বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বলিউডে একাধিকবার হয়েছে ‘চড় কাণ্ড’! নাম জড়িয়েছে শাহরুখ, সলমন, এষা, অমরেশ পুরীর
সেলেবদের থাপ্পড় কেলেঙ্কারি: অমরেশ পুরী থেকে এষা দেওল…. তালিকা দীর্ঘ

বলিউডে একাধিকবার হয়েছে ‘চড় কাণ্ড’! নাম জড়িয়েছে শাহরুখ, সলমন, এষা, অমরেশ পুরীর

  • বলিউডে ‘রাগচটা’ খাতায় নাম উঠেছে এই তারকাদের। কেন জানেন?

বলিউড তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কৌতুহলের শেষ নেই অনুরাগীদের। এমন পরিস্থিতিতে, সেলেবদের ব্যক্তিগত জীবনও সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত থাকে না বললে মোটেও ভুল হবে না। কখনও পাপারাৎজি আবার কখনও খবরের প্রতিবেদন থেকে তাঁদের নিয়ে বিভিন্ন খবর বেরিয়ে আসে। তারকারা কখনও কখনও সেই খবরে প্রতিক্রিয়া জানায়, আবার কখনও কখনও এড়িয়ে যান। 

শ্যুটিং সেটে মূলত মাথা ঠান্ডা রাখার চেষ্টা করেন তারকারা। আবার কখনও কখনও মানসিক অবস্থা বিগড়ে যেতে দেখা যায় তাঁদের। এমন বেশ কয়েকজন তারকা রয়েছেন, যারা তাঁদের সহকর্মী অভিনেতা বা সেলিব্রিটিদের কাউকে রেগে চড় মেরেছিলেন। আরও পড়ুন: BTS: সুজয় ঘোষের ছবির শ্যুটিং শেষ করলেন করিনা, সেটে দেখা করতে যান সইফ-তৈমুরও

শাহরুখ খান এবং শিরীষ কুন্দর: অভিনেতা শাহরুখ খান ফারাহ খানের স্বামী ও পরিচালক শিরীষ কুন্দারকে একবার ক্ষেপে গিয়ে চড় মেরেছিলেন। শোনা যায়, শিরীষ Ra.One ছবিটি নিয়ে মজা করছিলেন। অনেকক্ষণ সহ্য করার পর শাহরুখ রাগের বসে তাঁকে চড় মেরে দেন। সেই সময় এই খবর নিয়ে দারুণ চর্চা হয়েছিল। উল্লেখ্য, শাহরুখ খান এবং করিনা কাপুর খান অভিনীত ছবি Ra.One বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়েছিল। 

সলমন খান এবং সুভাষ ঘাই: বলিউডের অন্যতম পরিষ্কার মনের অভিনেতা হিসেবে নাম উঠে আসে সলমন খানের। উদার মনোভাবের পাশাপাশি বদমেজাজের বেশ পরিচিত তিনি। সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, একবার সুভাষ ঘাইকে চড় মেরেছিলেন সলমন। কারণ ভাইজানের জুতো পরে নাকি বাথরুম করতে চলে গিয়েছিলেন সুভাষ ঘাই। তারপরই ক্ষেপে উঠে তাঁকে চড় মেরেছিলেন সলমন। পরে দুজনেই একে অপরের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। 

এষা দেওল ও অমৃতা রাও: বলিউডে বিশেষ একটা ভালো কেরিয়ার নয় এষা দেওল এবং অমৃতা রাওয়ের। এই দুই অভিনেত্রীকে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল 'পেয়ারে মোহন' ছবিতে। শোনা যায়, অমৃতার ওপর রেগে গিয়ে তাঁকে চড় মেরেছিলেন এশা। তাঁদের এই লড়াইয়ের কথা হু হু করে ছড়িয়ে পড়েছিল।

অমরেশ পুরী এবং গোবিন্দা: এই তালিকায় অমরেশ পুরীর নামও রয়েছে। শোনা যায়, এক সময় রমরমা বাজার ছিল গোবিন্দার। সেই সময় শ্যুটিংয়ে দেরী করে আসতে শুরু করেছিলেন অভিনেতা। রিপোর্ট অনুযায়ী, সকাল ৯টার শ্যুটিংয়ের বদলে একবার গোবিন্দ সন্ধ্যা ৬টায় আসেন। এসব দেখে রেগে যান অমরেশ পুরী। দুজনের মধ্যে এই নিয়ে ঝগড়াও হয়েছিল। এরপরই তিনি গোবিন্দাকে কষিয়ে চড় মারেন। এরপর দুজনে একসঙ্গে আর কোনও দিন কাজ করেননি বলেই জানা যায়।

সলমন খান এবং ঐশ্বর্য রায়: পেশাগত জীবন ছাড়াও ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও বেশ আলোচনায় থাকেন সলমন খান। একসময় সলমন এবং ঐশ্বর্যের মধ্যে সম্পর্ক ছিল। কিন্তু সলমনের রাগের কারণে তাঁদের সম্পর্কের ইতি ঘটে। সলমন ঐশ্বর্যের গায়ে হাত তুলতেন এমন অনেক খবরও ছিল। তবে এ বিষয়ে প্রকাশ্যে কিছু বলেননি দু'জনের কেউই।

বন্ধ করুন