বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বৈভবের নামের মেহেন্দি হাতে লাগালেন দিয়া, আজ দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে নায়িকা
আজ সাত পাকে বাঁধা পড়ছেন দিয়া মির্জা
আজ সাত পাকে বাঁধা পড়ছেন দিয়া মির্জা

বৈভবের নামের মেহেন্দি হাতে লাগালেন দিয়া, আজ দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে নায়িকা

  • দিয়ার বিয়ের প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে। প্রি-ওয়েডিং অনুষ্ঠানের ঝলক উঠে এল সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

সোমবার জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করছেন দিয়া মির্জা। আজ সাত পাকে বাঁধা পড়ছেন অভিনেত্রী। চুপিসাড়েই বৈভব রেখির সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন প্রাক্তন মিস এশিয়া প্যাসিফিক। প্রি-ওয়েডিং অনুষ্ঠান ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। হবু কনে দিয়ার মেহেন্দির ঝলক অবশেষে প্রকাশ্যে এল। বৈভবের নামে মেহেন্দি দিয়ে হাত রাঙালেন দিয়া। অপর একটি ছবিতে দিয়ার ব্যাচেলার পার্টির ঝলক উঠে এল। যেখানে হবু কনকে হাসি মুখে মাথায় মুকুট পরে বসে থাকতে দেখা গেল। 

রবিবার ছিল দিয়ার মেহেন্দি অনুষ্ঠান। মেহেন্দি রাঙা হাতের ছবি পোস্ট করে  ইনস্টা স্টোরিতে অভিনেত্রী লেখেন- ‘প্যায়ার’ (ভালোবাসা)। তবে বিয়ের খবরে এখনও সিলমোহর দেননি দিয়া। কিন্তু শনিবার রাতে বৈভব এবং বন্ধুদের সঙ্গে প্রি-ওয়েডিং পার্টিতে ব্যস্ত থাকতে দেখা গিয়েছে নায়িকাকে। 

বন্ধুর ইনস্টাগ্রামে হবু কনে দিয়া
বন্ধুর ইনস্টাগ্রামে হবু কনে দিয়া

দিয়ার হবু স্বামী, বৈভব রেখি পেশায় ব্যবসায়ী। শনিবার রাতে দিয়া প্রি-ওয়েডিং পার্টির ছবি শেয়ার করলেন শাহরুখ খানের ম্যানেজার পুজা দাদলানি। তিনি পরিবারে স্বাগত জানান দিয়াকে। পূজার সঙ্গে বৈভবের সম্পর্ক স্পষ্ট না হলেও, তাঁরা একে অপরের সঙ্গে বেশ ঘনিষ্ঠ তা স্পষ্ট বলে দিচ্ছে এই ফ্যামিলি অ্যালবামের ঝলক। পূজা এদিন দিয়ার উদ্দেশে লেখেন, ‘আমাদের পাগল পরিবারে তোমাকে স্বাগত, সকলে তোমাকে খুব ভালোবাসি’। এই পোস্টের কমেন্ট বক্সে লাভ ইমোজি দিয়ে পূজার প্রতি পালটা ভালোবাসা উজার করে দিতে দেখা গেল দিয়াকেও।

দিয়ার মেহেন্দি রাঙা হাত
দিয়ার মেহেন্দি রাঙা হাত

দিয়ার বাড়ির চারপাশ ইতিমধ্যেই ফুলের সাজে সেজে উঠেছে। পুরোদমে চলছে বৈভবকে স্বাগত জানানোর প্রস্তুতি। কেবলমাত্র দুই পরিবার ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের উপস্থিতিতেই হবে বিয়ের সাদামাটা অনুষ্ঠান, বিয়ে নিয়ে কোনও লাইমলাইট চাইছেন না দিয়া। অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকেই নাকি এহেন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দিয়া মির্জা। 

২০১৪ সালে নিজের (প্রাক্তন) বিজনেস পার্টনার সাহিল সঙ্ঘার সঙ্গে বিয়ে করেন দিয়া মির্জা। এরপর আচমকাই ছন্দপতন। বিয়ের পাঁচ বছরের মাথায়, ২০১৯ সালের অগস্ট মাসে বিচ্ছেদের ঘোষণা সারেন দিয়া-সাহিল। আনুষ্ঠানিক বিবৃতে তাঁরা জানান, 'আমারা বন্ধু ছিলাম আর আজীবন থাকব । সুখে-দুঃখে একে অপরের পাশেও থাকব। হয়ত আমাদের এই যাত্রাপথ অন্যদিকে আমাদের নিয়ে যাবে। তবে একসঙ্গে যে সফর আমরা পেরিয়ে এসেছি সেটা কোনওদিনই ভোলবার নয়'।

বন্ধ করুন