বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্ত মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইডির দফতরে হাজির বরুণ মাথুর
ইডির দফতরে পৌঁছালেন বরুণ মাথুর 
ইডির দফতরে পৌঁছালেন বরুণ মাথুর 

সুশান্ত মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইডির দফতরে হাজির বরুণ মাথুর

  • সুশান্ত সিং রাজপুতের কোম্পানি ইনসাই ভেনচার্সের যৌথ ডিরেক্টর বরুণ মাথুর। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত আর্থিক তছরুপের মামলাটির তদন্ত করছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এই মামলায় বুধবার সুশান্তের বিজনেস পার্টনার বরুণ মাথুরকে জেরা করছে ইডি। এদিন সকালেই বরুণ মাথুরকে ইডির সমন পাঠানোর খবর সামনে আসে, এরপর সকাল এগারোটা নাগাদ মুম্বইয়ে ইডির দফতরে হাজির হন বরুণ মাথুর।

সুশান্তের প্রথম কোম্পানির পার্টনার বরুণ মাথুর। মূলত তাঁর সঙ্গে জুটি বেঁধেই ব্যাবসা শুরু করেছিলেন সুশান্ত। ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে ইনসাই ভেনচার্স প্রাইভেট লিমিটেড নামের এক কোম্পানি স্থাপন করেন সুশান্ত-বরুণ। আর্টিফিসিয়্যাল ইন্টালিজেন্সের উপর কাজ করবার ভাবনার নিয়েই এই কোম্পানি শুরু হয়েছিল। 

কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রকের তথ্য অনুসারে এই কোম্পানির অফিস রেজিস্ট্রার করা রয়েছে বি-২০৪, দ্য হুডা কো-অপারিটভ, জিএইচ-১, সেক্টর-৫৬, গুরুগ্রামে।

শুরুতে এই কোম্পানির দুজন ডিরেক্টর ছিল- সৌরভ মিশ্রা এবং বরুণ মাথুর, সুশান্ত ডিরেক্টর পদে যোগ দেন ২০১৮ সালের মে মাসে। সুশান্তের এই কোম্পানির কাজ মাঝপথে আচমকাই থমকে যায়, যদিও কোম্পানির স্ট্যাটাস এখনও অ্যাক্টিভ। এরপর ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে রিয়া চক্রবর্তী ও তার বাবা ইন্দ্রজিত্ চক্রবর্তীকে নিয়ে ভিভিডরেজ রিয়ালিটেক্স প্রাইভেট নামের এক কোম্পানি স্থাপন করেন সুশান্ত। আশ্চর্যজনকভাবে এই কোম্পানিটিও আর্টিফিসিয়্যাল ইন্টালিজেন্স নিয়ে কাজ করবার উদ্দেশ্য নিয়ে শুরু করেছিলেন সুশান্ত। রিয়ার মতে অক্টোবরে ইউরোপ ট্যুরের পর নভেম্বরে অসুস্থ হয়ে পড়েন সুশান্ত। যদিও এরপরেও ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে আরও একটি কম্পোনি শুরু করেছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। ৬ জানুয়ারি ফ্রন্ট ইন্ডিয়ায় ফর ওয়ার্ল্ড ফাউন্ডেশন নামের এক কোম্পানি শুরু করেন সুশান্ত, যাঁর ডিরেক্টর পদে সুশান্ত ছাড়াও ছিলেন রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তী।

বন্ধ করুন