বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > রবীন্দ্রনাথের কবিতার লাইন চুরির অভিযোগ পরীমনি অভিনীত বাংলাদেশী সিনেমার বিরুদ্ধে

রবীন্দ্রনাথের কবিতার লাইন চুরির অভিযোগ পরীমনি অভিনীত বাংলাদেশী সিনেমার বিরুদ্ধে

মা হচ্ছেন পরীমনি (ছবি-ফেসবুক) 

এই গানের গীতকার আবার বাংলাদেশের জাতীয় পুরষ্কারের জন্য মনোনীতও হয়েছেন!

গান চুরির অভিযোগ উঠল বাংলাদেশের এক গীতকারের বিরুদ্ধে। সিয়াম-পরীমণি অভিনীত 'বিশ্বসুন্দরী' সিনেমার গান 'তুই কি আমার হবি রে' দারুন জনপ্রিয়তা পায় সে দেশে। এমনকী গানের গীতিকার হিসেবেই বাংলাদেশে জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার জন্যও নাম নির্বাচিত হয়েছে গীতকার কবির রকুলের। কিন্তু অনেকেই এই গানে রবিঠাকুরের লেখা দুটি লাইন খুঁজে পেয়েছেন। শুধু বাদ দেওয়া হয়েছে একটি মাত্র শব্দ। 

কবি গুরুর কবিতা ‘হঠাৎ দেখা’ কবিতার— ‘রাতের সব তারাই আছে, দিনের আলোর গভীরে’ লাইনটি নিজের গানে ব্যবহার করেছেন রকুল। শুধু আলো শব্দটি বাদ দেওয়া হয়েছে।

এই ব্যাপারে কী বলছে বাংলাদেশের কপিরাইট আইন? কপিরাইট রেজিস্ট্রার জাফর রাজা চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, যদি কেউ রবীন্দ্রনাথের দুটি লাইন নিজের গানে ব্যবহার করে থাকেন তা হলে অবশ্যই স্বীকৃতি দিতে হবে। রবীন্দ্রনাথের নাম উল্লেখ করতে হবে। কেউ যদি এক বা দুই লাইন কোনও উদ্ধৃতি ব্যবহার করে থাকেন তা হলেও রবীন্দ্রনাথের উল্লেখ করা উচিত। এই স্বীকৃতি যদি না দেওয়া হয় তা নিয়ে কেউ অভিযোগ তোলে তা হলে তা নিশ্চয় কপিরাইট আইন লঙ্ঘন করবে। সঙ্গে তাঁর মতো এভাবে ‘আলো’ শব্দটা বাদ দিয়ে দুটো লাইন ব্যবহার করা বেশি অন্যায়। 

প্রসঙ্গত, বিশ্বসুন্দরী হল একটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র। যা মুক্তি পায় ২০২০ সালের ১১ ডিসেম্বর। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন চয়নিকা চৌধুরী এবং প্রযোজনা করেছে সান মিউজিক অ্যান্ড মোশন পিকচার্স। "তুই কি আমার হবি রে" গানে সুর দিয়েছেন ইমরান মাহমুদুল। ও গানটি গেয়েছেন ইমরান ও কনা।

বন্ধ করুন