বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ইদে রোজা রেখেছিলেন, কাশ্মিরী ভাইয়ের দেওয়া শাড়িতে মা দুর্গাকে সাজাবেন ভাস্বর
ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় (ছবি ইনস্টাগ্রাম)
ভাস্বর চট্টোপাধ্যায় (ছবি ইনস্টাগ্রাম)

ইদে রোজা রেখেছিলেন, কাশ্মিরী ভাইয়ের দেওয়া শাড়িতে মা দুর্গাকে সাজাবেন ভাস্বর

  • গত মে মাসে দাদা মারা গিয়েছেন। মন খারাপ আবহের মধ্যেই এবছর অভিনেতার দেশের বাড়িতে হবে দুর্গাপুজোর আয়োজন। দেশের বাড়ির পুজোয় কাশ্মিরী ভাইয়ের দেওয়া শাড়িতেই মা দুর্গাকে সাজাবেন অভিনেতা।

মা দুর্গার আগমনের মাত্র কয়েকটা দিন বাকি। সকলেই প্রস্তুতি নিচ্ছে দুর্গাপুজোর। করোনা কোপে গত বছরের দুর্গাপুজো হয়েছিল নিয়মের বেড়াজালে মোড়া। তাই এই বছরের পুজো নিয়ে সকলের মনে একটা আলাদাই রেশ। তেমনি অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ও ব্যতিক্রম নন। তিনিও একটু একটু করে নিচ্ছেন দুর্গাপুজোর প্রস্তুতি। 

শহরের কোলাহল থেকে দূরে এবছরের দুর্গাপুজো দেশের বাড়িতেই কাটাতে চান অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়। যদিও চলতি বছরই মে মাসে মারা গিয়েছেন অভিনেতার দাদা। পরিবারের এক সদস্যকে হারিয়ে পরিবারের কারোই পুজোর আনন্দে মেতে ওঠার তেমন কোনও ইচ্ছে নেই বলে জানিয়েছেন অভিনেতা। তবে পুজোর নিয়ম তো পালন করতেই হবে। তাই পরিবার এবং ঘনিষ্ঠদের নিয়েই এবারে দেশের বাড়িক পুজো করার পরিকল্পনা রয়েছে অভিনেতার এমনটাই জানিয়েছেন।

ভাস্করের কথায়, মে মাসে দাদাকে হারিয়েছেন তিনি। বাড়ির পুজোতে তাঁর দাদারই সব থেকে থেকে বেশি আগ্রহ ছিল। কিন্তু এবছর সেই দাদাই আর নেই। তাঁর অভাবটা বুঝতে পারছেন আরও বেশি করে। যেহেতু মন খারাপ তাই এই বছর তাঁদের পরিবারে তেমন কেনাকাটা নেই বললেই চলে। তবে দেশের বাড়ির মা দুর্গার জন্য কাশ্মীরি এক ভাইয়ের হাতের তৈরি শাড়ি নিয়ে যাচ্ছেন। পুজোয় সেই শাড়ি পরানো হবে দেবী দুর্গাকে জানিয়েছেন।

এবছর ৭৯-এ পা দিয়েছে অভিনেতার বাড়ির পুজো। বেশ ধুমধাম করেই প্রতিবছর তাঁদের বাড়ির পুজো হয়। পাশাপাশি থাকে ভোগের আয়োজনও। অষ্টমীর দিন নতুন পোশাক পরে অঞ্জলি দেন তিনি। এবছরও একই পরিকল্পনা রয়েছে অভিনেতার। প্রসঙ্গত, এবছর ইদে প্রথমবার রোজা রেখেছিলেন অভিনেতা। সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেছিলেন সেই ছবি। এবার বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসবের দিনগুলোর অপেক্ষয় রয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন