বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > MeToo: পাবলিক প্লেসে ওরাল সেক্স! কমেডিয়ান সঞ্জয় রজৌরার ওপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ
সঞ্জয় রজৌরা। 
সঞ্জয় রজৌরা। 

MeToo: পাবলিক প্লেসে ওরাল সেক্স! কমেডিয়ান সঞ্জয় রজৌরার ওপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

  • ইনস্টাগ্রামে বেনামি এক প্রোফাইল থেকে এই অভিযোগ আনা হয়েছে। 

কমেডিয়ান সঞ্জয় রজৌরার ওপর সামাজিক মাধ্যমে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আনলেন এক মহিলা। নিজের নাম গোপন রেখে ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন ওই মহিলা, ব্যবহার করেছে ‘তারা’ নাম। সেখানে বিস্তারিতভাবে যৌন নির্যাতনের কথা তুলে ধরা হয়েছে। যা দেখে নড়েচড়ে বসেছে গোটা দেশ। 

অভিযোগকারী মহিলার দাবি ২০ বছর বয়সের কোঠায় তাঁর সম্পর্ক হয় সঞ্জয়ের সঙ্গে। প্রথম সে সঞ্জয়কে দেখে টিভি-র এক চ্যাট শো-তে। যেখানে সে ধর্ষণ নিয়ে হওয়া এক প্যানেলর সদস্য ছিল। সঞ্জয়ের বক্তব্য শুনে তাঁর ধারণা হয়, সে নারী স্বাধীনতায় বিশ্বাসী এক পুরুষ। কিন্তু ভুল ভাঙে কিছুদিনের মধ্যেই।

‘তারা’-র দাবি তাঁর ইচ্ছে না থাকা সত্ত্বেও সঞ্জয় তাঁর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করেছে, মদ্যপ থাকায় সে সময় বাধা দেওয়ার মতো ক্ষমতাও তাঁর মধ্যে ছিল না। এমনকী, তাঁর বারণ না শুনে ঘনিষ্ঠ ভিডিও শ্যুট করেছে। সেই সময় ব্রা-র স্ট্র্যাপ খুলে তাঁর বক্ষ যুগল দেখানোর চেষ্টাও করা হয়েছিল। এমনকী, পাবলিক প্লেসে বাধ্য করা হয়েছে ওরাল সেক্সের জন্য। কাঁধ ধরে দোর করে হাঁটু ভেঙে বসতে বাধ্য করা হয়েছে ও মহিলাকে। জোর করে মুখে সিগারেট গুঁজে দেওয়া, অন্য পুরুষের সামনে অশ্লীল ইঙ্গিতের মতো ঘটনাও ঘটেছে। 

ওই ইনস্টা পোস্টে আরও দাবি করা হয়েছে, নিজের মনের ভার হালকা করতে এই পোস্ট শেয়ার করেছেন ‘তারা’! কোনও প্রমাণ তিনি দেননি, কারণ পুরো দুনিয়া তাঁর কথা বিশ্বাস করবে এমন উদ্দেশ্য নিয়ে এই পোস্ট তিনি করেননি। বরং চান এসব বন্ধ করতে। ‘তারা’ আরও জানিয়েছেন ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞতার সামান্য কিছু ঘটনা তিনি শেয়ার করেছেন। সব বলা সম্ভবও নয় তাঁর পক্ষে। বরং, সেসব কাটিয়ে উঠে বর্তমানে সুখে আছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি নিজের পোস্টে।

তবে, গোটা ব্যাপারটা সাজানো দাবি করে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্তারিত পোস্ট করেছেন সঞ্জয়। যেখানে দাবি করা হয়েছে, কেন ওই মহিলা তাঁর বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ দিতে চায়নি! নাম লুকনো ভারতের মতো দেশে সাধারণ ব্যাপার হলেও প্রমাণ লুকনো নয়। বরং, সঞ্জয়ের দাবি নিজেকে নিরাপরাধ প্রমাণ করার মতো সব তথ্য তাঁর হাতে রয়েছে। আর সেসব তিনি তুলে দিতে রাজি আছেন যে কোনও তদন্তকারী প্রতিষ্ঠানের হাতে।

বন্ধ করুন