ছপাকের মুক্তি আটকানোর পিটিশন খারিজ, তবে লক্ষ্মীর আইনজীবীর নাম ক্রেডিটে উল্লেখ করতে হবে, জানাল আদালত (পিটিআই)
ছপাকের মুক্তি আটকানোর পিটিশন খারিজ, তবে লক্ষ্মীর আইনজীবীর নাম ক্রেডিটে উল্লেখ করতে হবে, জানাল আদালত (পিটিআই)

আইনজীবীর নাম উল্লেখ করতে হবে ছপাকের ক্রেডিটে, নির্দেশ আদালতের

  • বিতর্ক থামছে না দীপিকা পাড়ুকোনের ছপাককে ঘিরে। বৃহস্পতিবার নতুন করে ছপাকের মুক্তি আটকাতে দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে মামলা দায়ের করেন লক্ষ্মী আগারওয়ালের আইনজীবী অপর্ণা ভাট।
  • আদালত এই আবেদন খারিজ করে দিলেও ছবির ক্রেডিটে অপর্ণার নাম উল্লেখের নির্দেশ দিয়েছে কোর্ট।

বিতর্ক থামছে না দীপিকা পাড়ুকোনের ছপাককে ঘিরে। বৃহস্পতিবার নতুন করে ছপাকের মুক্তি আটকাতে দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে মামলা দায়ের করেন লক্ষ্মী আগারওয়ালের আইনজীবী অপর্ণা ভাট। তবে ছপাকের মুক্তি আটানোর কোনও প্রশ্নই নেই জানিয়ে দিল কোর্ট।

নিজের পিটিশনে অপর্ণা ভাট জানিয়েছিলেন, অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগারওয়ালের হয়ে কোর্টে দীর্ঘদিন লড়াই করেছেন তিনি। ছপাকের চিত্রনাট্য তৈরির ক্ষেত্রেও পরিচালক মেঘনা গুলজাররে সহায়তা করেছেন তিনি। তবুও ছবির ক্রেডিটে তাঁর নাম উল্লেখ করা হয় নি। তিনি আরও জানান, ১৬ থেকে ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত পরিচালক মেঘনা গুলজারের সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ হয়েছিল এবং মেঘনা জানিয়েছিলেন ছবির ক্রেডিটে তাঁর নাম উল্লেখ করা হবে। কিন্তু বুধবার তিনি আচমকাই জানতে পারেন ছবির ক্রেডিটে তাঁর নামের কোনও উল্লেখ নেই।

এরপরই আদালতের দারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন লক্ষ্মীর আইনজীবী এবং ছপাকের মুক্তিতে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করার আবেদন জানান। তাঁর সেই আবেদন বৃহস্পতিবার আদালত খারিজ করে দিলেও ছবির ক্রেডিটে অপর্ণার নাম উল্লেখ করার নির্দেশ দিয়েছেন পাতিয়ালা হাউস আদালতের অতিরিক্ত নগর দায়রা আদালতের বিচারক পঙ্কজ শর্মা। ছপাকের পরিচালক মেঘনা গুলজার, প্রযোজক দীপিকা পাড়ুকোন এবং প্রযোজনা সংস্থা ফক্স স্টার ইন্ডিয়াকে এই নির্দেশ দেয় আদালত।

বৃহস্পতিবার ফেসবুকের দেওয়ালে অপর্ণা লেখেন, ‘আমার কাজের জন্য কোনও দিনই আমি লোকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই নি। স্পেশ্যাল স্ক্রিনিংয়ে ছপাক দেখে আমি খুব মর্মাহত। আমি আইনি পথে হাঁটতে বাধ্য হচ্ছি আমার নিজের পরিচিতি এবং সংহতিকে বাঁচাতে। আমি দীর্ঘদিন লক্ষ্মীর ক্রিমিনাল ট্রায়ালে পাতিয়ালা হাউস কোর্টে তাঁর প্রতিনিধিত্ব করেছি। আগামিকাল কেউ আমার প্রতিনিধিত্ব করবে.. আমার লড়াইয়ে.. কি বিচিত্র জীবন’।


২০০৫ সালে দিল্লির খান মার্কেটে ১৫ বছরের লক্ষ্মী আগারওয়ালের মুখে অ্যাসিড ছুঁড়েছিল প্রেমে প্রত্যাখ্যাত নাদিম খানসহ আরও তিনজন। সেই লক্ষ্মীর ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই মেঘনা গুলজারের ছপাকের চিত্রনাট্যের অনুপ্রেরণা।

এর আগে বুধবার বম্বে হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তিতে দীপিকা পাড়ুকোন। এদিন বম্বে হাইকোর্ট খারিজ করে দেয় লেখক রাকেশ ভারতীর অভিযোগ। গল্প চুরির অভিযোগে এনে ছবির প্রযোজক সংস্থা ফক্স স্টার স্টুডিও এবং প্রযোজক দীপিকা পাড়ুকোনের বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন এই লেখক। এদিন বম্বে হাইকোর্ট তাঁর রায়ে জানায় সত্যঘটনা বা বাস্তব জীবন অবলম্বনে তৈরি ছবির গল্প নিয়ে কেউ কপিরাইট মামলা করতে পারেন না।

শুক্রবার মুক্তি পেতে চলেছে ছপাক। ছবিতে দীপিকার বিপরীতে দেখা মিলবে বিক্রান্ত মাসির।

বন্ধ করুন