বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > হিজাব পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড ‘জয় হো’ অভিনেত্রী সানা খান, দিলেন কড়া জবাবও
হিজাব পরে ট্রোলড সানা। 
হিজাব পরে ট্রোলড সানা। 

হিজাব পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড ‘জয় হো’ অভিনেত্রী সানা খান, দিলেন কড়া জবাবও

শোবিজের জগত থেকে বিদায় জানিয়েছিলেন অনুষ্ঠানিকভাবে। তারপরেই বিয়ে করেন!

‘বিগ বস ৬’-খ্যাত সানা খান একসময় ট্রোলড হতেন তাঁর খোলামেলা পোশাকের জন্য। ধর্মের দোহাই দিয়ে অভিনেত্রীকে কাঠগড়ায় তুলতেন অনেকেই, বলা হত ‘‘একজন ‘সাচ্চা মুসলিম’ কখোনই এই ধরনের শরীর দেখানো পোশাক পরে না।’’ সে যাই হোক, বিতর্ক নিয়ে কখনই খুব একটা চিন্তিত ছিলেন না অভিনেত্রী। এবার সানা সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হলেন হিজাব পরে ছবি দেওয়ার জন্য। গত বছর নভেম্বরে মুফতি আনাস সইদকে বিয়ে করেন সানা। ঠিক তার কিছু মাস আগেই নিজের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে সানা জানিয়েছিলেন শোবিজের জগত থেকে তিনি এবার বিদায় নেবেন। 

সেসময় সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে সানা লিখেছিলেন, 'শুধু খ্যাতি আর অর্থের পিছনে ছুটবেন না। পাপের জীবন ছাড়ুন। মানবতার সেবা করুন, সৃষ্টিকর্তার ঠিক করে দেওয়া পথ ধরুন। তাই আমি আজ শোবিজ ছেড়ে দেওয়ার কথা জানালাম। সৃষ্টিকর্তার পথ ধরে এগোব এবার থেকে।'

হিজাব পড়ে নিজের একটি ছবি কিছুদিন আগেই ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন ‘ওয়াজা তুম হো’, ‘জয় হো’ ছবির অভিনেত্রী সানা খান। সেই ছবির ক্যাপশনে সানা লিখেছিলেন, ‘‘লোককে এত ভয় পেয়ে চলো কেন? তুমি কি এই আয়াত পড়নি? ‘আল্লা জিসে চহে ইজ্জত দেতে হে, অর আাল্লা জিসে চহে জিল্লাত দেতে হে… কাভি ইজ্জতো মে জিল্লত ছুপি হোতি হ্যায়, তো কভি জিল্লতো মে ইজ্জত!’’

অনেকেই সানার এই নতুন লুকের প্রশংসা করেছেন। হিজাবেও যে একজন নারী এত সুন্দর লাগতে পারে, তার উদাহরণ সানা খান, মনে করেছেন অনেকেই। তবে প্রাক্তন অভিনেত্রীকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি এক নেটনেগরিক। তিনি মন্তব্য করেন, ‘এত পড়াশোনা করে কী লাভ যদি হিজাব পরে বাকি জীবন কাটাতে হয়?’ যার উত্তরে অভিনেত্রী লেখেন, ‘ভাই আমার, যদি পরদার পিছনে থেকে নিজের ব্যবসা চালিয়ে নিতে পারি সফলভাবে, এত ভালো শ্বশুর বাড়ি পাই, এত ভালো স্বামী পাই, তাহলে আর কী চাই! আর আল্লা আমাকে রক্ষা করছেন সমস্ত দিক থেকে। আলাহমুদ্দিলাহ!’

প্রসঙ্গত, বিয়ের কিছুদিন আগেই ইউটিউবার ও ডান্সার মেলভিন লুইসের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। তারপর তাঁর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। ইউটিউবারকে মিথ্যাবাদী ও প্রতারকও বলেছিলেন।

বন্ধ করুন