করোনা নিয়ে সচেতনতার প্রচারে গান বাঁধলেন তাহসান,সুমিরা (সৌজন্যে-ফেসবুক)
করোনা নিয়ে সচেতনতার প্রচারে গান বাঁধলেন তাহসান,সুমিরা (সৌজন্যে-ফেসবুক)

দেশকে ভালো রাখতে 'একসাথে দূরে' থাকছেন তাহসান-সুমিরা, করোনা রুখতে সচেতনতার বার্তা

  • মানুষ চাইলেই এই মহামারীর মোকাবিলা করতে পারবে, আর করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সবচেয়ে জরুরি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। সেই বার্তাই এবার গানের মাধ্যমে সামনে আনলেন সুমি-তাহসানরা।

বিশ্বজুড়ে এখন যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি। মহামারী করোনার বিরুদ্ধের লড়াইয়ে সবচেয়ে জরুরি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। দেশ-কালের গণ্ডি পেরিয়ে করোনার মোকাবিলায় এটাই একমাত্র অব্যর্থ দাওয়াই। এবার গানে গানে সেই সচেতনতার বার্তাই ধরা পড়ল ওপার বাংলার শিল্পীদের কন্ঠে। করোনা নিয়ে ওপার বাংলার মানুষকে সচেতন করতে গান গাইলেন সাদি মোহাম্মদ, সুমি, তাহসান খান, এলিটা করিম, মিলন মাহমুদ, জাহিদ হাসান নীরব, সন্ধিরা। গ্রামীণ ফোনের উদ্যোগে তৈরি হয়েছে 'একসাথে দূরে থাকি' গান। যার কথা লিখেছেন গাউসুল আলম শাওন এবং সুর দিয়েছেন চিরকুট ব্যান্ডের শারমিন সুলতানা সুমি, গানের সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্বভার সামলেছেন চিরকুটের অপর সদস্য পাভেল আরিন।


গত ২৬ মার্চ ইন্টারনেটে প্রকাশ্যে এসেছে এই গান। তারপর থেকেই দুই বাংলাতে ঢেউ তুলছে 'একসাথে দূরে থাকি, দেশটাকে ভালো রাখি'। ইতিমধ্যেই প্রায় ৮০ লক্ষ মানুষ ফেসবুকে দেখে নিয়েছেন এই গান।করোনা নিয়ে এখনও বাংলাদেশি জনগণের মধ্যে সচেতনতার অভাব রয়েছে, সেটাই সবচেয়ে চিন্তার বিষয় বলে মনে করছেন তাহসান। মিথিলার প্রাক্তন স্বামী তথা জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী তাহসান বাংলাদেশি সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, 'করোনা সতর্কতায় সবার নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে সরকার ছুটি দিল। অথচ মানুষ ঈদের ছুটির মতো বাড়ি যাচ্ছে। বলা হচ্ছে ঘর থেকে বের না হতে, প্রয়োজনে বার হলে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে, জনসমাগম এড়িয়ে চলতে কিন্তু মানুষ ট্রেনে ভিড় করছে, লঞ্চে ভিড় করছে। সবাই নিজের কথা ভাবছে। আমরা স্বার্থপর পৃথিবীতে বাস করছি।...আমরা করোনাকে সিরিয়াস ভাবে নিচ্ছি না। এটা আমাকে ব্যথিত করছে'।

করোনাভাইরাস নিয়ে বাংলাদেশের মানুষকে সচেতন করার এই প্রয়াসকে সাধুবাধ জানাচ্ছেন নেটিজেনরা।

করোনা রুখতে সচেতনতার বার্তা

বন্ধ করুন