বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ধর্মেন্দ্রর মানসিক সুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন ট্রোলারের, মুখের উপর জবাব ‘বীরু’র
ধর্মেন্দ্র। 

ধর্মেন্দ্রর মানসিক সুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন ট্রোলারের, মুখের উপর জবাব ‘বীরু’র

  • ধর্মেন্দ্রর মানসিক সুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন তুলল এক নেটিজেন। 

প্রকাশ্যে তাঁর মানসিক সুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার পরেও নেটপাড়ার ওই বাসিন্দার প্রতি এতটুকুও মেজাজ হারালেন না ধর্মেন্দ্র। বরং নিজের নম্র স্বভাবকে আরও একবার হাতিয়ার করে সেই নেটিজেনকে পাল্টা জবাব দিয়ে তিনি মনে করিয়ে দিলেন যে উন্মাদনাই কিন্তু বিপ্লব আনার অন্যতম উপাদান। ইন্ডিয়া গেটের সামনে গ্র্যানাইট পাথরে নেতাজির যে মূর্তিটি তৈরির প্রস্তাব ইতিমধ্যেই দেওয়া হয়েছে, সেই মূর্তির ছবি শেযার করে টুইটারে ধর্মেন্দ্র লেখেন, 'নেতাজিকে আমার সেলাম... এই জীবন মানুষের জন্য...মানুষের জন্যই উৎসর্গ করা উচিত।'

এরপর সেই টুইটের নীচে নিজেই নিজের উদ্দেশে লেখেন , 'ধরম, তোমার নিজের প্রতি অটুট বিশ্বাসই বদলে দিয়েছিল তোমার গোটা জীবন। তাই নিজস্বতা কখনওই খোয়ানো উচিত নয়।' ধর্মেন্দ্রর এহেন টুইট দেখে একজন নেটিজেন তাঁর উদ্দেশে লেখেন, 'আপনি কি উন্মাদ হয়ে গেলেন নাকি?' 

অংশুমান নামের অন্য এক নেটিজেন অবশ্য সঙ্গে সঙ্গে বর্ষীয়ান তারকার উদ্দেশে লেখা ওই ট্রোলারের করা কমেন্টের তীব্র প্রতিবাদ করে ওঠেন। জানান, বর্ষীয়ান অভিনেতাকে তাঁর সম্মানটুকু দেওয়া হয়।

এরপরেই আসরে নামেন ধর্মেন্দ্র। অংশুমানকে শান্ত করে ওই ট্রোলারের উদ্দেশে তাঁর দার্শনিক জবাব, 'কোনও ব্যাপার নয় অংশুমান। উন্মাদনা না থাকলে জীবনে বিপ্লব আসবে কী করে?' 'বীরু'র তরফে এহেন জবাব পেয়ে 'ঠিক আছে' বলে চুপ করে যান ট্রোলার। প্রসঙ্গত, প্রায়শই টুইটারে নিজের ফ্যানদের সঙ্গে গল্প আড্ডায় মেতে ওঠেন এই বর্ষীয়ান বলি-তারকা। তাঁদের করা প্রশ্নের জবাবও দেন।

বন্ধ করুন