কুম্ভকর্ণকে কম্পিটিশন দিচ্ছেন রণবীর! (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
কুম্ভকর্ণকে কম্পিটিশন দিচ্ছেন রণবীর! (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

'রণবীর দিনে ২০ ঘন্টা ঘুমোয়, লকডাউনে ওর কোনও চাপ নেই': দীপিকা পাড়ুকোন

  • লকডাউনের সময় ভারতীয় রান্না শিখছেন দীপিকা। ধনে আর পুদিনার পার্থক্য বোঝার চেষ্টা করছেন নায়িকা।

কুম্ভকর্ণকেও কম্পিটিশন দিচ্ছেন রণবীর সিং। লকডাউনের সময় সবচেয়ে সহজ কাজটা বেছে নিয়েছেন রণবীর-ঘুম। দীপিকা পাড়ুকোন সম্প্রতি সাংবাদিক রাজীব মাসান্দের সঙ্গে হ্যাংআউটে একটি ইন্টারভিউ সারেন সেখানেই এই তথ্য ফাঁস করেছেন রণবীর ঘরনি। দীপিকার কথায়, আমাকে বলতেই হচ্ছে এইরকম পরিস্থিতি রণবীরের জন্য সবচেয়ে সহজ। ও দিন কমপক্ষে ২০ ঘন্টা ঘুমোচ্ছে, যার ফলে আমার কাছে অফুরন্ত সময় রয়েছে, আমি যা ইচ্ছা হচ্ছে সেটাই করছি’। তাহলে বাকি চারঘন্টা কী করছেন রণবীর? দীপিকা বলেন, আমরা সিনেমা দেখছি, খাচ্ছি, ব্যায়াম করছি। দারুণ মজায় রয়েছে রণবীর। কোনও দাবি নেই, ঝামেলা নেই, খুব সহজেই হ্যান্ডেল করা যাচ্ছে।

রণবীর কোনওদিনই রান্নাঘরে ঢোকে না। আমি ইতালীয় বা কন্টিনেন্টাল খাবার বানাতে ওস্তাদ তবে কুকারকে আমি ভয় পাই। এই সময়টাতে আমি একটু ভারতীয় রান্না শিখছি আমি। হাতে সময় থাকায় ধনে এবং পুদিনা, বেসন এবং আটার পার্থক্যটা আমি ভালোভাবে শিখে নিচ্ছি।


পাশাপাশি দীপিকার অনেকটা সময় কাটছে গাছপালার পরিচর্যায়। এই সময় অস্কারে নমোনীত প্যারাসাইট, ফর্ড ভার্সেস ফেরারি, জোজো ব়্যাবিটের মতো ছবি ইতিমধ্যেই দেখে নিয়েছেন দীপবীর। দীপিকার কথায় সময় কাটানোর জন্য কাজের অভাব নেই তার। তিনি জানান, 'কিছু না কিছু করার মতো কাজ আমি পেয়েই যাই-এইরকম সময়েও'।

লকডাউনের শুরু থেকেই দীপিকা এবং রণবীর ফ্যানেদের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় রোজনামচার আপডেট দিচ্ছেন। জামাকাপড় গুছানো থেকে ফেস ম্যাসাজ কিংবা দীপিকা কীভাবে নিজেকে ফিট রাখছেন-সবই উঠে আসছে ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে।






বন্ধ করুন