বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুশান্তের মৃত্যু: রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল CBI

সুশান্তের মৃত্যু: রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল CBI

সিবিআই দায়ের করল এফআইআর 

মৃত্যুর তদন্তের বিজ্ঞপ্তি হাতে পাওয়ার চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে রিয়া ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

সুশান্ত সিং রাজপুতকে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেওয়া, তাঁর সঙ্গে প্রতারণা, ষড়যন্ত্র সহ একাধিক অভিযোগে অভিযুক্ত  রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবার-বাবা ইন্দ্রজিত চক্রবর্তী, মা সন্ধ্যা চক্রবর্তী, ভাই শৌভিক চক্রবর্তী, অ্যসোটিয়েট স্যামুয়েল মিরান্ডা এবং ম্যানেজার শ্রুতি মোদীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল সিবিআই, খবর এএনআই সূত্রে। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবারের তরফে পাটনা পুলিশের কাছে দায়ের করা এফআইআরের ভিত্তিতেই সিবিআই বৃহস্পতিবার এই এফআইআর দায়ের করেছে। বুধবার সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্র সরকারের তরফে জানানো হয়েছিল বিহার সরকারে সুপারিশ মেনে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত করবে সিবিআই। সেই মতোই বুধবার সন্ধ্যায় দ্য ডিপার্টমেন্ট অফ পার্সোনাল অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হল এই মামলার সিবিআই তদন্তের।আর নোটিফিকেশন জারির চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে রিয়া ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে তদন্তের সুবজ সংকেত মেলার সঙ্গে সঙ্গেই মামলায় দায়ের প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছিল সিবিআই। বিহার পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁদের তদন্তের রিপোর্টও জমা নেবে সিবিআই। পাশাপাশি আগামিকাল ইডির দফতরে হাজিরা দিতে হবে রিয়া চক্রবর্তীকে। রিয়া ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে আর্থিক তছরূপের মামলা দায়ের করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটও। স্বভাবতই দুই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার সাঁড়াশি চাপে রিয়া ও তাঁর পরিবার। 

অন্যদিকে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে গত ২৭ শে জুলাই বিহার পুলিশের যে চার সদস্যের দল মুম্বই পৌঁছেছিল তাঁরা বৃহস্পতিবার পাটনা ফিরে যায়। এদিন বিমানবন্দরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তাঁদের তদন্তের বিষয়ে কোনও বিস্তারিত তথ্য না দিলেও বলেন, এখন বিষয়টি সিবিআইয়ের হাতে। গত ৯ দিনে তাঁরা যে সমস্ত তথ্য পেয়েছেন সেই কেস ডায়েরি দ্রুত তুলে দেওয়া হবে সিবিআইয়ের হাতে।

গত ২৫শে জুলাই পাটনার রাজীব নগর পুলিশ থানায় রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবার এবং ম্যানেজার শ্রুতি মোদীর বিরুদ্ধে সুশান্তকে সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া, ষড়যন্ত্র, প্রতারণা সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করেছেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। দুদিন পর ২৭ শে জুলাই সংবাদমাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হয়।

এই মামলা বিহার পুলিশের কাছ থেকে অবিলম্বে মুম্বই পুলিশের হাতে হস্তান্তর করবার আবেদন জানিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালতে পিটিশন দায়ের করেছিলেন রিয়া। বুধবার ছিল সেই আবেদনের শুনানি। জাস্টিস হৃষিকেশ রায়, মামলার সঙ্গে জড়িত সকল পক্ষকে তিনদিনের সময় দেওয়া হয়েছে জবাব দেওয়ার জন্য। তবে জানিয়ে দেওয়া হয় কোনওরকম সুরক্ষাকবচ দেওয়া হবে না রিয়া চক্রবর্তীকে। আদালত জানিয়েছে আপতত মুম্বই ও বিহার পুলিশ উভয়পক্ষই এই মামলার তদন্ত চালাচ্ছে। চাইলেই তাঁরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে। মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী সপ্তাহে।

বন্ধ করুন