এক্সটাকশন ছবিতে ক্রিস হেমসওয়ার্থের সঙ্গে স্ক্রিন ভাগ করে নেবেন রণদীপ হুডা (সৌজন্যে-নেটফ্লিক্স)
এক্সটাকশন ছবিতে ক্রিস হেমসওয়ার্থের সঙ্গে স্ক্রিন ভাগ করে নেবেন রণদীপ হুডা (সৌজন্যে-নেটফ্লিক্স)

রণদীপের সঙ্গে মুখোমুখি লড়াইয়ে ক্রিস হেমসওয়ার্থ, অফস্ক্রিন বন্ধুত্ব জমে উঠেছে!

  • মারপিটের দৃশ্যের শ্যুটিং চলাকালীন একে অপরকে ভালোই আঘাত করেছেন দুজনে। রক্ত ঝরেছে, কালশিটে দাগ পড়েছে-তবে অফস্ক্রিন বেশ জমে উঠেছে ক্রিস-রণদীপের বন্ধুত্ব। ক্রিস হেমওয়ার্থ অভিনীত এক্সটাকশনের সঙ্গেই হলিউডে ডেব্যিউ হচ্ছে রণদীপের।

ক্রিস হেমসওয়ার্থের জনপ্রিয়তা ভারতে কতখানি সে বিষয়টা নিয়ে কোনও ধারণাই ছিল না অভিনেতার। অ্যাভেঞ্জার্স তারকা ২০১৮ সালে নিজের আসন্ন ছবি এক্সট্রাকশনের শ্যুটিং করতে এসেছিসে রীতিমতো চমকে গিয়েছিলেন নিজের ফ্যান ফলোয়িং দেখে! মার্বেল প্রেমীদের কাছে থরের হিসাবেই পরিচিত হেমসওয়ার্থ। তাঁকে ঘিরে পাগলামি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছিল যে ছবির শেষভাগের শ্যুটিং ভারতের বদলে ব্যাংককে করার সিদ্ধান্ত নেয় প্রযোজক সংস্থা।


শীঘ্রই মুক্তি পাবে ক্রিস হেমসওয়ার্থের এক্সট্রাকশন। যে ছবির প্রমোশনে শীঘ্রই ভারতে আসছেন অভিনেতা। এর আগে পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে এই হলিউড তারকা জানিয়েছেন, ‘আমাদের ভারতে দারুণ সময় কেটেছে। আমি ওখানকার আতিথেয়তায় মুগ্ধ। বলতে পারেন আমি মন্ত্রমুগ্ধ’। ৩৬ বছরের এই অভিনেতা আরও জানান, এই বিষয়টা আপনার মধ্যে অদ্ভূত একটা আত্মবিশ্বাসের জন্ম দেয়। আমার নিজেকে অত বেশি গুরুত্বপূর্ন কোনদিনও মনে হয়নি। যখন আমি অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে গেলাম..কেউ পাত্তাই দিল না’।



পরিচালক স্যাম হারগ্রেভসের এই ছবিতে ক্রিস হেমসওয়ার্থের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করে নেবেন রণদীপ হুডা, পঙ্কজ ত্রিপাঠি, রুদ্রাক্ষ জসওয়ালের মতো ভারতীয় শিল্পীরা। ভারতীয় উপমহাদেশের প্রেক্ষাপটে তৈরি হয়েছে নেটফ্লিক্সের এই ছবি। এদিন ভারতীয় কো-স্টার রণদীপ হুডার ভূয়সী প্রশংসা করলেন ক্রিস হেমসওয়ার্থ। রণদীপের সঙ্গে অভিনয় করা দারুণ অভিজ্ঞতা। আমাদের প্রথম অভিজ্ঞতা ছিল... আমাদের তিন সপ্তাহের লড়াই..একে অপরের সঙ্গে এবং আমাদের বেশ চোটও লেগেছে শ্যুটিং চলাকালীন। অনিচ্ছাকৃতভাবেই আমার ভুলে বেশ কয়েকবার ওর চোট লেগেছে, সত্যি আমি খুব লজ্জিত বোধ করেছি, তবে রণদীপ একটুও রাগ করেনি’। গরম জলের ভিতর দুজনের একটি দুর্ধর্ষ ফাইট সিকুয়েন্সের সময়ই নাকি এই ঘটনা ঘটেছে।

ছবিতে এক জওয়ানের চরিত্রে দেখা যাবে রণদীপকে। চরিত্রটির জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছেন তিনি। রণবীরের কথায়, ‘প্রতিদিন দু’বেলা নিয়ম করে অ্যাকশন দৃশ্যের অনুশীলন করতে হতো, আমার এই চরিত্রটাই গল্পের মোড় ঘুরিয়ে দেয়’।

ছবিতে টেলর রেকের ভূমিকায় রয়েছে ক্রিস হেমসওয়ার্থ। এক আন্তর্জাতিক ক্রিমিন্যাল তাঁর কিডন্যাপ হওয়া ছেলেকে উদ্ধার করতে টেলর রেককে ভাড়া করবেন। সেই সূত্রেই বাংলাদেশে হাজির হবে সে। তারপর সেই কিডন্যাপ হওয়ায় বাচ্চা ছেলেটির সঙ্গে কীভাবে এক অদ্ভূত মায়ার বাঁধনে জড়িয়ে পড়বে সে-তাই নিয়েই এগোবে ছবির গল্প। কিডন্যাপ হওয়া বাচ্চা ছেলের ভূমিকায় দেখা যাবে ভারতীয় অভিনেতা রুদ্রাক্ষ জসওয়ালকে। নিজের খুদে কো-স্টারেরও প্রশংসা করতে ভুললেন না ক্রিস। তিনি বলেন, 'রুডি প্রচন্ড ট্যালেন্টেড, ওর ভবিষ্যত উজ্বল। অনেক দূর যাবে ও। বিশ্বাস করুন অনেক পরিণত অভিনেতাদের থেকেও একটা সিন ভালো বোঝে রুডি। ওর অভিনয় আমার চোখে জল এনে দিয়েছে'।

২৪ এপ্রিল থেকে নেটফিক্সে স্ট্রিমিং শুরু হবে এক্সট্রাকশনের। ১৬ মার্চ এই ছবির প্রচারে ভারতে আসছেন ক্রিস হেমসওয়ার্থ।


বন্ধ করুন