বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ধর্মেন্দ্র কাকে ‘বিট্টু বেবি’ বলে ডাকেন? এতদিনে ফাঁস হল রহস্য!
মেয়ে এষার সঙ্গে ধর্মেন্দ্র
মেয়ে এষার সঙ্গে ধর্মেন্দ্র

ধর্মেন্দ্র কাকে ‘বিট্টু বেবি’ বলে ডাকেন? এতদিনে ফাঁস হল রহস্য!

  • বাবা-মেয়ের আদরমাখা মুহূর্ত ধরা পড়ল সামাজিক মাধ্যমে।

১৯৭৭ সালে ‘ধরমবীর’ সিনেমার পুরনো একটি ছবি সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন বর্ষীয়ান অভিনেতা ধর্মেন্দ্র। ছবিতে দেখা যাচ্ছে ঘোড়া চড়ছেন তিনি। তাঁর গায়ে ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া সওয়ারির পোশাক। 

ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘সময় ঘোড়ার মতো... তেজিয়াল ঘোড়ার পিঠের উপর... সাহসের সঙ্গে সওয়ারি হওয়া প্রয়োজন।’ অভিনেতার পোস্টে ভালবাসার ইমোজি কমেন্ট করেন মেয়ে এষা দেওল। তার প্রত্যুত্তরে ধর্মেন্দ্র লেখেন, ‘ভালবাসি তোমায় বিট্টু বেবি।’

এষা ধর্মেন্দ্রর দ্বিতীয় স্ত্রী হেমা মালিনীর ঘরের মেয়ে। ধর্মেন্দ্র এবং হেমার আরও এক মেয়ে আছেন - অহনা। ধর্মেন্দ্র প্রথম পক্ষে রয়েছে চার ছেলেমেয়ে- সানি দেওল, ববি দেওল, বিজিতা এবং অজিতা। অভিনেতার প্রথম পক্ষের স্ত্রী'র নাম প্রকাশ কৌর। 

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান আইডল  ১২-এ বিচারক আসনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্রিম গার্ল অভিনেত্রী হেমা মালিনী। সেখানেই মেয়ে এষা, হেমার জন্য বিশেষ আবেগঘন বার্তা প্রেরণ করেন। মেয়ে এষা দেওল বলেন, হেমা মালিনীকে মা হিসেবে পেয়ে তিনি আশীর্বাদপ্রাপ্ত মনে করেন নিজেকে।

তিনি বলেন, ‘আপনাদের সবার কাছে হেমাজি একজন ড্রিম গার্ল হতে পারে, তবে আমাদের কাছে তিনি শুধুমাত্র ড্রিম গার্ল নন আমাদের মা'ও।’ পাশাপাশি আরও বলেন, নাচই তাঁদের প্রথম ভালবাসা। ভারতীয় ক্লাসিকাল নৃত্যশিল্পে এবং সংস্কৃতিতে হেমা মালিনী, এষা এবং অহনা দেওলের প্রচুর অবদান রয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমি খুব গর্ব অনুভব করি তোমার জন্য এবং আশীর্বাদপ্রাপ্ত তোমায় মা হিসেবে পেয়ে।’

শোয়ের মধ্যে জায়েন্ট স্ক্রিনে মেয়ের আবেগঘন বার্তা পেয়ে চোখে জল ধরে রাখতে পারেননি ড্রিম গার্ল হেমা। চোখের জল মুছতে মুছতে তিনি বলেন, ‘এষা এবং অহনা আমার দুই আদুরে মেয়ে। ধন্যবাদ আমাকে এত সুন্দর জীবন এবং খুশি দেওয়ার জন্য।’

বন্ধ করুন