বাড়ি > বায়োস্কোপ > ছিছোড়ের জন্য ক্রেডিট দেওয়া হয়নি সুশান্তকে, মন খারাপ ছিল ওঁর, দাবি চেতন ভগতের
সুশান্ত সিং রাজপুত ও চেতন ভগত 
সুশান্ত সিং রাজপুত ও চেতন ভগত 

ছিছোড়ের জন্য ক্রেডিট দেওয়া হয়নি সুশান্তকে, মন খারাপ ছিল ওঁর, দাবি চেতন ভগতের

  • মিডিয়াতে যেভাবে সুশান্তের নামে মিথ্যা খবর প্রচার করা হয়েছে তা নিয়ে আপসেট ছিল কাই পো ছে অভিনেতা, বললেন চেতন ভগত।
  • তবে অবসাদগ্রস্ত হওয়ার তত্ত্ব মানতে চাননি চেতন ভগত। 

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্য নিয়ে আপাতত তোলপাড় গোটা দেশ । সুশান্তের মৃত্যুর পর বলিউড জুড়ে নেপোটিজম এবং ইনসাইডার বনাম আউটসাইডার বিতর্ক যেভাবে মাথাচাড়া দিয়েছে তা কল্পনাতীত। এবার এই বিষয়ে মুখ খুললেন দেশের অন্যতম জনপ্রিয় সাহিত্যিক চেতন ভগৎ । 

তাঁর মতে সুশান্ত ছিলেন অত্যন্ত সহজ সরল একজন ব্যক্তি যাঁকে প্রভাবিত করা ছিল খুবই সহজ । শুধু তাই নয় , নিজের মন্তব্যের পাশাপাশি তিনি অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত এর সাহসেরও যথেষ্ট প্রশংসা করেন এইভাবে টানা লড়াই চালিয়ে যাওয়ার জন্য । নিজের সম্পর্কে প্রকাশিত নেতিবাচক অতিরঞ্জিত মিডিয়া রিপোর্ট সুশান্তকে আরও অবসাদের দিকে ঠেলে দিয়েছে বলেই মনে করেন টু স্টেটস এর লেখক । চেতন ভগতের লেখা গল্প অবলম্বনেই তৈরি হয়েছিল সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রথম ছবি কাই পো ছে। তাই চেতন ভগতের সঙ্গে অদ্ভূত কানেকশন রয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুতের। 

টাইমস নাওকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে চেতন বলেন, 'ছিছোড়ে হিট ছবি ছিল, কিন্তু সুশান্তকে কোনওরকম ক্রেডিট দেওয়া হয়নি। এবং বেচারা সুশান্তের কিছু করবার ছিল না'। এই বিষয়টি নিয়ে তাঁকে সুশান্ত কিছু জানিয়েছেন কিনা প্রশ্ন করলে চেতন বলেন, ‘ও এই ব্যাপারে অভিষেক কাপুরের ( কাই পো ছে, কেদারনাথের পরিচালক) সঙ্গে কথা বলেছিল, ওঁকে মনের কথা জানিয়েছিল’।

তিনি আরও জানান, একই ধরণের মনোভাবের শিকার তিনি নিজেও। ভারতের সর্বাধিক পঠিত একাধিক বইয়ের লেখক হওয়ার পরেও কিছু মিডিয়ার নেতিবাচক সমালোচনা তাঁকেও সহ্য করতে হয়েছে। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে এখন তিনি এসবের সাথে অভ্যস্ত হয়ে উঠেছে । কোনও পুরুষ যখন পাবলিক মিডিয়া রিপোর্টে কোনো নারী ঘটিত চক্রান্তে মূল অভিযুক্ত হিসেবে নিজের অজান্তেই জড়িয়ে পরে এবং সকলে তার দিকে আঙুল তুলতে শুরু করে , তখন তার জীবন দুঃর্বিসহ হয়ে ওঠে বলেই মনে করেন ‘ওয়ান নাইট এট কলসেন্টার’ -এর স্রষ্টা । এখনও কেন সেই সমস্ত সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছেনা বা কিছু সেলিব্রিটি তাদেরই চ্যাট শো বা ইন্টারভিউতে মানসিক অবসাদ নিয়ে বক্তব্য রাখতে এখনো কি করে রাজি হচ্ছেন , তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন লেখক ।

২০১৭ সালেও চেতনের বাড়িতে তাঁর জন্মদিনের পার্টিতে গিয়েছেন সুশান্ত এবং কোনও অসঙ্গতি তাঁর নজরে পড়েনি বলেই জানান তিনি । তিনি পরিচালক অভিষেক কাপুর এবং প্রয়াত অভিনেতাকে ধন্যবাদ জানান ‘কাই পো চে’ করতে রাজি হওয়ার জন্য । ‘ ছবির গল্প গোধরা কাণ্ডের সাথে সংযুক্ত হওয়ায় অনেকেই তখন রাজি হননি । অথচ কোনো হিরো সুলভ চরিত্র না হলেও সুশান্ত এগিয়ে এসেছিলো ‘ । এমনকি হাফ গার্লফ্রেন্ড ছবিতেও আমি সুশান্তকেই কল্পনা করেছিলাম । কিন্তু পরে অভিনেতা সরে দাঁড়ানোয় চরিত্রটি চলে যায় অর্জুন কাপুরের কাছে', এমনটাই জানিয়েছেন  ‘ফাইভ পয়েন্ট সাম ওয়ান’ এর লেখক ।

বন্ধ করুন