বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > নবদম্পতি লালন-ফুলঝুড়ি, প্রোমো দেখে বিরক্ত দর্শক ‘আবার সেই সতীন নিয়ে ঘর’!

নবদম্পতি লালন-ফুলঝুড়ি, প্রোমো দেখে বিরক্ত দর্শক ‘আবার সেই সতীন নিয়ে ঘর’!

লালন-ফুলঝুরির বিয়ে নিয়ে খিল্লি সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

নতুন প্রোমোয় দেখা যাচ্ছে অঙ্কুর আর ফুলঝুরির বিয়ের মণ্ডপ তৈরি। আর সেখানেই অঙ্কুর জানায়, বিয়ে লালন-ফুলঝুরির।

‘ধুলোকণা’র দর্শকদের ইচ্ছেপূরণ হতে চলেছে এবার। এতদিন ধরে এরকমই একটা মুহূর্তের অপেক্ষায় ছিলেন যে তাঁরা। নানা টালবাহানার পর অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন লালন আর ফুলঝুরি। আর তাদের নিজের হাতে বিয়ে দেবে অঙ্কুর।

নতুন প্রোমোয় দেখা যাচ্ছে অঙ্কুর আর ফুলঝুরির বিয়ের মণ্ডপ তৈরি। তবে কনে আসতেই বিয়ের জায়গা থেকে বেরিয়ে যায় লালন। আর সেই সময়ই লালনকে আটকায় অঙ্কুর। বলে, ‘কোথায় যাচ্ছ লালন? আজ তো তোমার আর ফুলঝুরির বিয়ে।’ যা শুনে রীতিমতো চমকে ওঠে চড়ুই।

গত কয়েকমাস ধরে টিআরপি তালিকায় বেশ ভালো ফলাফল করছে ‘গাঁটছড়া’। লালন আর ফুলঝুরির মাঝে চড়ুইয়ের ঢুকে পড়া একদমই পছন্দ ছিল না দর্শকের। তবে এখন প্রশ্ন, আদৌ বিয়েটা হবে তো? চড়ুই কি দেবে বিয়ে হতে?

তবে লালনের এই ঘনঘন বিয়ে করা নিয়ে আপাতত মস্করা শুরু নেট-নাগরিকদের মধ্যে। প্রোমো পোস্টেই একজন লিখেছেন, ‘লালনের এখন দুই বউ। চড়ুই-ফুলঝুরি সতীন।’ আরেকজনের মন্তব্য, ‘একটা ধারাবাহিক নেই যেখানে নায়ক একটা বিয়ে করে। সেই একই প্যানপ্যানানি।’

মস্করা হল অঙ্কুরের চরিত্রে থাকা তথাগতকে নিয়েও। ‘এই লোকটা সব জায়গায় নায়ক-নায়িকার ঝামেলা মিটিয়ে তাঁদের বিয়ে দিয়ে দেয়। বেচারা এদিকে নিজের বিয়েটাই বাঁচাতে পারেনি!’

তবে ‘ধুলোকণা’ ফ্যানেরা আনন্দ জাহির করে নিয়েছে এই পোস্টে। ‘মনেই হচ্ছিল এরকম কিছু একটা হবে। এবার আরও ভালো লাগবে’, লিখলেন এক মহিলা। সঙ্গে আরেকদনের লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে আর্জি, ‘শুধু দেখবেন লালন যেন আবার দুই বউ নিয়ে সংসার না করে। আমরা চাই না বিয়ের পরেও ওদের বিরক্ত করুক চড়ুই।’

 

বন্ধ করুন