HT বাংলা থেকে সেরা খবর পড়ার জন্য ‘অনুমতি’ বিকল্প বেছে নিন
বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Dev-Soumitrisha: ‘ব্যস মা ব্যস! এবার চোখে জল চলে আসবে’, সৌমিতৃষা কোন কথা শুনে এমন বললেন দেব?

Dev-Soumitrisha: ‘ব্যস মা ব্যস! এবার চোখে জল চলে আসবে’, সৌমিতৃষা কোন কথা শুনে এমন বললেন দেব?

Dev-Soumitrisha: ‘আমি এখনও সিনিয়র সিটিজেন হইনি’, সৌমিতৃষার কোন কথা শুনে কাঁদার উপক্রম হল দেবের? প্রধানের ট্রেলার লঞ্চে জমিয়ে সৌমিতৃষার লেগ পুলিং করলেন নায়ক।

দেব-সৌমিতৃষার প্রধান 

দেবের প্রধানের হাত ধরে বড়পর্দায় পা রাখছেন মিঠাইরানি। টেলিভিশনের এই জনপ্রিয় নায়িকাকে দেবের অনস্ক্রিন স্ত্রী হিসাবে দেখতে মুখিয়ে রয়েছে তাঁর ভক্তরা। ক্রিসমাসে ছবি মুক্তি, আর মঙ্গলবার সামনে এল প্রধানের ট্রেলার। আরও পড়ুন-‘এই হাত ঘুষ খায় না’, অঞ্চল প্রধানকে হুঁশিয়ারি ইন্সপেক্টর দেবের! মিঠাইরানি এবার বড়পর্দায়

ছবির ট্রেলারে সৌমিতৃষার কোনও সংলাপ না থাকায় নিন্দকরা ফিসফিসানি শুরু করে দিয়েছে। যদিও সেই বিতর্ককে পাত্তা দিতে না-রাজ মিঠাইরানি। দেবের নায়িকা হওয়া তাঁর কাছে ফ্যান-গার্ল মোমেন্ট আগেই জানিয়েছিলেন। ট্রেলার লঞ্চের আসরে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে মিডিয়ার মুখোমুখি তাঁরা। পুরোনো ভুল শুধরে শুরুতেই সৌমিতৃষা বললেন, ‘আমি কিন্তু বলিনি ছোট থেকে তোমার ফ্যান’ (হাসি)। হাসি চাপতে পারেননি দেব। বললেন, ‘হ্যাঁ, আমি এখনও সিনিয়র সিটিজেন হইনি। আমি নতুন করেই শুরু করছি। নতুন করে গল্প বলার চেষ্টা করছি। তবে এটা তো ঠিক ইন্ডাস্ট্রিতে আমার ১৭ বছর হয়ে গেছে। এখন আমি বুম্বাদার অনুভূতিটা একটু হলেও বুঝতে পারি। তবে এটা তো কমপ্লিমেন্ট, ভালো লাগছে’।

এদিন দেবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সৌমিতৃষা। এক নাগাড়ে বলে চললেন-'আমরা তো হিরোইজম দেখে এতটা সম্মান করেছি। এতটা ভালোবেসেছি সুপারস্টার দেবকে। তবে যখন কো-স্টার হিসাবে কাজ করলাম, নতুন হিসাব শিখলাম কেন মানুষকে এত লোকে ভালোবাসে, এখনও টিকিট কেটে হলে (ওঁর) ছবিটা দেখতে যায়। ওঁনার সৎ মনোভাব, এত ডাউন টু আর্থ মানুষ, সিনিয়র-জুনিয়র সকল সহকর্মীকে সম্মান দেওয়া- এইগুলো থেকে শিখেই আমি পরের কাজে পা দেব।'

সৌমিতৃষার মুখে নিজের এত প্রশংসা হাঁ দেব। নায়িকার লেগপুল করার জন্য বললেন, ‘হ্যাঁ, ভুল তো কিছু বলছে না’। ফের চালু সৌমিতৃষা। বললেন, ‘ভুল তো কিছু নয়, যারা কাজ করেছে প্রত্যেকে একথা বলবে’। এবার দেব আর থাকতে পারলেন না! নায়িকার ঘাড় ধরে বললেন, 'ব্যস মা ব্যস! এবার চোখে জল চলে আসবে’। এরপর হাসির রোল!

টনিক, প্রজাপতি-র সাফল্যের পর দেবের এই ছবির পরিচালকের আসনেও রয়েছেন অভিজিৎ সেন। এই ছবিতে দীপক প্রধানের চরিত্রে দেখা যাবে অভিনেতাকে। তাঁর স্ত্রী রুমির চরিত্রে রয়েছেন সৌমিতৃষা। এক অসহায় বৃদ্ধ দম্পতি (পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায় ও মমতা শঙ্কর) এবং পুলিশ অফিসারের সম্পর্কের আবর্তে তৈরি হয়েছে এই ছবি। দুর্নীতিগ্রস্ত অঞ্চল প্রধানের দাদাগিরির বিরুদ্ধে কীভাবে রুখে দাঁড়াবে দীপক প্রধান সেই নিয়ে এগোবে প্রধান। 

ধর্মপুর গ্রামের দুর্নীতিগ্রস্ত অঞ্চল প্রধানের চরিত্রে এই ছবিত রয়েছেন অনির্বাণ চক্রবর্তী। আর বৃদ্ধ মাস্টারমশাই ও তাঁর স্ত্রীর ভূমিকায় দেখা মিলবে পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায় ও মমতা শঙ্করের। এছাড়াও থাকছেন সোহম চক্রবর্তী, কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, জন ভট্টাচার্য, সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়, অম্বরীশ ভট্টাচার্য, বিশ্বনাস বসু, খরাজ মুখোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিকরা। ২২ শে ডিসেম্বর বড় পর্দায় আসছে এই ছবি। 

 

 

বায়োস্কোপ খবর