বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বয়স নাকি ৭০! 'ভারতীয় হাল্ক' শরৎ সাক্সেনার চেহারা দেখলে চমকে যাবেন
কে বলবে তাঁর বয়স পেরিয়েছে ৭০? ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
কে বলবে তাঁর বয়স পেরিয়েছে ৭০? ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

বয়স নাকি ৭০! 'ভারতীয় হাল্ক' শরৎ সাক্সেনার চেহারা দেখলে চমকে যাবেন

  • বয়স পেরিয়েছে ৭০। তবে তা শরৎ সাক্সেনার চেহারা দেখে বিশ্বাস করা বড্ড মুশকিল। এতটাই ফিট তিনি। তাঁর সুডৌল পেশী দেখলে চমকে যেতে হয়। সম্প্রতি, ইনস্টাগ্রামে তাঁর পেটানো চেহারার ছবি দেখে মুগ্ধ নেটদুনিয়া।

শরৎ সাক্সেনার নাম এবং মুখের সঙ্গে পরিচিত নন এমন হিন্দি ছবিপ্রেমী দর্শক বিরল। গত ৪০ বছর ধরে বলিউডে চুটিয়ে কাজ করছেন তিনি। বর্তমানে এই 'খলনায়ক'-এর বয়স পেরিয়েছে ৭০-এর কোঠা। তবে তা শুধু কাগজ-কলমেই। কারণ এই বর্ষীয়ান বলি-অভিনেতাকে দেখে তাঁর বয়স বোঝার সাধ্য নেই কারও। এতটাই ফিট তিনি। সম্প্রতি, ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি ছবি পোস্ট করেছেন এই 'শেরনি' অভিনেতা, যা দেখে চক্ষু চড়কগাছ হয়েছে নেটিজেনদের।

তা কী এমন ছবি পোস্ট করেছেন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা? ওই ছবিতে দেখা যাচ্ছে হাত ভাঁজ করে নিজের বাইসেপ ফ্লেক্স করছেন শরৎ। অভিনেতার সুডৌল পেশী এবং দুরন্ত ফিট চেহারা দেখে মুগ্ধ নেটদুনিয়া। ছবির সঙ্গে ক্যাপশনে এই বর্ষীয়ান অভিনেতা জুড়েছেন,' আজও বলিউডে নিজের নামখানা প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করে চলেছি।' তাঁর এই ছবি অসংখ্য নেতিজনের তারিফ কুড়োনোর পাশাপাশি মুগ্ধ করেছে ছোট ও বড়পর্দার জনপ্রিয় মুখ গুরমিত চৌধুরীকেও। ছবির কমেন্টে 'সিনিয়র অভিনেতাকে বিস্মিত 'জুনিয়র'-এর জিজ্ঞাসা,' এই চেহারা ধরে রাখার জন্য কী সাপ্লিমেন্ট নেন আপনি?' জবাবে ছোট্ট করে শরৎ জানিয়েছেন কোনও ধরণের সাপ্লিমেন্টই তিনি নেন না। অর্থাৎ পুরোপুরি প্রাকৃতিক উপায়ে এবং হাড়ভাঙ্গা খাটুনির সঙ্গে কড়া নিয়ম মেনে চলার ফল তাঁর এই ঈর্ষণীয় চেহারা।

 

অভিনেতার এই ছবি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হতে বেশি সময় নেয়নি। নেটিজেনরাও তারিফ ভরিয়ে দিয়েছেন অভিনেতাকে। কেউ মুগ্ধ হয়ে ছবিতে তাঁর উদ্দেশে কমেন্টে করেছেন,'ভারতীয় আর্নল্ড', আবার কেউ বা মার্ভেলের সুপারহিরো 'হাল্ক' এর সঙ্গে তুলনা টেনে বলেছেন 'ভারতীয় হাল্ক'!

প্রসঙ্গত, 'মিঃ ইন্ডিয়া','কৃষ','বজরঙ্গি ভাইজান','ফিরে হেরা ফেরি','সাঁথিয়া' এর মতো অজস্র সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। স্ক্রিন শেয়ার করেছেন অমিতাভ বচ্চন,সলমন খান,আমির খান, শাহরুখের মতো তারকাদের সঙ্গে। চলতি মাসে সংবাদমাধ্যমেক দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন তাঁর এক আক্ষেপের কথা। ' চল্লিশ বছর ধরে কাজ করার পরেও বেশিরভাগ পরিচালক-প্রযোজকের ধারণা আমি শুধু ভালো অ্যাকশনটাই পারি। আমি যে অভিনেতাও সেটা তাঁরা হয়ত মাঝে মাঝে ভুলে যান কিংবা মানতে চান না। এটাই আমার পক্ষে বড্ড কষ্টকর। গত চল্লিশ বছরের কেরিয়ারে অন্তত ৬০০ অ্যাকশন দৃশ্যের প্রধান অংশ ছিলাম। পুরস্কার হিসেবে ১২ বার হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে আমাকে!', একরাশ অভিমান নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা।

 

বন্ধ করুন