বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কপিরাইট লঙ্ঘনের অভিযোগ,তবে ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’-এর মুক্তি আটাকালো না হাইকোর্ট
প্রকাশ্যে ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’-এর ঝলক 
প্রকাশ্যে ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’-এর ঝলক 

কপিরাইট লঙ্ঘনের অভিযোগ,তবে ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’-এর মুক্তি আটাকালো না হাইকোর্ট

  • মার্কিন প্রযোজকের শেষ মুহূর্তের আবেদন কাজে এল না। ছবির মুক্তিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করল না দিল্লি হাইকোর্ট।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া-রাজকুমার রাও অভিনীত ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’-এর মুক্তির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করতে অস্বীকার করল দিল্লি হাইকোর্ট। শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেল এই চর্চিত ছবি। 

মুক্তির মাত্র কয়েকঘন্টা আগে এই সিনেমার উপর তড়িঘড়ি নিষেধাজ্ঞা জারি করতে অস্বীকার করেন হাইকোর্ট। অরবিন্দ আদিগার লেখা বুকার প্রাইজ জয়ী উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে এই ছবি। প্রিয়াঙ্কা-রাজকুমারের পাশাপাশি ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন আদর্শ গৌরব। 

মার্কিন প্রযোজক জন এন হার্ট জেআর আবেদন খারিজ করেন দেন বিচারপতি সি হরি শঙ্কর। জানা গিয়েছে ২০০৯ সালে আদিগার থেকে এই উপন্যাসের সত্ত্ব কিনেছিলেন প্রযোজক। আদালত জানায়, এটা কারুর অজানা নয় যে ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’ উপন্যাস নিয়ে ছবি তৈরি হচ্ছে, একদম শেষ মুহূর্তে ছবির মুক্তি আটকানোর চেষ্টা অর্থহীন। গত দেড় বছর ধরে এই ছবি নিয়ে সংবাদমাধ্যমে চর্চা চলছে। 

হার্ট জেআর এবং বাকিদের তীব্র ভর্ত্সনা করেন বিচারপতি, কারণ ছবির প্রযোজকদের সঙ্গে বেশ কিছু গোপন নথিপত্র স্বাক্ষর করেছেন তিনি। জরুরি ভিত্তিতে কপিরাইট লঙ্ঘনের এই অভিযোগ সংক্রান্ত আবেদন শোনার পর বিচারপতি সাফ জানান শেষ মুহূর্তে ছবির মুক্তি আটকানো সম্ভবপর নয়, কারণ এর জেরে প্রযোজকদের বড় ক্ষতির মুখে পড়তে হবে। 

বিচারপতি বলেন, ‘আপনারা করোনা অতিমারীকে হাতিয়ার করতে পারেন না দেরিতে আবেদন জানানোর জন্য। আপনারা শেষ সময়ে আসছেন এবং দিশেহারা হলেও এই কারণে অব্যবহতি দেওয়া যাবে না’। 

হার্ট এবং তাঁর সহকারী সোনিয়া মুদভাটকল কপিরাইট লঙ্ঘনের এই অভিযোগ আনেন। তাঁদের আইনজীবী কপিল শঙ্খ আদালতকে জানায়, তাঁর মক্কেলরা আর্থিকভাবে এবং ব্যক্তিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে এই ছবি মুক্তি পেলে। তবে দ্য হোয়াইট টাইগারে প্রযোজকদের তরফে জানানো হয়, গত বছর অক্টোবরে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছিলেন মুদভাটকল। নির্দিষ্ট সময়ে জবাব দেওয়া হয়েছিল, এরপর থেকে আর কোনও আপত্তি জানাননি তাঁরা। অনলাইনে শেষ মুহূর্তে মুক্তি আটকালে ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বেন তাঁরা, এই দাবি মেনে নিয়ে মুক্তিতে সবুজ সংকেত দেয় আদালত। 

অন্যদিকে নেটফ্লিক্সের তরফে আইনজীবী সাই রাজাগোপাল হলেন, জানুয়ারির ১১ তারিখ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ছবি মুক্তি পেয়েছে। তাই এখন এই আপত্তির অযৌক্তিক। আবেদনকারীদের একজনের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষের পরেই এই ছবি মুক্তি পেয়েছে। 

ছবির মুক্তি না আটকালেও এই মামলা নিয়ে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেনি আদালত। মামলার পরবর্তী শুনানি ২২ মার্চ। 

বন্ধ করুন