয়নি ৩০ এর কোঠা! 'সারাংশ' মুক্তি পাওয়ামাত্রই শোরগোল পড়ে গেছিল বলিউডে। রাতারাতি লাইমলাইটে চলে এসেছিলেন অনুপম। তবে এই মহেশ ভাটকেই একবার কাঁদতে কাঁদতে চিৎকার করে 'পৃথিবীর সব থেকে বড় ধাপ্পাবাজ' বলেছিলেন এই অভিনেতা। সঙ্গে নাগাড়ে দিয়েছিলেন অভিশাপও! জানেন কেন?

২০১৯ সালে 'বিল্ড সিরিজ'-এর ইউটিউব চ্যানেলে নিজের নতুন শো 'নিউ আমস্টারডাম' এবং ছবি 'হোটেল মুম্বই'-এর প্রচার সারতে এসেছিলেন অনুপম খের। সেখানেই কথার ফাঁকে ওঠে তাঁর ডেবিউ ছবি 'সারাংশ' এর কথা। তখনই মহেশ ভাটের সঙ্গে হওয়া তাঁর এই অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেন এই জনপ্রিয় বলি-অভিনেতা। অনুপমের কথা থেকেই জানা যায় 'সারাংশ' ছবির গল্প ও চিত্রনাট্য শোনানোর জন্য তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন মহেশ ভাট। এরপর অভিনেতাকে দেখার পর তিনি জানান যে থিয়েটার জগতে অনুপমের বেশ নাম শুনেছেন তিনি। জানেন যে সে ভালো কাজ করছে। পালট জবাব আসে অনুপমের তরফে, 'স্যার, আমি শুধু ভালো নয়। বলুন দুর্দান্ত!' একজন নিউকামারের এ ধরণের দৃঢ়তার পরিচয় পেয়ে তাঁকে 'সারাংশ' ছবির সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ অংশ করতে মোটেই দেরি করেননি মহেশ।

তবে এর কিছুদিন পর এক বন্ধুর মারফত অনুপম্যান্টে পারেন তাঁকে 'সারাংশ' ছবি থেকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাঁকে না জানিয়েই। তাঁর ভূমিকায় এবার দেখা যাবে সঞ্জীব কুমারকে। শুনে অত্যন্ত মর্মাহত হয়েছিলেন অভিনেতা। অন্ধ একটা রাগও চেপে বসেছিল। লজ্জা, অপমানে সেদিনই মুম্বই ছাড়ার প্রস্তুতি নিয়ে নিয়েছিলেন তিনি। জিনিসপত্র গোছগাছ করে পৌঁছেও গেছিলেন রেল স্টেশনে। তবে মনে হয়েছিল যাওয়ার আগে মহেশ ভাট-কে একটু 'শিক্ষা' দিয়ে যাবেন। সেইমতো ফের একবার গাড়ি করে চেপে 'মহেশজী'-র বাড়িতে উপস্থিত হয়েছিলেন তিনি। এরপর মহেশ ভাটও জানান যে ছবি প্রযোজকের চাপে পড়ে টিনাকে এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে বটে তবে ছবি অনুপমের জন্য অন্য একটি চরিত্র তিনি ভেবে রেখেছেন যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ .

তবে তখন কোনোকিছুই শোনার মতো জায়গায় ছিলেন না অনুপম। লজ্জা, অপমানে চোখে জল এসে গেছিল তাঁর। ওই অবস্থাতেই মহেশ ভাটকে চিৎকার করে তিনি বলেছিলেন, 'যে সততার গল্প নিয়ে আপনি 'সারাংশ' তৈরি করছেন তার এক বিন্দু সততাও আপনার মধ্যে নেই! আপনি এই পৃথিবীর সবথেকে বড় মিথ্যাবাদী, ধাপ্পাবাজ'। টুঁশব্দ না করে একমনে অনুপমাকে লক্ষ্য করে যাচ্ছিলেন মহেশ। এইসব বলে অনুপম যখন বাইরে দাঁড়ানো গাড়ির দিকে যেতে উদ্যত হয়েছিলেন তখন তাঁকে থামিয়েছিলেন ওই বিখ্যাত বলি-পরিচালক। প্রায় সঙ্গে সঙ্গে প্রযোজককে ফোন করে জানিয়েছিলেন 'সারাংশ' ছবির প্রধান ভূমিকায় তিনি অনুপমকেই দেখতে চান। কারণ এইমুহূর্তে যেভাবে অনুপমকে তিনি দেখেছেন তাতে টানে মনে হয়েছে এই ছবিতে ওরকম বাচনভঙ্গি ও অভিনয় ওঁর থেকে ভালো আর কেউ করতে পারবেন না। শেষপর্যন্ত তাইই হলো। বাকিটুকুর কথা সবাই জানেন। বর্তমানে আমেরিকায় নিজের কেরিয়ারের ৫১৯তম ছবি 'শিব শাস্ত্রী বালবোয়া'-র শুটিং সারছেন অনুপম।

 

বন্ধ করুন