বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘হইচই পর্ন, বাড়িতে চালানো যায় না’, OTT নিয়ে মন্তব্য করে ভাইরাল অভিষেক
হইচইর কনটেন্ট পর্ন বলে সাক্ষাৎকার দেওয়া অভিষেকের ভিডিয়ো ভাইরাল। 
হইচইর কনটেন্ট পর্ন বলে সাক্ষাৎকার দেওয়া অভিষেকের ভিডিয়ো ভাইরাল। 

‘হইচই পর্ন, বাড়িতে চালানো যায় না’, OTT নিয়ে মন্তব্য করে ভাইরাল অভিষেক

  • ফেসবুকে তুমুল ভাইরাল হল সেই ভিডিয়ো। 

বাংলা ওয়েব সিরিজের দুনিয়ায় দর্শকদের মুখে একটাই নাম ‘হইচই’। সেখানকার ‘দুপুর ঠাকপরপো’, ‘মন্টু পাইলট’, ‘চরিত্রহীন’, ‘ব্যোমকেশ’, ‘জাপানী টয়’-র মতো ওয়েব সিরিজ তুমুল আলোড়ন ফেলেছে বাঙালি দর্শকদের মধ্যে। অ্যাডাল্ট কনটেন্ট থেকে হাসি, রহস্য, ভুত সবই দেখা মেলে ‘হইচই’তে। তবে, সেটাকেই ‘পর্ন’র আওতায় ফেললেন টলিউড অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। 

মাসখানেক আগে অডিও ভিস্যুয়াল মাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ‘হইচই’ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। যা সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে আরও একবার। যেখানে অভিষেককে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘আমি মাঝেমধ্যে একটু হইচই দেখি। কিন্তু সেখানকার কনটেন্ট এত খারাপ, এত পর্ন বলা যেতে পারে, বাড়িতে আমি কোনও সময় চালাতে পারি না! মাঝেসাঝে স্টুডিওতে শ্যুটের ফাঁকে যেগুলো যেগুলো ভালো কনটেন্টের ওয়েব সেগুলো দেখি।’

আর অভিষেকের এই মন্তব্য ঘিরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সত্যিকারের হইচই পড়ে গিয়েছে। অ্যাডাল্ট কনটেন্টকে পর্ন-র সাথে তুলনা করায় অনেকেই তাঁর সমালোচনা করেছেন। তাঁর মতো এক বর্ষীয়াণ অভিনেতা কীভাবে এমন মন্তব্য করল সেই নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ। যদিও অভিষেকের সমর্থনেও আছেন একটা দল। তাঁদের মতে, ‘হইচই’ দু'পয়সা কামানোর জন্য এমন জিনিস দেখায় যা সমাজের জন্য আদর্শ নয়। যেখানে কথার থেকে গালাগালির ব্যবহার হয় বেশি। 

এর আগেও রাজপাল যাদব, নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির মতো বলি-অভিনেতারাও ওয়েব সিরিজে বলা ভাষা, দেখানো ‘আযাচিত যৌন দৃশ্য’র সমালোচনা করেছেন প্রকাশ্যে! যদিও প্রথম সারির সব অভিনেতারাই আজকাল দেখা দিচ্ছেন ওয়েবের দুনিয়ায়। আর স্ক্রিপ্টের প্রয়োজনে ‘গালাগালির ব্যবহার’ও করছেন কেউ কেউ। অনেকেই সাহসী দৃশ্যেও অভিনয় করছেন! আপনার কী মত?

বন্ধ করুন