বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ৫০% দর্শক নিয়ে রাজ্যে খুলছে সিনেমা হল, থাকছে সংশয়, উদ্বেগও
বড় খবর

৫০% দর্শক নিয়ে রাজ্যে খুলছে সিনেমা হল, থাকছে সংশয়, উদ্বেগও

মিলল অনুমতি (PTI)

  • ৩১শে জুলাই থেকে খুলছে সিনেমা হল। 

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে বন্ধ হয়েছিল রাজ্যের সমস্ত সিনেমা হল। অবশেষে সুখবর সিনেমাপ্রেমীদের জন্য, আগামী ৩১শে জুলাই থেকে সিনেমা হল খোলবার অনুমতি দিল রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নবান্নের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়, করোনার বিধিনিষেধ আরও একটু শিথিল করে আগামী ৩১ শে জুলাই থেকে রাজ্যে ৫০% দর্শক নিয়ে সিনেমা হল খুলতে পারবেন হল মালিকরা।

চলতি সপ্তাহ থেকেই রাজধানী দিল্লিসহ দেশের বেশ কিছু রাজ্যে খুলে দেওয়া হয়েছিল তালাবন্ধ সিনেমা হল। এরপর থেকে বাংলার হল মালিকরা হা-পিত্যেশ করে অপেক্ষা করছিলেন রাজ্য সরকারের অনুমতির। করোনার জেরে ব্যাপক ক্ষতির মুখে সিঙ্গল স্ক্রিন ব্যবসায়ীরা, বাদ নেই মাল্টিপ্লেক্স চেনগুলিও। গত বছর মার্চে তালাবন্ধ হওয়ার দীর্ঘ সাত মাস পর ১৫ই অক্টোবর থেকে তালা খুলেছিল সিনেমা হলের। কিন্তু করোনার জেরে বড় পর্দায় মুক্তি পায়নি কোনও বিগ বাজেট হিন্দি ছবি, পুজোয় মুক্তি পাওয়া বাংলা ছবি লাভের মুখ দেখেনি। এরপর ডিসেম্বর নাগাদই তালাবন্ধ হয় একাধিক সিঙ্গল স্ক্রিন থিয়েটার। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে মুক্তি পিছিয়ে যায় ‘হাবজি-গাবজি’, ‘কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন’সহ বহু ছবিরই। 

খুলছে সিনেমা হল
খুলছে সিনেমা হল

এরপর করোনার আক্রান্তের সংখ্যা রাজ্যে ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায় গত ৩০শে এপ্রিল কড়া সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য, বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল সিনেমা হল। অবশেষে তিন মাস পর সিনেমা হল খোলবার অনুমতি মেলায় কিছুটা হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন হল মালিকরা। সবরকম কোভিড বিধি মেনেই খুলতে হবে হল। তবে আশঙ্ক্ষার কালো মেঘ কিন্তু কাটছে না। কারণ পঞ্চাশ শতাংশ দর্শক নিয়ে হল চালানোয় আর্থিক লাভের মুখ দেখাটা বেশ দুষ্কর। এছাড়াও করোনাকালে মানুষ যে হলমুখী হবেন না সেই শঙ্কাও রয়েছে।  মহারাষ্ট্রে এখনও হল তালাবন্ধ, তাই ছবি মুক্তির পথে হাঁটবেন না বলিউড প্রযোজকরা। অন্যদিকে পুজোর আগে সেইভাবে বড় বাজেটের বাংলা ছবিও মুক্তির সম্ভাবনা নেই। 

 

বন্ধ করুন