বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ঐন্দ্রিলার সরস্বতী পুজোকে প্রেম দিবস বানাতে এই বিশেষ কাজ করেছিলেন অঙ্কুশ হাজরা…
অঙ্কুশ-ঐন্দ্রিলা। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

ঐন্দ্রিলার সরস্বতী পুজোকে প্রেম দিবস বানাতে এই বিশেষ কাজ করেছিলেন অঙ্কুশ হাজরা…

  • ঐন্দ্রিলা জানান পাড়ায় প্রচুর পুরুষ বন্ধু থাকলেও, প্রেমের অ্যাঙ্গেলটা কোনওদিনই আসেনি।

সরস্বতী পুজোর দিন য শুধু শিক্ষাদেবীর আরাধনা হয় তা নয়, বরং এই দিনটায় সেজেগুজে বন্ধুদের সাথে মেতে ওঠে সকলেই। সঙ্গে মনের মানুষটার সাথে এদিন সময় কাটানোর মজাও যে আলাদা। শাড়ি পরে সেজেগুজে প্রেম করার যে আনন্দ, তা আর কে-ই বা মিস করতে চায়!

সরস্বতী পুজো ছোটবেলায় কেমন কাটত তা নিয়ে কলম ধরেন ঐন্দ্রিলা। সেখানে শাড়ি পরা থেকে শুরু করে, স্কুল-কোচিংয়ে যাওয়া, গাড়ি করে ঘুরতে যাওয়া উঠে এসেছে সবটাই। আর পাঁচটা মেয়ের মতো ঐন্দ্রিলাও সেজেগুজে, শাড়ি পরে দল বেঁধে বন্ধুদের সাথে কাটাত সরস্বতী পুজো। 

তবে ঐন্দ্রিলা জানান পাড়ায় প্রচুর পুরুষ বন্ধু থাকলেও, প্রেমের অ্যাঙ্গেলটা কোনওদিনই আসেনি। তবে অঙ্কুশ হাজরার দৌলতে সরস্বতী পুজোর দিন প্রেমের বিশেষ উদযাপনের অভিজ্ঞতা হয়েছিল তাঁরও। অভিনেত্রীর কথায়, লোকে ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে বিশেষ উপহার পায়। অঙ্কুশ তাঁকে সরস্বতী পুজোর দিন একটা বিশেষ উপহার দিয়েছিল সেবার। যার ফলে বাঙালির ভ্যালেন্টাইনস ডে উপভোগ করতে পারেন তিনিও।

গত কয়েকবছর ধরে সম্পর্কে আছেন ঐন্দ্রিলা আর অঙ্কুশ। তাঁদের বিয়ের কথাও চলছে। ২০২১ সালে না হলেও শোনা যাচ্ছে ২০২২ সালেই গাঁটছড়া বাঁধবেন। সম্প্রতি ওজন কমিয়ে ফিটফাট হয়ে এমনিতেই হাজার পুরুষ মনে ছাপ ফেলে গিয়েছেন নায়িকা। এবার অনুরাগীরা চায় তাঁকে বিয়ের সাজে দেখতে। 

সঙ্গে এবারের সরস্বতী পুজর প্ল্যানও শেয়ার করেন তিনি। জানান, ওয়ার্ক কমিটমেন্টের কারণে এই বছর প্রথম বিদ্যাদেবীর আরাধনা ছেড়ে শ্যুটিংয়েই কাটাতে হবে তাঁকে। সাথে চলতি বছরেই হারিয়েছেন দিদুনকে। তাই বাড়িতেও কোনও আয়োজন নেই পুজোর।

বন্ধ করুন