বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > না ফেরার দেশে পা বাড়ালেন বুদ্ধদেব, মাথা নুইয়ে শ্রদ্ধা টলিউডের
'ঋজুদা'-কে নিয়ে না ফেরা দেশে পা বাড়ালেন বুদ্ধদেব গুহ। (নিজস্ব চিত্র)
'ঋজুদা'-কে নিয়ে না ফেরা দেশে পা বাড়ালেন বুদ্ধদেব গুহ। (নিজস্ব চিত্র)

না ফেরার দেশে পা বাড়ালেন বুদ্ধদেব, মাথা নুইয়ে শ্রদ্ধা টলিউডের

  • রবিবার রাতে বেলভিউ হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছেন সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহ।না ফেরার দেশে পা বাড়ালেন 'ঋজুদা'-র স্রষ্টা।নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়ার হ্যান্ডেলে প্রিয় সাহিত্যিকের প্রয়াণে শোকবার্তা জানিয়েছেন টলিপাড়ার বিভিন্ন জনপ্রিয় মুখ।

রবিবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ বেলভিউ হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছেন সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহ। বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। গত এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বুদ্ধদেব। সেবারও রটেছিল মৃত্যুর গুজব। সেসব ফুৎকারে উড়িয়ে সংবাদমাধ্যমকে মজা করে জানিয়েছিলেন, তিনি এখনও শেষ হননি। অনেকদিন বাঁচবেন। তবে করোনা জয় করে ফিরলেও পুরোপুরি সুস্থতা যেভাবে কখনও ফিরে আসেনি। বয়সজনিত নানান সমস্যার মধ্যে দেখা দিয়েছিল শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা ও মূত্রনালীতে সংক্ৰমণ। কিছুদিন আগে ফের ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে। রবিবার রাতে থামল লড়াই। না ফেরার দেশে পা বাড়ালেন 'ঋজুদা'-র স্রষ্টা।

দুই বাংলায় ছড়িয়ে থাকা তাঁর লেখার অনুরাগীদের মধ্যে রয়েছেন টলিপাড়ার বিভিন্ন জনপ্রিয় মুখ। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, আবির চট্টোপাধ্যায়ের পাশাপাশি রয়েছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় সহ একাধিক টলি ব্যক্তিত্বের নাম। নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়ার হ্যান্ডেলে প্রিয় সাহিত্যিকের প্রয়াণে শোকবার্তা জানিয়েছেন তাঁরা।

শিকার এবং অরণ্য কাহিনির পাশাপাশি বুদ্ধদেবের প্রেমিক সত্ত্বারও স্ফুরণ ঘটেছে তাঁর লেখায়। বারবার। প্রেমের দারুণ সব উপন্যাসের পাশাপাশি কিশোরদের জন্য তাঁর সৃষ্টি 'ঋজুদা'-র জনপ্রিয়তা আজও অমলিন। লেখার জন্য সারা জীবনভর পেয়েছেন অজস্র সম্মান ও পুরস্কার। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য আনন্দ পুরস্কার, শিরোমণি পুরস্কার এবং শরৎ পুরস্কার।

বন্ধ করুন