বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > হাতে কাজ নেই শ্রুতির, কলকাতাতেও নেই তিনি, কাকে দোষ দিলেন এই পরিস্থিতির জন্য?
শ্রুতি দাস (ছবি ইনস্টাগ্রাম)

হাতে কাজ নেই শ্রুতির, কলকাতাতেও নেই তিনি, কাকে দোষ দিলেন এই পরিস্থিতির জন্য?

  • আপাতত কোনও কাজ নেই। তাই শহর ছেড়ে রয়েছএন পরিবার-বন্ধুদের কাছে!

‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকের ‘নোয়া’ শ্রুতি দাসকে নিশ্চয়ই মনে আছে আপনাদের। নিজের অভিনয় গুণে মন কেড়েছিলেন এই নায়িকা। তারও আগে শ্রুতির দেখা মিলেছিল ‘ত্রিনয়নী’ ধারাবাহিকে। তবে দুধো হিট মেগায় কাজ করা শ্রুতির হাতেই আপাতত কোনও কাজ নেই। এমনকী কলকাতা শহরেও নেই তিনি। রয়েছেন কাটোয়ার বাড়িতে। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ অ্যাক্টিভ থাকেন শ্রুতি। সেখানে প্রেমিক, টলিউডের খ্যাতনামা পরিচালক-প্রযোজক স্বর্ণেন্দু সমাদ্দারের সাথে নিজের প্রেমের বহিপ্রকাশও করেন খুল্লামখুল্লা। মাঝে শোনা গিয়েছিল স্বর্ণেন্দুর নতুন ধারাবাহিক ‘গৌরী এল’-তে অভিনয় করবেন তিনি। যদিও শ্রুতি জানালেন এসবই গুজব। বরং, টলিপাড়ার মাধ্যমেই এই খবর ছড়িয়েছে সব জায়গায়। এমনকী, ‘গৌরী এল’-র প্রোমো প্রকাশ হওয়ার পর কেউ কেউ তাঁকে এই নিয়ে ফোন বা মেসেজও করেছেন। কারও মতে, এই খবর ছড়িয়ে পড়ার জন্যই নাকি অন্য প্রযোজক বা পরিচালকরা তাঁকে কাজে ডাকেননি।

‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকের ‘নোয়া’ শ্রুতি দাসকে নিশ্চয়ই মনে আছে আপনাদের। নিজের অভিনয় গুণে মন কেড়েছিলেন এই নায়িকা। তারও আগে শ্রুতির দেখা মিলেছিল ‘ত্রিনয়নী’ ধারাবাহিকে। তবে দুধো হিট মেগায় কাজ করা শ্রুতির হাতেই আপাতত কোনও কাজ নেই। এমনকী কলকাতা শহরেও নেই তিনি। রয়েছেন কাটোয়ার বাড়িতে। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ অ্যাক্টিভ থাকেন শ্রুতি। সেখানে প্রেমিক, টলিউডের খ্যাতনামা পরিচালক-প্রযোজক স্বর্ণেন্দু সমাদ্দারের সাথে নিজের প্রেমের বহিপ্রকাশও করেন খুল্লামখুল্লা। মাঝে শোনা গিয়েছিল স্বর্ণেন্দুর নতুন ধারাবাহিক ‘গৌরী এল’-তে অভিনয় করবেন তিনি। যদিও শ্রুতি জানালেন এসবই গুজব। বরং, টলিপাড়ার মাধ্যমেই এই খবর ছড়িয়েছে সব জায়গায়। এমনকী, ‘গৌরী এল’-র প্রোমো প্রকাশ হওয়ার পর কেউ কেউ তাঁকে এই নিয়ে ফোন বা মেসেজও করেছেন। কারও মতে, এই খবর ছড়িয়ে পড়ার জন্যই নাকি অন্য প্রযোজক বা পরিচালকরা তাঁকে কাজে ডাকেননি। |#+|

এক বাংলা সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শ্রুতি জানান, টুকটাক কাজের ডাক তিনিও পাচ্ছেন। তবে তা ক্যামিও চরিত্র বা পার্শ্ব চরিত্রে। একটি ধারাবাহিকে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে কাজের কথা হয়েছিল। তবে পরে টলিপাড়া মারফতই তাঁর কাছে খবর আসে সেখানে তাঁকে সরিয়ে অন্য নায়িকাকে নিয়ে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাঁকে অফিসিয়ালই জানায়নি কেউই।

আসলে গায়ের রং, মুফট স্বভাবের জন্য এর আগেও দর্শকদের বড় একটা অংশ আপত্তি তুলেছিল তাঁকে নিয়ে। অভিনেত্রীর এই নিয়ে মত, ‘আমি তো ইন্ডাস্ট্রির ভাষায় অসাধারণ, অনন্য। তথাকথিত নায়িকা নই। তাই আমায় নিয়ে অন্য ধরনের গল্প ভাবতে হয়। সেটার সঠিক সময় নিশ্চয়ই এখনও আসেনি। এলে কেউ না কেউ, কখনও না কখনও আমায় হয়তো ঠিক ডাকবেন।’  এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেছেন তিনি। আপাতত কাটোয়াতেই আছে। জানিয়েছএন ভালো চরিত্র সম্মান পেলেই কলকাতায় আসবেন। পরিবার, বন্ধুরা এখন শ্রুতির এই ‘খারাপ সময়ে’ মন ভালো রাখতে সাহায্য করছেন।

বন্ধ করুন