বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'সায়রার জন্যই বেঁচে থাকতে বড় সাধ হয়', বলেছিলেন দিলীপ কুমার
সায়রা বানু এবং দিলীপ কুমার। ( ছবি সৌজন্যে - পিটিআই)
সায়রা বানু এবং দিলীপ কুমার। ( ছবি সৌজন্যে - পিটিআই)

'সায়রার জন্যই বেঁচে থাকতে বড় সাধ হয়', বলেছিলেন দিলীপ কুমার

  • প্রয়াত হয়েছেন বলিউড কিংবদন্তি দিলীপ কুমার। একবার হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে 'দিলীপ সাব' জানিয়েছিলেন কোন ব্যাপারখানা আজও তাঁকে বাঁচতে ভালো লাগায়, প্রতিদিন বেঁচে থাকার প্রেরণা জোগায়।

গত বুধবার ৯৮ বছর বয়সে প্রয়াত হয়েছেন বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমার।অভিনেতার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ বলিউড। মৃত্যুর সময় তাঁর পাশে ছিলেন স্ত্রী সায়রা বানু। প্রায় পাঁচ দশকের বেশি সময় জুড়ে দাম্পত্য জীবন কাটিয়েছেন এই জুটি। ২০১২ সালে হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে 'দিলীপ সাব' জানিয়েছিলেন তাঁর বেঁচে থাকতে ইচ্ছে হয় কেবলমাত্র স্ত্রী সায়রা বানুর জন্যেই। আরও বলেছিলেন মায়ের পর তাঁকে এমন নিঃস্বার্থ ভালোবাসা কেবল সায়রার থেকেই পেয়েছেন তিনি।

১৯৬৬ সালে বিয়ে করেন দিলীপ ও সায়রা। শেষ কয়েক বছরে নিজেকে পুরোপুরি সায়রার হাতে সঁপে দিয়েছিলেন তিনি। সদ্য প্রয়াত এই অভিনেতা হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন কোন ব্যাপারখানার জন্য আজও তাঁর বাঁচতে ভালো লাগে, প্রতিনিয়ত বেঁচে থাকার প্রেরণা জোগায়। 'একমাত্র আমার স্ত্রী সায়রার জন্য আরও বেঁচে থাকতে বড্ড ইচ্ছে করে। তাঁর হাসিমুখ দেখার জন্যই প্রতিনিয়ত আমার বাঁচতে ইচ্ছে করে। জীবন সায়াহ্নে এসে বুঝেছি মা ছাড়া কারও থেকেই সায়রার মতো এত নিঃস্বার্থ ভালোবাসা পাইনি আমি।' 

 

একে ওপরের পরিপূরক ছিলেন তাঁরা। ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
একে ওপরের পরিপূরক ছিলেন তাঁরা। ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

সামান্য থেমে 'দিলীপ সাব' আরও বলেছিলেন,' প্রতিদিন ঘুম ভাঙার পর যখন দেখি ওঁ কী না করে সারাদিন জুড়ে স্রেফ আমার মন ভালো রাখার জন্য, দেখে আমার মন ভরে যায়। এখন আমরা শুধুই পরস্পরের আনন্দটুকুই চাই। এর বেশি জীবনে থেকে আর কোনও দাবি নেই আমাদের। বরাতজোর না থাকলে এমন জীবন কেউ পায়!' 

আরও জানিয়েছিলেন সায়রা বানুর সঙ্গে তাঁর বয়সের বিস্তর ফারাকের ব্যাপারে। প্রায় ২২ বছরের ছোট সায়রা দিলীপ কুমারের থেকে। তাই সায়রাকে যখন দিলীপ কুমার বিয়ে করেন তিনি তখন তাঁর স্বামীর বোনদের থেকেও বয়সে ছোট ছিলেন। 'আমাকে অবাক করে দিয়েছিল সায়রা। এত সুন্দরভাবে নিজেকে আমাদের পরিবারে মানিয়ে নিয়েছিল যে বলার নয়। ছোট্ট পরিবার থেকে আসা সায়রা আমার বিরাট সংসারটাকে যেভাবে গুছিয়েছে নিজের হাতে তা এককথায় অবিশ্বাস্য!' এক নিঃস্বাসে জানিয়েছিলেন 'সায়রার স্বামী'।

 

বন্ধ করুন