বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কালীপুজোতেই ডাকাত পড়ার ঘোষণা! রঘু ডাকাত হয়ে ফিরছেন দেব
'রঘু ডাকাত' ছবিতে মুখ্যভূমিকায় দেখা যাবে দেব-কে।
'রঘু ডাকাত' ছবিতে মুখ্যভূমিকায় দেখা যাবে দেব-কে।

কালীপুজোতেই ডাকাত পড়ার ঘোষণা! রঘু ডাকাত হয়ে ফিরছেন দেব

  • সব জল্পনা সত্যি করে আবার একবার বাংলার বুকে ফিরছে সেই দুঃসাহসী রঘু ডাকাত।'গোলন্দাজ'- এর সাফল্যের পর ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালনায় 'রঘু ডাকাত' ছবিতে মুখ্যভূমিকায় দেখা যাবে দেব-কে।

সব জল্পনা সত্যি করে আবার একবার বাংলার বুকে ফিরছে সেই দুঃসাহসী রঘু ডাকাত। এও শোনা গেছিল, যে সে ব্যক্তি নয়, স্বয়ং দেবের হাত ধরেই নাকি মানুষের সামনে হাজির হবে রঘু ডাকাত! আর দেবের হাত শক্ত করার জন্য নাকি এই ব্যাপারে তাঁর পাশে দাঁড়াচ্ছেন 'গোলন্দাজ' ছবির পরিচালক ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়। শেষপর্যন্ত ঠিক তাই হল। রঘু ডাকাতের চরিত্রে পর্দায় ফিরছেন দেব। কালীপুজোর সকালেই ঘোষণা করা হল এই খবর। পরিচালক ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালনায় 'রঘু ডাকাত' ছবিতে মুখ্যভূমিকায় দেখা যাবে টলিপাড়ার নায়ককে। গোলন্দাজের সাফল্যের পর এই নিয়ে দ্বিতীয়বার পর্দায় জুটি বাঁধতে চলেছেন এই পরিচালক-অভিনেতা জুটি। ঘোষণার পাশাপাশি 'রঘু ডাকাত' ছবির পোস্টারও সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন স্বয়ং দেব।

খুলেই বলা যাক গোটা বিষয়টি। এবারের পুজোয় বেশ ভালো ব্যবসা করেছে 'গোলন্দাজ'। সেই ছবির টানেই হলে দর্শক ফিরেছে দলে দলে। ছবি প্রযোজকের মুখেও চওড়া হয়েছে হাসি। আর তাতেই সাহস পেয়ে নগেন্দ্রপ্রসাদ সর্বাধিকারীর পরে রঘু ডাকাতকে ফেরাতে চলেছেন 'গোলন্দাজ'-এর পরিচালক-নায়ক জুটি। এসভিএফের সঙ্গে জোট বেধে এই ছবির প্রযোজনা করছেন দেব নিজেও। জনমানসে এবং বিভিন্ন বইয়ে প্রচলিত রঘু ডাকাতের দুর্ধর্ষ সব রোমাঞ্চকর কাহিনীর মিশেল নাকি হতে চলেছে এই ছবি। সঙ্গে থাকবে নীল বিদ্রোহের ঘটনাও। কীভাবে নীল বিদ্রোহে যোগ দিয়ে তা পরিচালনা করে ব্রিটিশদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিল বাংলার একসময়ের এই দুর্ধর্ষ ডাকাত, চিত্রনাট্যে থাকছে সে ঘটনাও।

রঘু ডাকাত মানেই চোখ কপালে তোলা সব দুর্ধর্ষ দুঃসাহসী গল্প, রোমহর্ষক সব ডাকাতি। যে দিনের বেলায় সভ্যভব্য আর রাতের বেলায় দোর্দণ্ডপ্রতাপ ডাকাত।নিষ্ঠুর জমিদারদের থেকে যা লুটত তার বেশিওরভাগটাই অকাতরে দু'হাতে দান করত অসহায়, নিঃস্ব মানুষদের। মেয়েদের সম্মানরক্ষা থেকে বয়স্কাদের আশ্রয় সবই করত বাংলার এই ডাকাত। এককথায় সে ছিল বাঙালির 'রবিন হুড'। অস্তিত্বের পাকা প্রমাণ না থাকলেও মানুষের মুখে মুখে প্রাচীন অরণ্যের প্রবাদে পরিণত হয়েছে রঘু ডাকাত। জনশ্রুতি, হুগলি জেলার মগরায় বাসুদেবপুর গ্রামে ছিল সেই ইংরেজের বুকে ভয় কাঁপানো রঘু ডাকাতের আস্তানা। সেখানেই নাকি একসময় প্রতিষ্ঠিত ছিল এক প্রাচীন কালীমন্দির। নাম তার ডাকাতে কালীমন্দির। ধীরে ধীরে সেই মন্দির 'রঘু ডাকাতের মন্দির' হিসেবে খ্যাতি পায়।

ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আগেই। এবার ছবির পোস্টার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অ্যাকাউন্টে শেয়ার করে দেব লেখেন, ‘আজ এই নিশি অমাবস্যায় শক্তি আরাধনার পুন্য লগ্নে এক অজানা কাহিনীর উন্মোচন-নীল বিদ্রোহে সামিল হয়ে ইংরেজদের বিরুদ্ধে লড়াই করা রঘু ডাকাত।’ 

সেই পোস্টার নজর কেড়েছে দর্শকদের পাশাপাশি ছবি সমালোচকদেরও। কাঁধ ছাপানো কোঁকড়ানো চুল, সুঠাম অনাবৃত উর্দ্ধাঙ্গ ও কালো ধুতির সঙ্গে লাল কোমরবন্ধ এবং মাথায় বাঁধা ফেট্টিতে দেবের এই ডাকতে অবতার দেখে নড়েচড়ে বসেছে নেটিজেনরা। এক হাতে খড়গ ও অন্য হাতে দাউদাউ, জ্বলন্ত মশাল উঁচিয়ে তুলে জঙ্গলের আস্তানায় জড়ো হওয়া তাঁর ডাকাত দলের উদ্দেশে কোনও নির্দেশ দিচ্ছে 'রঘু'। পায়ের সামনে হেলায় পড়ে রয়েছে সোনার মোহরে ভরা ডালা খোলা সিন্দুক। দূরে দাঁড়িয়ে রয়েছে অতিকায় এক ব্রিটিশ জাহাজ। মাস্তুলে স্পষ্ট ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের ইউনিয়ন জ্যাক পতাকা। আকাশে তখন ভেসে পূর্ণিমার গোল চাঁদ। প্রসঙ্গত, তাঁর বাকি ছবিগুলির মতো এই ছবির গল্পেও যে বাঙালির ইতিহাসকে তুলে ধরার চেষ্টা করবেন পরিচালক ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়, তা 'রঘু ডাকাত' এর পোস্টার দেখেই দিব্যি টের পাওয়া যাচ্ছে। 

এই ছবি প্রসঙ্গে দেব ঘনিষ্ঠ এক সূত্র জানিয়েছেন আইসল্যান্ড থেকে ফিরে এলে শুরু হবে ছবির লুক টেস্ট। চলতি বছরে শ্যুটিংয়ের জন্য দেবের ডায়েরিতে আর কোনও ডেট ফাঁকা নেই। তাই সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছরের গোড়াতেই জোরকদমে শুরু হয়ে যাবে 'রঘু ডাকাত' এর শ্যুটিং।

বন্ধ করুন