বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Projapoti: মিঠুনকে হাত ধরে টেনে আনলেন দেব! ছবি ঘিরে নয়া বিতর্ক সোশ্যাল মিডিয়ায়

Projapoti: মিঠুনকে হাত ধরে টেনে আনলেন দেব! ছবি ঘিরে নয়া বিতর্ক সোশ্যাল মিডিয়ায়

মিঠুনের সঙ্গে নতুন ছবি পোস্ট করলেন দেব। 

‘প্রজাপতি’ ইস্যু যেন থামার নামই নিচ্ছে না। এদিকে এই ছবিকে ব্লকবাস্টার হিসেবে ঘোষণা করে দিয়েছেন দেব। প্রথম দশদিনে দেশের বক্স অফিসে সবমিলিয়ে ৪ কোটি টাকার ব্যবসা করে নিয়েছে এই ছবি, খবর সূত্রের।

ফের মিঠুনের সঙ্গে ছবি পোস্ট করলেন দেব। আপাতত ‘প্রজাপতি’ ইস্যুতে গরম রাজ্য-রাজনীতি। তৃণমূলের সাংসদ দেবের ছবিতে বিজেপির মিঠুনকে মেনে নিতে পারেননি দলের অন্দরের অনেকেই। এমনকী, নন্দনেও জায়গা হয়নি এই সিনেমার। যা নিয়ে দেব নিজে তো মুখ খুলেছেনই, সঙ্গে মন্তব্য করেছেন দিলীপ ঘোষ আর কুণাল ঘোষও। 

মঙ্গলবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দিলেন দেব ফের মিঠুনের সঙ্গে। দেখা গেল পার্টি থেকে যেন টেনে বাইরে নিয়ে আসছেন। আর ক্যাপশনে নিজস্ব ঢঙে লিখলেন, ‘এমনি’। আসলে দেব বরাবরই দাবি করে এসেছেন, মিঠুনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক রাজনীততির ময়দানের বাইরে। মিঠুন তাঁর বাড়িতে আসেন। একসময় মিঠুনের ছবির সেটে খাবার ডেলিভার করতেন দেবের বাবা। সেই থেকে তাঁদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক। 

দেব সেই সময় বলেছিলেন, ‘মুম্বইয়ে আমার বাবার ক্যাটারিংয়ের ব্যবসা ছিল। সিনেমার সেটে মিঠুন দার সঙ্গে প্রথম দেখা হয় উনি তখন থেকেই আমায় স্নেহ করতেন, অনেক গল্প করতে। জানাতেন ওঁর প্রেমের গল্প থেকে আগেকার দিনের সেটের গল্প। আমায় অনেকটা স্পেস দিতেন তিনি। বুম্বাদার থেকেও আমি এই স্পেসটা পাই। এই জন্যই আমার সঙ্গে সমস্ত সিনিয়রদের খুব ভালো সম্পর্ক।’ একই সঙ্গে তিনি স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘মিঠুনদার সেটে আমার বাবা খাবার দিত, আর এখন তিনিই তাঁর প্রযোজক। এক সময় যে তাঁকে খাবার দিয়েছে আজ সে আমার বস।’

দেবের পোস্ট করা এই ছবির তলায় নানা ধরনের মন্তব্য করেছেন তাঁর অনুিরাগীরা। একজন লিখেছেন, ‘এই ছবি দিয়ে তুমি কিছু না বলেও অনেক কিছু বলে দিলে দেবদা। তোমাকে অনেক ভালোবাসি।’ আরেকজন লিখলেন, ‘মহাগুরু আর গুরুদেব’। তৃতীয়জন লিখলেন, ‘তৃণমূলের অশিক্ষিতদের মুখে সপাটে জবাব এই ছবি। রাজনীতি যে পরিষ্কার মন নিয়ে করা যায় তার প্রমাণ তুমিই’। 

প্রসঙ্গত, তৃণমূলের কুণাল ঘোষ প্রজাপতি প্রসঙ্গে বলেছিলেন, ‘দেব ভালো অভিনেতা, মিঠুনদাই আসলে ছবিটা ডুবিয়ে দিয়েছে’। তাতে দেবের জবাব ছিল, ‘অভিনয়ের ব্যাপারটা আমার উপর ছেড়ে দেওয়াই ভালো’। প্রসঙ্গত, প্রথম দশদিনে দেশের বক্স অফিসে সবমিলিয়ে ৪ কোটি টাকার ব্যবসা করে নিয়েছে এই ছবি, খবর সূত্রের। ১ জানুয়ারি এই ছবির আয় ছিল ১ কোটির বেশি, যা গুঁড়িয়ে দিয়েছে বাংলা বক্স অফিসের পুরোনো সব রেকর্ড।

 

বন্ধ করুন