বাড়ি > বায়োস্কোপ > ‘মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা ছিল না,ধর্ষণের খবর ভুয়ো’, দাবি দিশা সালিয়ানের বাবার
দিশা সালিয়ান 
দিশা সালিয়ান 

‘মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা ছিল না,ধর্ষণের খবর ভুয়ো’, দাবি দিশা সালিয়ানের বাবার

  • দিশা সালিয়ানের মৃত্যু নিয়ে বিতর্কের মাঝে মুম্বই পুলিশের পাশে দিশা সালিয়ানের পরিবার। 
  • মুম্বই পুলিশের তদন্তে আস্থা রয়েছে, মিডিয়ার ভূমিকায় ক্ষুদ্ধ সতীশ সালিয়ান। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন ম্যানেজার ও সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর মধ্যে যোগসূত্র খোঁজার সংবাদ মাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় চেষ্টায় আগেই আপত্তি জানিয়েছিল দিশা সালিয়ানের পরিবার। এবার সরাসরি সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুললেন দিশার বাবা,সতীশ সালিয়ান।

সুশান্তের মৃত্যুর ঠিক ৬ দিন আগে অভিনেতার প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার রহস্যজনক অবস্থায় মৃত্যু হয়। ৮ই জুন গভীর রাতে মালাডের একটি হাইরাইজের ১৪ তলা থেকে পড়ে যাওয়ার মৃত্যু হয় দিশা সালিয়ানের। সুশান্তর মতো দিশার মৃত্যুও নাকি আত্মহত্যা, দাবি করেছে মুম্বই পুলিশ। জানানো হয়েছে তদন্ত চলছে। দিশার পরিবারের শান্তি ভঙ্গের চেষ্টা করছে বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম-বিস্ফোরক অভিযোগ তাঁর বাবার। 

ইন্ডিয়া টুডেকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে সতীশ সালিয়ান বলেন, মিডিয়ার বাক স্বাধীনতা আছে মানে যা ইচ্ছা তাই বলবে এটা হবে পারে না। আমি আপনাদের সবাইকে অনুরোধ জানাচ্ছি। আমাদের ব্যক্তিগত জীবনে হস্তক্ষেপ করবেন না। আমাকে পুলিশ যা বলার বলেছে। তাঁরা আমাকে মেয়ের পোস্টমর্টেম রিপোর্ট দেখিয়ে, সব প্রমাণ দেখিয়েছে। আমার মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা ছিল না, ওঁর ধর্ষনও হয়নি। ওর দেহের ভিতরের সব অঙ্গেও কোনও অস্বাভাবিকতা ছিল না'।  দিশার মা যোগ করেন, আমার মুম্বই পুলিশের উপর ভরসা আছে, আমার বিশ্বাস তাঁরা সঠিকভাবে তদন্ত করছে। 

মু্ম্বই পুলিশকে লেখা চিঠিতে দিশা সালিয়ানের বাবা জানিয়েছেন, মুম্বই পুলিশের তদন্তের উপর তাঁর পূর্ণ আস্থা আছে। সতীশ সালিয়ান, সেন্ট্রাল মুম্বইয়ের দাদরের বাসিন্দা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর মৃত মেয়ের ‘সম্মানহানি’র জন্য যেসব পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে তার বিরুদ্ধে মালবানি থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছেন দিশার বাবা।

সুশান্ত ও দিশার মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ট্রোলিংয়ের শিকার হতে হয় মুম্বই পুলিশকে। বিরোধীদের চাপ, সংবাদমাধ্যমের লাগাতার প্রশ্নে বিদ্ধ উদ্ধব সরকার। অবশেষে গতবুধবার মুম্বই পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (জোন-১১) বিশাল ঠাকুর বলেন, আমরা বলতে পারছি না উনি কীভাবে পড়ে গিয়েছিলেন। অনেক মানুষ সালিয়ানকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক তথ্য শেয়ার করছেন। আমরা অনুরোধ করছি এই মামলার সঙ্গে জড়িত কোনও উল্লেখযোগ্য সূত্র থাকলে সেটা মুম্বই পুলিশের সঙ্গে ভাগ করে নিতে। তাহলে সঠিকভাবে তদন্ত হতে পারে।

অন্যদিকে রিপাবলিক টিভিতে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, দিশা সালিয়ানের ময়নাতদন্তের রিপোর্টে নাকি উল্লেখ রয়েছে তাঁর শরীরে কোনও কাপড়ের অংশ ছিল না, নগ্ন অবস্থায় ছিল দেহ। তা সত্ত্বেও কেন মুম্বই পুলিশ এই মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে দাবি করছে তা নিয়ে হতবাক নেটিজেনরা।

বিজেপি এমপি তথা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নারায়ন রাণে মঙ্গলবার এক সাংবাদিক বৈঠকে দাবি করেন দিশা সালিয়ানকে ধর্ষণ করে খুন কা হয়েছে। দিশার ময়নাতদন্তের রিপোর্টে নাকি তাঁর যৌনাঙ্গে আঘাতের কথা উল্লেখ রয়েছে। 

বন্ধ করুন