বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বুসান চলচ্চিত্র উত্সবে প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে ইমরান হাসমির ‘হারামি’
হারামি ছবিতে ইমরানের লুক 
হারামি ছবিতে ইমরানের লুক 

বুসান চলচ্চিত্র উত্সবে প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে ইমরান হাসমির ‘হারামি’

  • হারামি এবং বিটারসুইটের হাত ধরে বুসান চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চে প্রতিযোগিতায় নামতে চলেছে ভারতীয় সিনেমা।

ভারতীয় চলচ্চিত্রপ্রেমীদের জন্য সুখবর । এই বছর বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতামূলক বিভাগে জায়গা করে নিল  ইমরান হাসমির হারামি এবং অনন্ত মহাদেবনের বিটারসুইট। প্যানডেমিকের আবহে একাধিক চলচ্চিত্র উৎসব এবার বাতিল হয়ে গেলেও যে কয়েকটি হাতেগোনা ছবি উত্সব অনুষ্ঠিত হয়েছে তার মধ্যে বুসান একটি । এশিয়ার অন্যতম উল্লেখযোগ্য এই ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এই বছর ২১ থেকে ৩০ শে অক্টবরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ।

শ্যাম মাদিরাজুর পরিচালনায় ইমরান হাসমি অভিনীত ' হারামি ' ইতিমধ্যেই জিতে নিয়েছে বুসান চলচ্চিত্র উৎসবের মূল পর্বে ( নিউ হরাইজন ) লড়াইয়ের টিকিট । এই সাফল্যের যাবতীয় কৃতিত্ব পরিচালককেই দিয়েছেন অভিনেতা ইমরান হাসমি । তাঁর মতে-'প্রথমেই যখন আমি চিত্রনাট্য পড়েছিলাম , ছবিটি আমায় খুব টেনেছিল । আজ হারামির সম্পূর্ণ টিমের কর্মনিষ্ঠার মাধ্যমেই এতদূর আসা সম্ভব হয়েছে' । ভারতীয় দর্শকদের কবে ছবিটি দেখানো হবে , আপাতত সেই অপেক্ষাতেই দিন গুনছেন ইমরান ।

এদিকে ছবির সাফল্যের ব্যাপারে পরিচালক নিজেও যথেষ্ট উত্তেজিত । পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন , চলচ্চিত্র নির্মাণের মহাবিশ্বে এই মুহূর্তে অন্যতম প্রাণ কেন্দ্র হলো কোরিয়া । আর সেখানকারই ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের মূল পর্বের প্রতিযোগীতায় নমিনেশন পেয়েছে হারামি , যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করেন তিনি । এছাড়াও শুটিংয়ের অভিজ্ঞতার কথা জানাতে গিয়ে শ্যাম জানান আমেরিকা , ইউকে , সাউথ আফ্রিকা এবং ডেনমার্কের একাধিক শিল্পীকে ছবিতে ব্যবহার করা হয়েছে । এছাড়াও ভিক্টোরিয়া টার্মিনাস , বম্বে সেন্ট্রাল ও আরও একাধিক রেলওয়ে স্টেশন , ধারাভি বস্তি , মুম্বইয়ের একাধিক জনবহুল এলাকা ও জন সমাগমে পরিপূর্ণ মহম্মদ আলি রোডে শুটিং হয়েছে এই ছবির।

অপর দিকে বিটারসুইট ইতিমধ্যেই জিওসেক পুরস্কারের জন্য নমিনেশন পেয়েছে । মহাদেবনের পরিচালনায় কোয়েস্ট ফিল্মসের প্রাইভেট লিমিটেডের প্রযোজনায় নির্মিত এই ছবি ইতিমধ্যেই পেয়ে গিয়েছে বুসানের ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারের টিকিট । আর এশিয়ার অন্যতম গুরুত্ব পূর্ণ এই চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চে যোগ দিতে পেরে স্বভাবতই উচ্ছসিত পরিচালক । ছবির গল্প প্রসঙ্গে তিনি জানালেন এক অভূতপূর্ব পরিবেশে মানবাধিকার রাখার লড়াইতে সামিল হন আখ খেতে কাজ করা মহিলা শ্রমিকের দলের প্রেক্ষাপটেই মূলত আবর্তিত হবে মূল গল্প ।

এই বছর সেপ্টেট : দ্য স্টোরি অফ হংকং ছবির মাধ্যমে শুরু হতে চলেছে এই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব । ইতি পূর্বে কান চলচ্চিত্র উৎসবেও ছবিটিকে দেখানো হয়েছিল । এছাড়াও উৎসবের শেষ দিনে তামারু কোতারো পরিচালিত অ্যানিমেটেড জাপানি ছবি জোশি : দ্য টাইগার এন্ড দ্য ফিস দেখানো হবে ।

বন্ধ করুন