বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Arijit Singh: ভারতে কেন বন্ধ করা হয়েছে পাক গায়কদের গান? কনসার্ট চলাকালীন ‘বিতর্কিত’ প্রশ্ন অরিজিতের
আতিফ-শফকত পছন্দের গায়ক অরিজিতের 
আতিফ-শফকত পছন্দের গায়ক অরিজিতের 

Arijit Singh: ভারতে কেন বন্ধ করা হয়েছে পাক গায়কদের গান? কনসার্ট চলাকালীন ‘বিতর্কিত’ প্রশ্ন অরিজিতের

  • 'আতিফ আসলাম, শফকত আমানাত আলি আমার পছন্দের গায়ক', আবু ধাবি কনসার্টে পাক শিল্পীদের সমর্থনে মুখ খুললেন অরিজিত সিং।

করোনা অতিমারীর জেরে প্রায় দু-বছর স্টেজে উঠেননি অরিজিত সিং। গত ১৯শে নভেম্বর মধ্য প্রাচ্যের সবচেয়ে বড় ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পারফর্ম করলেন এই ভারতীয় সংগীত তারকা। পাঁচ বছর পর আবু ধাবি-তে লাইভ গান গাইলেন জিয়াগঞ্জের এই ছেলে। পছন্দের গায়কের গান শুনতে উপচে পড়েছিল ভিড়, ভারতের পাশাপাশি পাক দর্শকদের সংখ্যাও নেহাত কম ছিল না। টিকিটের রেকর্ড বিক্রি হয়েছে অরিজিতের আবু ধাবি কনসার্টে আগেই জানিয়েছিলেন আয়োজকরা।

এদিন গিটার হাতে অরিজিত গান গাইতে গাইতে আচমকাই ধরলেন জনপ্রিয় পাক শিল্পী আতিফ আসলামের গান ‘পেহলি নজর মেয় ক্যায়সা জাদু করদিয়া’। গানের মাঝেই উপস্থিত দর্শকদের চমকে দিয়ে অরিজিত বলে উঠেন, 'একটা প্রশ্ন আছে, বিতর্কিত প্রশ্ন আছে... কিন্তু আমি জিজ্ঞাসা করবই কারণ আমি কাউকে পাত্তি দিই না। আচ্ছা, আমি এতো নিউজ ফলো করি না। পাকিস্তানি শিল্পীদের গান কি এখনও ভারতে বন্ধ রয়েছে? এমনটা ঘটেছিল মাঝখানে, সেটা কি এখনও জারি রয়েছে নাকি চালু রয়েছে? কারণ বিষয়টা হল আতিফ আসলাম আমার অন্যতম প্রিয় শিল্পী, শফকত আমানাত আলিও'। 

 ‘আশিকী ২’ খ্যাত গায়ের মুখে এই বিতর্কিত প্রশ্ন শুনে হইহই করে উঠে উপস্থিত দর্শকরা। আন্তর্জাতিক মঞ্চে ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে এমন বাঁকা প্রশ্ন করেও চিন্তিত নন অরিজিত। সুদৃঢ় কন্ঠে তিনি বলেন, 'সত্যি বলছি আমার কিচ্ছু যায় আসে না'।

অরিজিতের এই মন্তব্য নিয়ে শোরগোল শুরু হয়ে গিয়েছে প্রতিবেশী দেশের সোশ্যাল মিডিয়ায়। নেটিজেনদের মন্তব্য, 'অত্যন্ত দৃঢ় বার্তা দিলেন অরিজিত'। এদিন লাইভ কনসার্টে আতিফের পাশাপাশি পাকিস্তানের কিংবদন্তি শিল্পী নুসরত ফতে আলি খান, পাক ব্যান্ড জুনুন-এর জনপ্রিয় গান সইয়োনি-ও শোনা গিয়েছে অরিজিতের কন্ঠে। স্বভাবতই অরিজিতে বুঁদ কাঁটাতারের ওপারের শ্রোতারা।

উরি হামলার পর থেকেই বলিউডে পাক শিল্পীদের কাজ করা নিয়ে বিতর্ক দানা বেঁধেছিল। বিতর্কের কফিনে শেষ পেরেক পুঁতে দেয় পুলওয়ামা হামলা। এর পরবর্তী সময়ে ভারতে পাক শিল্পীদের কাজ করবার উপর সম্পূর্নরূপে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে বলিউডে। অল ইন্ডিয়া সিনে ওয়ার্কার্স অ্যাসোসিয়েশন (AICWA)--এর তরফে জারি লিখিতভাবে এই প্রতিবন্ধকতা আরোপ করা হয়। পুলওয়ামা হামলার পর অল ইন্ডিয়া সিনে ওয়ার্কার্স অ্যাসোসিয়েশন প্রযোজক সংস্থা, মিউজিক কোম্পানিগুলোকে রীতিমতো চিঠি লিখে সচেতন করে। এরপর টি-সিরিজের একগুচ্ছ প্রোজেক্ট থেকে বাদ পড়ে আতিফ আসলামের গান। গত তিন বছরে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে পাক গায়ক বা অভিনেতাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। 

যদিও পাকিস্তানি শিল্পীদের উপর ভারতে কাজ করা নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে কোনওদিনই কোনও প্রতিবন্ধকতা জারি করা হয়নি। তাই এই নিয়ে কোনও আইনি জটিলতা নেই। 

 

বন্ধ করুন