বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্ত শেষ ফোন করেছিলেন বন্ধু মহেশ শেট্টিকে, তাঁকে জেরা করল বিহার পুলিশ
মহেশ শেট্টির বয়ান রেকর্ড করল বিহার পুলিশ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
মহেশ শেট্টির বয়ান রেকর্ড করল বিহার পুলিশ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

সুশান্ত শেষ ফোন করেছিলেন বন্ধু মহেশ শেট্টিকে, তাঁকে জেরা করল বিহার পুলিশ

  • অঙ্কিতা লোখান্ডের পর বিহার পুলিশের প্রশ্নের মুখে সুশান্তের বেস্ট ফ্রেন্ড মহেশ শেট্টি। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে এখন শোরগোল দেশজুড়ে। মুম্বই পুলিশ ও পাটনা পুলিশ আপাতত পৃথকভাবে এই মৃত্যুর তদন্ত চালাচ্ছে। মু্ম্বইতে গিয়ে এই মামলার তদন্ত করায় বিহার পুলিশের জুরিসডিকশন ( আইনগত অধিকারক্ষেত্র) নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই,তেমনই আবার বিহার পুলিশের সঙ্গে অসহযোগিতা করার অভিযোগ উঠেছে মুম্বই পুলিশের বিরুদ্ধে। গত তিনদিনে পাটনা পুলিশের ম্যারাথন তদন্ত বেশকিছু প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়েছে মু্ম্বই পুলিশকে। 

শুক্রবার সকাল থেকেই জোরকদমে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত শুরু করে দিয়েছে পাটনা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে অঙ্কিতা লোখান্ডের বয়ান রেকর্ড করবার পর এবার পাটনা পুলিশের তদন্তকারীদলের প্রশ্নের মুখে পড়লেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বেস্ট ফ্রেন্ড, তাঁর কথায় তাঁর 'জান' মহেশ শেট্টি। এর আগে মুম্বই পুলিশও মহেশের বয়ান রেকর্ড করেছে। টাইমস নাও সূত্রে খবর, বিহার পুলিশকে এই জিজ্ঞাসাবাদে মহেশ জানিয়েছেন, মার্চ মাসে লকডাউন শুরুর ঠিক আগে সুশান্তের দেহরক্ষীকে ছাঁটাই করেন রিয়া। সুশান্তের গার্লফ্রেন্ড রিয়াকে নিয়ে আরও কিছু বিস্ফোরক তথ্য তদন্তকারীদের দেন মহেশ।

উল্লেখ্য ১৪জুন মৃত্যুর আগে সুশান্তের ফোনে শেষ ডায়েলড নম্বর ছিল মহেশ শেট্টির। যদিও সেই ফোনটি পৌঁছায়নি মহেশের কাছে। সেই আপসোসের কথা সুশান্তের মৃত্যুর পর দীর্ঘ ইনস্টাগ্রাম পোস্টে লিখেছিলেন মহেশ। তিনি লেখেন, 'যদি আমি তোর মনের দরজাটা পুরোপুরিভাবে খুলতে পারতাম…তুই জানতিস তোর সঙ্গে শেট্টি আছে সবসময় আর থাকবেও। তাহলে কেন? একবার কথা তো বলতিস ইয়ার!!! যদি ওই ফোন কলটা লাগত, জীবন তো আর এক রইল না রে!! আমি জানি ওই তারাগুলো তুই কতটা ভালোবাসসিত..বিশ্বাস কর মায়ের দিব্বি দিয়ে বলছি প্রতিদিন রাতের আকাশে আমি ওই দিকেই তাকিয়ে থাকব ভাই’।

জানা গিয়েছে সুশান্তের মনোবিদ করসি চাওরাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পাটনা পুলিশের তদন্তকারী দল। 

বন্ধ করুন