বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুপ্রিম কোর্টে ভর্ত্সনা,তবুও পাটনার এসপি'কে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেবে না BMC
অবস্থানে অনড় বিএমসি,কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি নয় 
অবস্থানে অনড় বিএমসি,কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি নয় 

সুপ্রিম কোর্টে ভর্ত্সনা,তবুও পাটনার এসপি'কে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেবে না BMC

  • 'একজন বিহারের পুলিশের অফিসারকে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা ভালো বার্তা দিচ্ছে না’-বুধবার জানায় সুপ্রিম কোর্ট।
  • তবুও বিহার পুলিশের চিঠির জবাবে আইপিএস বিনয় তিওয়ারিকে হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দিতে অস্বীকার করল বৃহন্মুম্বই পুরসভা। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে মুম্বই পৌঁছানো মাত্রই পাটনার এসপি বিনয় তিওয়ারিকে ঘরবন্দি করে বৃহন্মুম্বই পুরসভা। একজন অন ডিউটি আইএএস অফিসারকে কীভাবে করোনার কারণ দেখিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইন করতে পারে বিএমসি,সেই নিয়ে শুরু থেকেই প্রশ্নের মুখে পড়েছেন উদ্ধব ঠাকরে সরকার। এদিন রিয়া চক্রবর্তীর পিটিশনের শুনানি চলাকালীন এই বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে ভর্তসনার মুখে পড়তে হয় মহারাষ্ট্র সরকারকে।

বিচারপতি হৃষিকেশ রায়ের বেঞ্চে শুনানি চলাকালীন আদালত নিজের পর্যবেক্ষণ থেকে পরিষ্কারভাবে জানায়, ‘মুম্বই পুলিশের পেশাদার মনোভাব সকলেরই জানা, তবে একজন বিহারের পুলিশ অফিসারকে কোয়ারেন্টাইন করা ভালো বার্তা দিচ্ছে না’। সুপ্রিম কোর্টের এই পর্যবেক্ষণের পরেও বিহারের ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে বলেন, আমরা বিএমসির কাছে আইপিএস অফিসার বিনয় তিওয়ারিকে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছি। বলা হয়েছে তাঁকে কিছু না হলে বিহারে ফেরত পাঠাতে, উনি একজন আইপিএস অফিসার, এটা কোনও পেশাদার আচরণ নয়। একজন অফিসারকে এমনভাবে রাখা হয়েছে যেন উনাকে গ্রেফতার করা হয়েছে'।

সুপ্রিম কোর্টের ভর্ত্সনা, বিহার পুলিশের চিঠি সত্ত্বেও অবস্থান বদলে না-রাজ বিএমসি। কোয়ারেন্টাইন থেকে বিনয় তিওয়ারির অবিলম্বে অব্যহতি চেয়ে বিহার পুলিশের লেখা চিঠির জবাবে বিএমসি যা জানিয়েছে তা দেখে হতবাক সকলে। ডিজিট্যাল মাধ্যম যেমন জুম, গুগল মিট ব্যবহার করে বিনয় তিওয়ারিকে তদন্তে অংশ নেওয়ার উপদেশ দেয় বিএমসি। মত,সেই প্রক্রিয়ায় উনি নিজেও সুরক্ষিত থাকবেন এবং উনি যদি উপসর্গহীন করোনা আক্রান্ত হন তাহলে ওঁনার থেকে করোনা ছড়িয়ে পড়বার আশঙ্কা থাকবে না।মহারাষ্ট্র সরকারের করোনা সংক্রান্ত নিময় বিধি মেনে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনেই থাকতে হবে, এটাই নিয়ম। বিহার পুলিশের চিঠির জবাবে জানিয়েছে বিএমসি কর্তৃপক্ষ।

রবিবার রাত এগারোটা নাগাদ ‘জোর করে’ পাটনার (সেন্ট্রাল) এসপিকে কোয়ারেন্টাইন করেছে বিএমসি, অভিযোগ আনা হয়েছিল বিহার পুলিশের তরফে। সুশান্তের বাবার দায়ের করা এফআইআরের ভিত্তিতে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত করতে আগে মুম্বই পৌঁছেছিল চার সদস্যের একটি টিম। এই দলের নেতৃত্ব দিতেই মুম্বই পৌঁছেছিলেন বিনয় তিওয়ারি, যিনি বিহার পুলিশের সিংহম নামেও পরিচিত। বিহার পুলিশের অন্য চার অফিসারের জন্য কোয়ারেন্টাইন প্রোটোকল এনে হাজির করেনি বিএমসি, কিন্তু এসপি পদাধিকারের অফিসার যাওয়ামাত্র আচমকা কেন এই নিয়মের টেনে হাজির করছে বৃহন্মুম্বই পুরনিগম তা নিয়ে প্রশ্ন নেটিজেনদের। সুতরাং সুপ্রিম কোর্টে ভর্ত্সনার পরেও পাটনার এসপি'কে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেওয়া হবে না বলেই সিদ্ধান্ত বিএমসির। 

বন্ধ করুন