প্রথম দিন তানাজির কালেকশন ১৫.১০ কোটি টাকা এবং ছপাকের ৪ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা
প্রথম দিন তানাজির কালেকশন ১৫.১০ কোটি টাকা এবং ছপাকের ৪ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা

ছপাক বনাম তানাজি: প্রথম দিন বক্স অফিসের লড়াইয়ে এগিয়ে রইল কে?

  • প্রথম দিন দেশের বক্স অফিসে তানাজির মোট আয় দাঁড়িয়েছে ১৫.১০ কোটি টাকা, অন্যদিকে ছপাকের বক্স অফিস কালেকশন ৪ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা।

বছরের দ্বিতীয় শুক্রবার বলিউডে বক্স অফিসে মুক্তি পেয়েছে দুটো বহুচর্চিত ছবি-দীপিকা পাড়ুকোনের ছপাক এবং অজয় দেবগণের তানাজি: দ্য আনসাং ওয়ারিয়র। বক্স অফিস ইন্ডিয়ার রিপোর্ট অনুসারে, প্রথম দিনের কালেকশনে বিচারে প্রত্যাশা মতোই অনেকখানি এগিয়ে তানাজি। প্রথম দিন তানাজির মোট আয় দাঁড়িয়েছে ১৫.১০ কোটি টাকা, অন্যদিকে ছপাকের বক্স অফিস কালেকশন ৪ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা। সকালে শুরুটা ভালোই করেছিল পরিচালক মেঘনা গুলজারের ছবি, বিকালের দিকে ছবির কালেকশন বাড়ার প্রত্যাশা করেছিলেন ট্রেড এক্সপার্টরা কিন্তু তেমনটা ঘটল না।

তরণ আদর্শ টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, ‘তানাজি প্রত্যাশার বেশি আয় করেছে প্রথম দিন..দুপুরের পর থেকে আরও ভাল করেছে ছবি..মহারাষ্ট্রে ছবির ফল দুর্দান্ত..দর্শকদের মুখের প্রচারে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দিন ছবি আরও ভাল করবে বক্স অফিসে। শুক্রবারের আয় ১৫.১০ কোটি টাকা’।

তানাজি দ্য আনসাং হিরোর স্ক্রিনিংয়ে অজয় দেবগণ (এএনআই)
তানাজি দ্য আনসাং হিরোর স্ক্রিনিংয়ে অজয় দেবগণ (এএনআই)



ট্রেড বিশেষজ্ঞদের আশা ছিল প্রথম দিন ছপাকের আয় দাঁড়বে ৫-৭ কোটির আশেপাশে। অন্যদিকে তানাজির কালেকশন থাকবে ১০-১৪ কোটির আশেপাশে। এক্ষেত্রে একটা জিনিস মনে রাখতে হবে দুটো ছবির স্কেল,টার্গেল অডিয়েন্স কিন্তু একেবারে আলাদা। ট্রেড অ্যানালিস্ট গিরিশ জোহর জানিয়েছেন, তানাজি একদম বানিজ্যিক ছবি, যার বাজেট এবং স্টারকাস্ট অনেক বড়। অন্যদিকে ছপাক হল একটা সত্যঘটনা অবলম্বনে তৈরি সামজিক ছবি। তানাজি মুক্তি পেয়েছে দেশের প্রায় ৩৫০০ থিয়েটারে, সে জায়াগায় ছপাক রিলিজ করেছে মাত্র ১৫০০ প্রেক্ষাগৃহে’।

ট্রেড বিশেষজ্ঞ অক্ষয় রাঠির মতে, 'মাল্টিপ্লেক্স এবং শহরাঞ্চলে ভাল ফল করবে ছপক। তানাজি মূলত মাসের(জনতা) জন্য তৈরি ছবি এবং এর মধ্যে একটা সর্বভারতীয় আবেদন রয়েছে,সেটাই ছপাকের উপর তানাজির একটা বড় সুবিধা। তবে দুটো ভিন্ন স্বাদের, ভিন্ন দর্শকের জন্য তৈরি ছবি। এবং দুটোই ভাল ফল করতে পারে'।

মরাঠা ইতিহাসের প্রেক্ষারটে তৈরি হয়েছে তানাজি:দ্য আনসাং হিরো। ছবিতে ছত্রপতি শিবাজির অনুগত মরাঠা সেনানায়ক তানাজি মালুসারের চরিত্রে রয়েছেন অজয় দেবগণ। তাঁর স্ত্রী সাবিত্রীবাঈয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন কাজল। ছবির খলনায়ক সইফ আলি খানের দেখা মিলল মুঘল অনুগত উদয়ভান রাঠোরের ভূমিকায়। ১৬৭০ সালের ৪ঠা ফেব্রুয়ারি সিংহগড়রের যুদ্ধে মুখোমুখি লড়াইয়ে নেমেছিলেন তানাজি মালুসারে এবং উদয়ভান। সেই যুদ্ধই উঠে এসেছে পর্দায়। ২০২০-র ১০ জানুয়ারি মুক্তি পেতে চলেছে তানাজি: দ্য আনসাং ওয়ারিয়র।

অন্যদিকে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগারওয়ালের বায়োপিক এই ছবি। ফিল্মের দীপিকার বিপরীতে দেখা মিলেছে বিক্রান্ত মাসিকে। ২০০৫ সালে দিল্লির খান মার্কেটে দীপিকার উপর অ্যাসিড হামলা করেছিল নাদিম খান সহ তিনজন। জীবনযুদ্ধে হার না মানা লক্ষ্মীর অদম্য লড়াই ছপাকে মূল বিষয়।




বন্ধ করুন