বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Cinebap-Ruma: ‘…এই ভয়টাই ছিল’, লম্বা ফেসবুক পোস্ট সিনেবাপের বউ-এর! মৃন্ময়ও দিল ঝগড়ার ইঙ্গিত
সিনেবাপকে নিয়ে কী লিখলেন বউ রুমা মোদক?

Cinebap-Ruma: ‘…এই ভয়টাই ছিল’, লম্বা ফেসবুক পোস্ট সিনেবাপের বউ-এর! মৃন্ময়ও দিল ঝগড়ার ইঙ্গিত

  • সিনেবাপের ঘরের অন্দরে পৌঁছে গিয়েছে ঝামেলার আঁচ। স্বামী-স্ত্রী দু'জনের ফেসবুক পোস্ট থেকেই মিলছে ঝগড়ার ইঙ্গিত। 

দাদাগিরি থেকে যেটা শুরু হয়েছিল, সেটা কোথায় গিয়ে শেষ হবে? এখন যেন এটাই মনে মনে জানতে চাইছে ইউটিউবে বাংলা কনটেন্ট দেখতে পছন্দ করা দর্শকরা। দাদাগিরিতে কেন শুধুই দক্ষিণবঙ্গ, উত্তরবঙ্গ কই-- নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন নর্থ বেঙ্গলের কনটেন্ট ক্রিয়েটার মৃন্ময় দাস। এরপর তার জবাব দেন ‘বং গাই’ কিরণ দত্ত।

সেই বলে না কথাতেই কথা বাড়ে! তাই ভিডিয়ো-প্রত্যুত্তরের ভিডিয়োর লড়াইটা আর আটকে নেই দাদাগিরিতে। বরং তা দুজনেরই পরিবার-বন্ধুদের উপরে গিয়ে পড়েছে। কিরণের কথায় প্রসঙ্গ এসেছে মৃন্ময়ের মা-বউয়ের। আর সিনেবাপ তো কিরণের চর্চিত প্রেমিকা ‘আলু দ্য ফ্রেঞ্চ ফ্রাই’কে টেনে নিয়ে ‘নোংরা ইঙ্গিত’ করতেও ছাড়েননি। এসবের মাঝে সোমবার সারাদিন ভাইরাল হয়েছিল মৃন্ময়ের স্ত্রী রুমা মোদকের একটা লেখা। যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘যেখানে নিজের কথার কোনও দাম নেই সেখানে সস্তার পাবলিসিটির দরকার কোনও দিনই ছিল না আমার।’ আরও পড়ুন: ‘নরম গদিতে আলু সেদ্ধ ভাত’, সিনেবাপের নিশানায় এবার বং গাই-এর প্রেমিকা ‘আলু’!

তবে এই পোস্টের স্ক্রনশট ছড়িয়ে পড়তেই ফের পোস্ট করলেন রুমা। এবার বরং স্বামীর হয়েই একটু কথা বললেন। সঙ্গে তাঁর দাবি, তাঁর পোস্টের ভুল মানে করায় তাঁদের সংসারে ভাঙন ধরতে বসেছে!

এবার রুমা লিখলেন,

‘আমার সাথে মৃন্ময়ের মাখো-মাখো প্রেম ব্যাপারটা কোনদিনই ছিল না। তাই ওকে নিয়ে প্রেমমাখা কোনো লাইন আমি লিখিনি কখনো। আমরা ফাজলামি মারতে মারতে একে-অপরের প্রেমে পড়ি। অতঃপর বিয়ে… এবার আসি সাপোর্টের কথা। কীভাবে সাপোর্ট করতে হয় কেউ একটু বোঝাবে আমাকে প্লিজ। এই নো চাপ ওনলি সিনেবাপ ট্যাগলাইনটা আমার মাথাতেই আসছিল> ওটা লিখে দিলেই হয়তো সাপোর্ট করা হয়ে যেত।

আমি তো বং গাই এর ভিডিয়োগুলো পর্যন্ত ঠিক করে দেখিনি। কেন জানো ? মাইরি ভীষণ কষ্ট হয়। কেউ ওকে নিয়ে খিল্লি ওড়ালে। কেউ একটা বাজে কথা বললে। এটা ভালোবাসা না? এটা সাপোর্ট না? …কারণ আমি তো জানি রিয়েল লাইফে ও মেয়েদের কতটা সম্মান করে। ও কতটা ভদ্র। ও কতটা সৎ। কিন্তু, ওকে তো বেশিরভাগ মানুষ রিল লাইফেই চেনে… ছেলেটা কিন্তু আস্তে আস্তে চেঞ্জ হচ্ছিল। ওর হেটার্সরাও এক সেকেন্ড থেমে ভাববেন একদিন সব খারাপ ভিডিয়োগুলো প্রাইভেট করে দিলে, আরও অনেক অনেক ভালো ভিডিও বানালে সমালোচনা করার সুযোগ পাবেন তো?’

অন্য দিকে, সোমবার রাতে পোস্ট করা নতুন ভিডিয়োতেও সিনেবাপ দাবি করেছেন এই ঝামেলা তাঁর বিবাহিত জীবনে প্রভাব ফেলেছে। সংসারে অশান্তি। আর এইজন্য বং গাইকেই দায়ি করেন মৃন্ময়। আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় দু'জনের ভক্তরাই চাইছেন এই ঝামেলা বন্ধ হয়ে যাক। কাদা মাখামাখি কারওরই আর ভালো লাগছে না!

 

বন্ধ করুন